৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহর দিল্লি

-

বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহরের তালিকায় এক নম্বর দখল করে আছে ভারতের রাজধানী দিল্লি। পাঁচ নম্বরে কলকাতা আর নয়ে মুম্বাই। দূষিত শহরের তালিকার প্রথম দশের তিনটি শহরই ভারতের। দেশটির বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা স্কাইমেটের সমীক্ষায় এই তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত নয় দিন ধরে দিল্লিতে বাতাসের গুণমান ক্ষতিকারক পর্যায়ে, যা আগে কখনও দেখা যায়নি।

সংস্থার প্রতিবেদন বলছে, গত কয়েকদিন দিল্লিতে বাতাসের গুণমান সূচক ৫২৭। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে লাহোর। কলকাতায় বাতাসের গুণমান সূচক ১৬১। রয়েছে পাঁচ নম্বরে। আর তালিকায় নয় নম্বরে থাকা মুম্বাইয়ে ১৫৩। অর্থাৎ দিল্লি বাদে বাকি দুই শহরেও দূষণের মাত্রা উদ্বেগজনক।

এদিকে গত সপ্তাহে বৃষ্টির কারণে কলকাতায় কিছুটা দূষণ কমলেও, বৃষ্টি কমতেই ফের দূষণের চাদরে ঢাকতে শুরু করেছে। দূষণের পরিমাণ সবচেয়ে বেশি হাওড়ার ঘুসুড়ি।

দূষণ নিয়ন্ত্রণ পরিষদের এক বিশেষজ্ঞ বলেন, ‘'দূষণের নিরিখে পুরো পৃথিবীর মধ্যে পঞ্চম স্থানে রয়েছে কলকাতা। এতেই বোঝা যায়, বিপদ এখানেও রয়েছে। তাই সবাইকে এখনই সতর্ক হতে হবে।'‌

দূষণের তালিকায় পাকিস্তানের লাহোর আছে দ্বিতীয় স্থানে। বাতাসের গুণমান সূচক ২৩৪। তার মানে লাহোরের চেয়ে দিল্লি দ্বিগুণ দূষিত। এই তালিকার চতুর্থ স্থানে আছে পাকিস্তানের রাজধানী করাচি, বাতাসের গুণমান সূচক ১৮০। তৃতীয় স্থানে আছে উজবেকিস্তানের তাসকেন্ত, বাতাসের গুণমান সূচক ১৮৫।

ষষ্ঠ স্থানে আছে চীনের চেংডু। বাতাসের গুণমান সূচক ১৫৮। ভিয়েতনামের হ্যাননেরও ১৫৮। অষ্টম স্থানে চীনের আরেকটি শহর গানঝু, বাতাসের গুণমান সূচক ১৫৭।

দশে আছে নেপালের কাঠমাণ্ডু। বাতাসের গুণমান সূচক ১৫২।

সূত্র : স্কাইমেট ওয়েদার ডট কম


আরো সংবাদ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ের (১২৯৪২)ড. কামাল ও আসিফ নজরুল ঢাবি এলাকায় অবা‌ঞ্ছিত : সন‌জিত (১১৭২৬)‘সনজিতকে ক্যাম্পাসে দেখতে চায় না ঢাবি শিক্ষার্থীরা’ (১০৩২০)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : সাইফুরের যত অপকর্ম (৯০২০)আজারবাইজান ৬টি গ্রাম আর্মেনিয়ার দখল মুক্ত করেছে (৮৩৪১)নতুন বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র সামনে আনলো ইরান (৫৭১১)যে কারণে এই শীতেই ভারত-চীন মারাত্মক যুদ্ধের আশঙ্কা রয়েছে (৫৬৫০)অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের জানাজা অনুষ্ঠিত (৫২২৯)আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার মধ্যে সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৯ (৫১৬৭)ছাত্রলীগের ঢাবি সভাপতি বক্তব্য স্পষ্টত সন্ত্রাসবাদের বহিঃপ্রকাশ (৫১৫০)