২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

ভয়ঙ্কর রূপ নিতে যাচ্ছে আসাম সঙ্কট

ভয়ঙ্কর রূপ নিতে যাচ্ছে আসাম সঙ্কট - ছবি : সংগৃহীত

উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্য আসামের তিন কোটি ২৯ লক্ষ বাসিন্দার মধ্যে প্রায় দুই কোটি ৮৯ লক্ষের নাম উঠে গেছে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসিতে৷ বাকি প্রায় ৪০ লক্ষ মানুষ নাগরিকত্বের বৈধ প্রমাণপত্র দেখিয়ে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করার শেষ সুযোগ পাবেন ৩১ আগস্ট পর্যন্ত৷ ভারতের সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে সময়সীমা সম্প্রসারিত হয়ে এই তারিখটিই চূড়ান্ত হয়েছে৷ এর পরেও যারা আসামের ও ভারতের অবৈধ বাসিন্দা হয়ে থেকে যাবেন, তাদের ভবিষ্যৎ কী হবে? কেন্দ্রে এবং রাজ্যে ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টি প্রথমে বলেছিল, এদের দেশ থেকে বহিষ্কার করা হবে৷ কিন্তু কোথায়?‌ ভারত সরকারের অভিযোগ ছিল, এই অবৈধ অভিবাসীরা সবাই প্রতিবেশী বাংলাদেশ থেকে এসেছে৷ কিন্তু বাংলাদেশ সরকার জানিয়ে দিয়েছে, আসামে তাদের কোনো নাগরিক নেই৷ ভারতে অবাঞ্ছিত এই লোকেদের বাংলাদেশে আশ্রয় দেয়ারও প্রশ্ন ওঠে না৷

ফলে নাগরিকপঞ্জিতে শেষ পর্যন্ত যাদের নাম উঠবে না, তাদের আপাতত আটক রাখা হবে সরকারি ডিটেনশন ক্যাম্পে৷ আসামের বিভিন্ন জেলায় যে জেলখানা আছে, এতদিন সেগুলোই এই অ-নাগরিকদের বন্দিশিবির হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে৷ পাশাপাশি বিরাট বিরাট এলাকাজুড়ে তৈরি হয়েছে ডিটেনশন ক্যাম্প৷ যতদিন না এদের প্রকৃত নাগরিকত্ব নির্ধারিত হচ্ছে, এখানেই গরু-ছাগলের মতো খোঁয়াড়ে আটক রাখা হবে এদের৷ ক্ষোভে, হতাশায় এই মানুষদের মধ্যে আত্মঘাতী হওয়ার প্রবণতা বাড়ছে৷ মরিয়া অনেকে তা-ও শেষ চেষ্টা করতে চান৷ কিন্তু সেও নেহাত সহজসাধ্য নয়৷ নামনি আসামের বাসিন্দাদের এক দিনের নোটিসে হাজিরা দিতে বলা হচ্ছে ৪০০ কিমি দূরে উজান আসামের কোনো এনআরসি সেবাকেন্দ্রে৷ খেটে খাওয়া গরিব মানুষের পক্ষে সেখানে পৌঁছনোও খরচসাধ্য ব্যাপার৷ তা-ও ওরা যাচ্ছেন৷ কাগজপত্র জমা দিয়ে প্রমাণ করতে চাইছেন যে, ওরা আসলেই এই দেশ এবং রাজ্যের বাসিন্দা৷

কিন্তু অধিকাংশ ক্ষেত্রেই নাকচ হয়ে যাচ্ছে সেসব প্রমাণপত্র৷ আইন-কানুন, নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করেই বাতিল হয়ে যাচ্ছে পুনর্বিবেচনার আবেদন৷ ডয়চে ভেলেকে বললেন গুয়াহাটি হাইকোর্টের সিনিয়র অ্যাডভোকেট হাফিজ চৌধুরি, যিনি এই এনআরসি তালিকা থেকে বাদ পড়া আসামবাসীর আইনি অধিকার নিয়ে লড়ে যাচ্ছেন৷ বাদ পড়ার পর, যিনি নিজেকে ভারতের নাগরিক বলেই দাবি করছেন, তিনি প্রথমে ট্রাইবুনাল, তারপর হাইকোর্ট এবং সামর্থ থাকলে সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত যেতে পারেন৷ সেই আইনি রাস্তা খোলা আছে৷ কিন্তু যদি সমস্ত সুযোগ পাওয়ার পরও না প্রমাণ করা যায়, তখন কী হবে?
অ্যাডভোকেট‌ হাফিজ চৌধুরি উদ্বিগ্ন সেই আশঙ্কা নিয়েই৷ কারণ, এই মানুষগুলো আসলেই কয়েক পুরুষ ধরে আসামের বাসিন্দা৷ জন্ম-কর্ম সব এখানেই৷ অন্য কোথাও এদের বাড়িঘর নেই৷ তাড়িয়ে দিলে কোথায় যাবেন এরা!‌ এটা আদতে এক মানবিক সমস্যা, যা শিগগিরই এক ভয়ঙ্কর চেহারা নিতে চলেছে বলে তার আশঙ্কা৷

১৯৮০-র দশকে আসামের আঞ্চলিক দলগুলোর সশস্ত্র আন্দোলনের শর্তই ছিল রাজ্য থেকে মূলত অভিবাসী বাঙালি এবং অসমীয়া নয়, এমন সমস্ত সম্প্রদায়ের মানুষকে তাড়াতে হবে৷ সেই ‘‌বাঙালি খেদা'‌ আন্দোলনের শেষ হয়েছিল তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর সঙ্গে আসাম গণ পরিষদের চুক্তিতে৷ কিন্তু মূল দাবির হেরফের হয়নি৷ বরং ওই চুক্তির আবশ্যিক শর্তই ছিল অ-আসামীয়দের চিহ্নিতকরণ এবং বহিষ্কার৷ যতদিন কেন্দ্রে কংগ্রেস ক্ষমতায় ছিল, সেই প্রক্রিয়া খাতায়-কলমে চালু থাকলেও চলেছে ঢিমেতালে৷ কিন্তু প্রথমে কেন্দ্রে এবং তারপর আসামেও বিজেপি ক্ষমতা দখল করার পর সে-কাজে দ্রুতি আসে৷ ৩০ জুলাই ২০১৮-তে প্রকাশিত, আসামের জাতীয় নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত খসড়ায় বাদ পড়ে প্রায় ৪০ লক্ষ নাম, যে নাম ভোটার তালিকায় আছে৷ কিন্তু নাগরিকত্বের প্রমাণপত্র দাখিল করতে না পারায় এখন ‘‌ডাউটফুল ভোটার'‌‌৷ এদেরই ভবিষ্যৎ নির্ধারিত হবে ৩১ আগস্টের পর৷
সূত্র : ডয়চে ভেলে

 


আরো সংবাদ

এমসি কলেজের ঘটনায় সরকারের অবস্থান কঠোর : ওবায়দুল কাদের প্রতিবেশি দেশগুলোর সঙ্গে আরো ভালো সহযোগিতার ওপর প্রধানমন্ত্রীর গুরুত্বারোপ মহিষের হাত থেকে প্রাণে বাঁচলো সিংহ, অবিশ্বাস্য ভিডিও সৌদি অভিবাসী শ্রমিকেরা যেভাবে ভিসার মেয়াদ বাড়াতে পারবেন মার্কিন-ইসরাইলি ষড়যন্ত্র রুখতেই সমঝোতায় হামাস-ফাতাহ আত্রাইয়ে নারীর চেহারা বিকৃত ভাসমান লাশ উদ্ধার আলফাডাঙ্গায় বজ্রপাতে প্রাণহানিরোধে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ কুলিয়ারচরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক কিশোর খুন সিরিয়ায় যেসব ভয়ঙ্কর গুপ্ত ড্রোন-ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করছে মার্কিন সেনারা দাড়ি কেটে ছদ্মবেশে ভারতে পালাতে চেয়েছিল ছাত্রলীগ নেতা ধর্ষক সাইফুর চতুর্থ দিনের মতো টিকিট বিক্রি করছে সৌদিয়া এয়ারলাইন্স

সকল

যে কারণে এই মুহূর্তেই এ সরকারের পতন চান না নুর (১১৯২৮)ক্রিকেট ছেড়ে সাকিব এখন পাইকারি আড়তদার! (১০৯৪৩)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : আ’লীগ নেতারা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন! (৯৭৪১)নর্দমা পরিষ্কার করতে গিয়ে ধরা পড়ল দৈত্যাকার ইঁদুর! (ভিডিও) (৯৫৪৯)নতুন বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র সামনে আনলো ইরান (৮২৭১)সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণ ছাত্রলীগ কর্মীদের (৭৮২৪)এমসি কলেজে ‘গণধর্ষণ’ : ছাত্রদের ছাত্রাবাস ছাড়ার নির্দেশ (৬৮৩৭)সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণ ছাত্রলীগ কর্মীদের (৬৪২৮)পাবনা উপ-নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন (৫৮২৬)ডোপ টেস্টে পজেটিভ ২৬ পুলিশকে চাকরিচ্যুত করা হবে : ডিএমপি কমিশনার (৪৮৯৯)