২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

রোগ তাড়াতে মেয়েকে ‘সাধু বাবা’র ঘরে রাত কাটাতে পাঠালেন বাবা-মা!


মানসিক রোগে আক্রান্ত নাবালিকা কন্যাকে সুস্থ হওয়ার আশায় ‘সাধু বাবা’র বাড়িতে রাত কাটানোর জন্য রেখে এলেন বাবা-মা। ফল যা হওয়ার তাই হয়েছে। দু রাত ধরে মেয়েটির উপর পাশবিক অত্যাচার চালালো ওই লম্পট।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার অদূরে মহেশতলায় ঘটেছে এ ঘটনা।

মহেশতলা থানার অন্তর্গত সরসুনা সোনামুখীর বাসিন্দা ধর্ষিতা কিশোরী (১৬)। বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান। ১০ বছর ধরে সে আক্রান্ত মানসিক রোগে। অনেক চিকিৎসকের কাছে গিয়েও মেলেনি সুরাহা। হতাশায় ভুগছিলেন মেয়েটির বাবা-মা। এক প্রতিবেশীর মাধ্যমে তাদের সাথে পরিচয় হয় সাধু শেখর রায়ের। সেই শেখর পাগল হিসেবে এলাকায় পরিচিত।

মেয়েটিকে দেখার পর তার বাবা-মাকে শেখর বলেন, তিন রাত মেয়েকে তার কাছে রাখতে হবে। মাঝ রাতে উঠে তিনি ঝাড়ফুঁক করবেন। তার ফাঁদে পা দিয়ে ওই দম্পতি মেয়েকে শেখরের ঘরে পাঠিয়ে দেন। পরপর দু রাত এই ঘটনা ঘটে। তৃতীয় রাতে তারা যখন মেয়েকে আবার পাঠাতে যাবেন, তখন মেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়ে। সে জানায়, শেখর তাকে দু রাত ধরে ধর্ষণ করেছে।

যে প্রতিবেশী তাদের সাথে শেখরের পরিচয় করিয়ে দিয়েছিল, বৃহস্পতিবার সকালে তার কাছে যান মেয়েটির মা ও বাবা। সব কথা বলার পর তারা শেখরের খোঁজ করতে গিয়ে দেখেন, ততক্ষণে তিনি স্ত্রীকে নিয়ে চম্পট দিয়েছেন।

এই ঘটনার পর এলাকার লোকেরা ওই প্রতিবেশীকে মারধর করেন। তাদের দাবি, ওই সাধু বাংলাদেশ থেকে এসে আবার বাংলাদেশে পালিয়ে গিয়েছে।

ইতোমধ্যে ঘটনার অভিযোগ জানানো হয়েছে মহেশতলা থানায়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই প্রতিবেশীকে আটক করেছে পুলিশ। অভিযুক্তের খোঁজে চলছে তল্লাশি।

সূত্র : এই সময়


আরো সংবাদ

সীমান্তে মাইন, মুংডুতে ৩৪ ট্যাংক (৯৭২২)কেন বন্ধু প্রতিবেশীরা ভারতকে ছেড়ে যাচ্ছে? (৭৫৯৮)সৌদি রাজতন্ত্রকে চ্যালেঞ্জ করে সৌদি আরবে বিরোধী দল গঠন (৭১১২)৫৪,০০০ রোহিঙ্গাকে পাসপোর্ট দিতে সৌদি চাপ : কী করবে বাংলাদেশ (৪৮৪৪)কাশ্মিরিরা নিজেদের ভারতীয় বলে মনে করে না : ফারুক আবদুল্লাহ (৪২২০)শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া ১৫ দিন পর এইচএসসি পরীক্ষা (৩৭৩৭)দেশের জন্য আমি জীবন উৎসর্গ করলেও আমার বাবার আরো দুটি ছেলে থাকবে : ভিপি নূর (৩৪৭৬)বিরাট-অনুস্কাকে নিয়ে কুৎসিত মন্তব্য গাভাস্কারের, ভারত জুড়ে তোলপাড় (৩৩৭২)আ’লীগ দলীয় প্রার্থী যোগ দিলেন স্বতন্ত্র এমপির সাথে (৩৩৩১)কক্সবাজারের প্রায় ১৪০০ পুলিশ সদস্যকে একযোগে বদলি (৩২৫৫)