১৯ জানুয়ারি ২০২২
`

ক্লাবে কাজের সুযোগ বেশি : ক্রুসিয়ানি

-

বাংলাদেশের ফুটবলে বড় তেমন কোনো অর্জন নেই তার। এর পরও সাফ ফুটবল এলেই আলোচনায় আসে দিয়েগো আন্দ্রেস ক্রুসিয়ানির নাম। তার অধীনেই যে সর্বশেষ ২০০৫ সালের সাফ ফুটবলে ফাইনালে খেলেছিল লাল-সবুজরা। এরপর ২০০৬ এর কলম্বো এসএ গেমস ফুটবলে ব্যর্থ তার দল। ২০০৭ সালে ঢাকা আবাহনীর কোচ হিসেবেও পারেননি কোনো ট্রফি দিতে। উল্টো মাঝপথেই বিদায়। এবার সাইফ স্পোর্টিংয়ের হেড কোচ এই আর্জেন্টাইন। চলমান ফেডারেশন কাপে টানা দুই ম্যাচ জিতেছে ক্রুসিয়ানির সাইফ। তার মতে, এখন বাংলাদেশের ঘরোয়া ফুটবলে ভালো মানের বিদেশী আসছে। সাথে বেশ কিছু উঠতি ফুটবলারও আছে স্থানীয়। তবে নিজে আর বাংলাদেশ দলের হেড কোচ চান না।
কাল কমলাপুর স্টেডিয়ামে ম্যাচ শেষে ক্রুসিয়ানি জানান, ‘আমার আপাতত কোনো ইচ্ছা নেই বাংলাদেশ দলের কোচ হতে আগ্রহ দেখানোর। তা ছাড়া আমি এ মুহূর্তে সাইফ স্পোর্টিংয়ের কোচ। এ ক্লাবেই আমার পূর্ণ মনোযোগ।’ তার মতে, আমি ক্লাব ফুটবলেই কাজ করতে চাই। ক্লাবে কাজের সুযোগ বেশি। জাতীয় দলে কাজের তেমন সুযোগটা কোথায়। আগের চেয়ে বাংলাদেশের ঘরোয়া ফুটবলের মান বেড়েছে বলে জানান তিনি। সাথে উল্লেখ করলেন, অবশ্যই একটি দেশের ফুটবল উন্নয়নে স্থানীয় লিগে বিদেশী ফুটবলারের উপস্থিতি জরুরি। উদাহরণ টেনে এই ক্রুসিয়ানি বলেন, দেখুন আর্জেন্টিনা যখন বাস্কেটবলে স্বর্ণ জয় করল, সেই সাফল্যের নেপথ্যে ছিল মার্কিন বাস্কেটবল খেলোয়াড়রা। তারা আর্জেন্টিনার লিগে খেলার ফলে বিশাল উপকার হয়েছিল। আমাদের স্থানীয় খেলোয়াড়দের সাহায্য করেছিল তারা। এরই সূত্র ধরে আর্জেন্টিনার স্বর্ণ জয়।
গত ১৬ বছরে বাংলাদেশ দল সাফ ফুটবলের ফাইনালে খেলতে পারছে না। কিন্তু কেন, ক্রুসিয়ানির জবাব, আমার পরিষ্কার ধারণা নেই। তবে সম্ভবত পরিকল্পনায় ঘাটতি আছে। এমনও হতে পারে কিছু মানসম্পন্ন ফুটবলার চলে যাওয়ার পর তাদের বিকল্প আর নতুন কোনো প্রতিভা উঠে আসেনি। তবে আমার সময় ফুটবল প্রতিভার অভাব ছিল না; বরং তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল।
নিজ দল সাইফ স্পোর্টিং টানা দুই ম্যাচে জিতলেও দুই ম্যাচেই তাদের জালে বল গেছে। কাল তো ৩ গোলে এগিয়েও শেষ পর্যন্ত ম্যাচ জেতে ৩-২ গোলে। কোচ ক্রুসিয়ানির মতে, ডিফেন্সে সমস্যা হচ্ছে। লাইনটা ভেঙে যাচ্ছে। এ নিয়ে কাজ করতে হবে। সাথে আমাদের আরো গোল করা উচিত ছিল।
১৪ বছর পর বাংলাদেশে ফিরে আসা। ক্রুসিয়ানি কি ভেবেছিলেন ফের আসবেন এ দেশে। তার মতে, ‘আমি আশা করিনি ফিরে আসবো। তেমন একটা খবর রাখা হতো না বাংলাদেশের ফুটবল সম্পর্কে।’ মাঝে তিন বছর অসুস্থতার জন্য ফুটবলের বাইরে ছিলেন তিনি। তবে এখন আর্জেন্টিনায় নিজে একটি ফুটবল অ্যাকাডেমি গড়েছেন। পুরো দস্তুর বোকা জুনিয়ার্সের সমর্থক তিনি।


আরো সংবাদ


premium cement