২৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৯ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`

মেসির সপ্তম ব্যালন ডি’অর

ব্যালন ডি’অর ট্রফি হাতে লিওনেল মেসি : এএফপি -

নিজেই নিজের রেকর্ড ভেঙে গড়লেন নতুন রেকর্ড। নতুন উচ্চতায় ওঠে গেলেন আর্জেন্টাইন ফুটবলের জাদুকর লিওনেল মেসি। ছয়টি ব্যালন ডি’অর নিয়ে আগেই সবার ওপরে ছিলেন তিনি। গত সোমবার রাতে সপ্তমবারের মতো এ পুরস্কার জিতে অন্যদের ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গেলেন সর্বকালের অন্যতম সেরা এ ফুটবলার। প্যারিসে জমকালো এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মেসির হাতে তুলে দেয়া হয়েছে সপ্তম ব্যালন ডি’অর শিরোপা।
এর আগে ২০০৯, ২০১০, ২০১১, ২০১২, ২০১৫ ও ২০১৯ সালে মোট ছয়বার ব্যালন ডি’অর পুরস্কার জিতেন মেসি। এবার সেই সংখ্যা বেড়ে সাতটি। পাঁচবার ব্যালন জিতে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। এ দিকে চলতি বছর অষ্টমবারের মতো স্প্যানিশ দৈনিক মার্কার পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসি পান পিচিচি পুরস্কার। গত সোমবারই মেসির হাতে ওঠে পিচিচি শিরোপা।
সাংবাদিক ও বিশেষজ্ঞদের ভোটে সর্বোচ্চ ৬১৩ পয়েন্ট পেয়ে ২০২১ সালের সেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছেন মেসি। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পোলিশ ফুটবলার লেভানাদস্কি পেয়েছেন ৫৮০ পয়েন্ট। এ ছাড়া জর্জিনহো ৪৬০, করিম বেনজামা ২৩৯, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ১৮৬, কাইলিয়ন এমবাপ্পে ৫৮ পয়েন্ট পেয়েছেন।
ব্যক্তিগত পুরস্কার জিতে স্বাধারণত উচ্ছ্বাস করতে দেখা যায় না মেসিকে। তবে সপ্তম ব্যালন জেতার পর নিজের আনন্দ লুকিয়ে রাখতে পারছেন না প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি) ক্লাবের বতর্মান এ সুপারস্টার তারকা ফুটবলার। তাই তো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দিয়েছেন এক বিশদ বার্তা। স্বল্পভাষী মেসি ধন্যবাদ জানিয়েছেন তার পাশে থাকা সবাইকে। বলেছেন নিজের অনুভূতির কথাও। টুইট বার্তায় লিওনেল মেসি লিখেছেন, ‘আরেকটি ব্যালন ডি’অর জেতার আনন্দ লুকিয়ে রাখতে পারছি না। আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আমি এটি উৎসর্গ করছি আমার সব সতীর্থ ও আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের কর্মীদের। আর্জেন্টিনা, বার্সেলোনা ও পিএসজিতে দারুণ একটি বছর কাটিয়েছি আমরা।’ এ ছাড়া তারকা খেলোয়াড়দের মধ্যে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ষষ্ঠ, মোহামেদ সালাহ সপ্তম, কাইলিয়ান এমবাপ্পে নবম ও ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার ১৬তম স্থান পান।
করোনাভাইরাসের কারণে বাতিল করা হয়েছিল ২০২০ সালের ব্যালন ডি’অর পুরস্কার। সেই বছর ব্যালন পাওয়ার সবচেয়ে যোগ্য দাবিদার ছিলেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্ট লেভানাদস্কি। ২০২০ বাদ দিয়ে ২০২১ সালের ব্যালন ডি’অর পুরস্কার নেয়ার পর মেসি বলেছেন, ২০২০ সালের ব্যালনটি লেভানাদস্কিকে দিয়ে দেয়া উচিত। অবশ্য ব্যালন না পেলেও প্রথমবারের মতো প্রবর্তিত সেরা স্ট্রাইকারের পুরস্কার ওঠে পোলিশ ফুটবলারের হাতে।
চলতি বছর মেয়েদের মধ্যে ব্যালন ডি’অর জিতেছেন বার্সেলোনা মেয়ে দলের অধিনায়ক আলেক্সিয়া পুটেলাস।


আরো সংবাদ


premium cement