২৭ মে ২০২০

কাশ্মিরের মানুষের অধিকার পুরোপুরি লঙ্ঘন করছে ভারত : মমতা

কাশ্মিরের মানুষের অধিকার সম্পূর্ণ লঙ্ঘন করছে ভারত- এমন মন্তব্য করেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিশ্ব মানবিকতা দিবস উপলক্ষে সোমবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটার বার্তায় তিনি ওই মন্তব্য করেন। মমতা বলেন,‘আজ বিশ্ব মানবিকতা দিবস। কাশ্মিরের মানুষদের অধিকার পুরোপুরিভাবে লঙ্ঘিত হচ্ছে। আমরা সবাই কাশ্মিরের মানবাধিকার ও শান্তির জন্য প্রার্থনা করি।’

মানবাধিকারের প্রশ্নে তিনি কোনোদিনই আপোশ করেননি, এমন বার্তা দিতে চেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘মানবাধিকার রক্ষা আমার হৃদয়ের অত্যন্ত কাছের বিষয়। ১৯৯৫ সালে মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং লক-আপে মৃত্যুর প্রতিবাদে আমি ২১ দিন রাস্তায় নেমে আন্দোলন করেছি।’

'মমতা কী কাশ্মিরকে পুরোপুরি ভারতের অঙ্গ হিসেবে দেখতে চান না?'

এদিকে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের টুইট বার্তার তীব্র নিন্দা করেছে হিন্দুত্ববাদী বিজেপি। দলের রাজ্যসভা এমপি স্বপন দাশগুপ্ত গণমাধ্যমকে বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঠিক কী বলতে চাচ্ছেন, সেটা একটু স্পষ্ট করে বললে ভালো হয়। উনি কী কাশ্মিরকে পুরোপুরি ভারতের অঙ্গ হিসেবে দেখতে চান না? যদি না চান, তা হলে স্পষ্ট করে বলে দিন। সবারই বুঝতে সুবিধা হবে যে, তিনি ঠিক কী চাচ্ছেন।’

রাজ্য বিজেপি নেতাদের মতে, কেবলমাত্র ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতির কথা মাথায় রেখে মমতা এ ধরনের মন্তব্য করছেন।

'মমতা সঠিক বক্তব্য তুলে ধরেছেন'

এ প্রসঙ্গে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ‘উদার আকাশ’ পত্রিকার সম্পাদক ফারুক আহমেদ সোমবার বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইটারে সঠিক বক্তব্য তুলে ধরেছেন। আমরা মুখ্যমন্ত্রীকে এজন্য অভিনন্দন জানাই। কাশ্মিরে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে সেই বিষয়ে তিনি জোরালো বক্তব্য তুলে ধরেছেন। পশ্চিমবঙ্গের মানুষ হিসেবে আমরা চাই কাশ্মিরবাসী শান্তিতে বাস করুক। কাশ্মিরে শান্তি ফিরুক। কাশ্মিরে মানবাধিকার রক্ষার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার সঠিক পদক্ষেপ নিক।

তিনি আরো বলেন, নরেন্দ্র মোদি সরকার মুখে নয়, কাজে করে দেখাক। কাশ্মিরের মানুষের নিরাপত্তা, সেখানকার মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপন যাতে বজায় থাকে, সঠিকভাবে তারা যাতে জীবনযাপন করতে পারে সেজন্য ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আমাদের অনুরোধ এ ব্যাপারে সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে এগিয়ে আসুক। সূত্র : পার্সটুডে।


আরো সংবাদ