০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯, ৫ রবিউল আওয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

ব্যালন ডি অর তালিকায় নেই মেসি

ব্যালন ডি অর তালিকায় নেই মেসি -

লিওনেল মেসিকে ছাড়া ব্যালন ডি’অর তালিকায় ২০০৫ সালের পর এবার দেখল ফুটবল বিশ্ব। সবচেয়ে মর্যাদার এই পুরস্কারটির জন্য প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ৩০ জনের তালিকা প্রকাশ করেছে ফরাসি সাময়িকী ফ্রান্স ফুটবল। তালিকায় নেই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি। কেন নেই মেসি, ব্যাখ্যা দিয়েছে ফ্রান্স ফুটবল। শুধু যে মেসি নেই তা নয়, তার পিএসজি সতীর্থ ব্রাজিলীয় স্ট্রাইকার নেইমারও এই তালিকায় স্থান পাননি।
২০০৫ সালের পর মেসি এবং ১৯৯৪ সালের পর কোনো আর্জেন্টাইনকে ছাড়া করা হলো ব্যালন ডি অরের সংপ্তি তালিকা। গত ২৭ বছরে প্রতিবারই সংপ্তি তালিকায় ছিলেন আর্জেন্টিনার কমপক্ষে একজন ফুটবলার। আর ২০০৫ থেকে প্রতিবারই ছিলেন লিওনেল মেসি।
২০২১ সালের ব্যালন ডি অর জিতে সব মিলিয়ে সাতটি ব্যালন ডি অর নিয়ে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে মেসি। সেবার তিনি ছাড়াও সংপ্তি তালিকায় ছিলেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড লাউতারো মার্টিনেজ। কিন্তু এবার মেসি-মার্টিনেজ বা আর্জেন্টিনার কেউই এ তালিকায় জায়গা পাননি।
এর মধ্যে ২০০০ সালে আর্জেন্টিনা থেকে সর্বোচ্চ ছয়জন ছিলেন ব্যালন ডি অরের সংপ্তি তালিকায়। মেসি ছিলেন সর্বোচ্চ ১৫ বার। এ ছাড়া সার্জিও আগুয়েরো ও গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতা সংপ্তি তালিকায় জায়গা পেয়েছেন সাতবার করে। সাবেক অধিনায়ক হার্নান ক্রেসপো ও তারকা ডিফেন্ডার সেবাস্টিয়ান ভেরন ছিলেন চারবার করে।
মেসি যে ১৫ বার ব্যালন ডি অরের সংপ্তি তালিকায় জায়গা পেয়েছেন, তার মধ্যে সাতবারই জিতেছেন তিনি। এ ছাড়া সব মিলিয়ে ১৩ বার ছিলেন সেরা তিনে। শুধু ২০০৬ ও ২০১৮ সালে সেরা তিনে জায়গা হয়নি মেসির। আর এবার তিনি নেই সেরা ত্রিশের তালিকায়।
তালিকায় মেসির না থাকা ফুটবল বিশ্বের কাছে বিস্ময়ের। এর মধ্যে ফ্রান্স ফুটবল ব্যাখ্যা দিয়েছে মেসির না থাকার বিষয়টির। ব্যালন ডি’অরে নতুন যে মানদণ্ড ঠিক করা হয়েছে, তা মেসির পে ছিল না। একজন খেলোয়াড়ের অতীত সাফল্য বা তার পুরো ক্যারিয়ার বিবেচনার বিষয়টি ব্যালন ডি’অর থেকে উঠে গেছে। এখন নতুন মডেলে একটি বছরও নয়, বিবেচনা করা হয় একটা মৌসুম। যে কারণে ২০২১ সালের জুলাইয়ে জেতা কোপা আমেরিকাও বিবেচনায় ছিল না।
এক মৌসুমের যে বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে, সেখানে ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে খুব একটা ভালো অবস্থানে ছিলেন না মেসি। পিএসজির হয়ে লিগ শিরোপা জিতলেও তার ফর্ম সেরার ধারের কাছেও ছিল না।
মেসির নাম না থাকলেও তালিকায় স্থান পেয়েছেন ফুটবল মাঠে তার চির প্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।
ব্যালন ডি’অরের লড়াইয়ে প্রত্যাশিতভাবে আছেন করিম বেনজেমা ও রবার্ট লেভানোদস্কি। বর্ষসেরা ফুটবলারের লড়াইয়ে তাদের পাশাপাশি আছেন বিশ্ব ফুটবলের সেরা তরুণ প্রতিভাবানদের একজন আর্লিং হলান্ড।
এবার ব্যালন ডি’অর জয়ে ফেভারিটদের তালিকায় রয়েছেন করিম বেনজেমা। গত পরশু প্রকাশিত উয়েফার বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের লড়াইয়ে শীর্ষ তিনজনের তালিকায়ও আছেন তিনি।
করোনাভাইরাসের কারণে ২০২০ সালে দেয়া হয়নি ব্যালন ডি’অর পুরস্কার। এক বছর বিরতির পর আবার দেয়া হবে ফুটবলারদের সর্বোচ্চ মর্যাদার ব্যক্তিগত পুরস্কারটি।


আরো সংবাদ


premium cement
মিঠাপুকুরে দ্বিতল বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে সাইকেল আরোহী নিহত চুয়াডাঙ্গায় বৃদ্ধকে শ্বাসরোধে ও কুপিয়ে হত্যা কুবিতে ছাত্রলীগের মহড়ায় সিলগালা হল, স্থগিত পরীক্ষা সাতক্ষীরায় পুলিশের অভিযানে চুরি হওয়া স্বর্ণালংকার উদ্ধার, গ্রেফতার ১ দাম কমলো এলপিজির মানবতাবিরোধী সরকারের বিরুদ্ধে গণ-আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে : সেলিম উদ্দিন দামুড়হুদায় শতবর্ষী বৃদ্ধকে শ্বাসরোধ করে ও কুপিয়ে হত্যা ইইউ রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে জিএম কাদেরের সাক্ষাৎ সংখ্যালঘুদের ওপর হামলাকারীরা কোনো দলের নয়, তারা দুর্বৃত্ত : কাদের দীপ্তির পাশে দাঁড়ালেন জ্যোতি বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাস সরানোর দাবিতে মানারাতে মানববন্ধন

সকল