২৮ জুলাই ২০২১
`

সাকিবের পাশে মোহামেডান

-

গত পরশু ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আবাহনীর সাথে ম্যাচে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে স্ট্যাম্পে লাথি মারেন সাকিব আল হাসান। এরপর আম্পায়ারের সাথে তর্কে জড়ান এবং স্ট্যাম্প তুলে আছাড় মারেন এই মোহামেডান অধিনায়ক। এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারের। তার এই আচরণকে মেনেও নিতে পারেননি মোহামেডান সংশ্লিষ্টরা। এরপরও তারা সাকিব আল হাসানের পক্ষে। তারা বরং দুষছেন আম্পায়ারকে। গতকাল মোহামেডান কর্মকর্তা আবু হাসান চৌধুরী প্রিন্স- টিটুদের উপস্থিতিতে ক্লাব প্রাঙ্গণে ব্যানার নিয়ে এ নিয়ে প্রতিবাদ করেছে মোহামেডান সমর্থকরা। আমরা মোহামেডান, মোহামেডান ফ্যান ক্লাব এবং মোহা পাগল ব্যানারে সাদা-কালো সমর্থকদের সাকিবের পাশে থাকার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা।
ক্রিকেট লিগে পক্ষপাতিত্ব আম্পায়ারিং এবং ফুটবলের বাকি ম্যাচগুলোতে নিরপেক্ষ রেফারিংয়ের দাবিতে এই প্রতিবাদ মোহামেডান সমর্থকদের। মোহামেডান সমর্থক দলের সাধারণ সম্পাদক রফিক উদ্দিন জানান, ‘আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সাকিব যে আচরণ করেছে তা দুঃখজনক। এমনটি করা ঠিক হয়নি। তবে এটাও ভাবতে হবে, মাঠে টেম্পারমেন্ট ঠিক রাখার মতোও ব্যাপার আছে। প্রতি বছর আবাহনী এবং মোহামেডান ম্যাচ হলে লিটু থাকে আম্পায়ার। আর তার সিদ্ধান্ত যায় মোহামেডানের বিপক্ষে। তার মতে, সাকিব যে কাজ করেছে এটা হলো অন্যায়ের বিপক্ষে বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। সে সঠিক কাজই করেছে। আমরা শুনেছি সাকিবকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আমরা এই শাস্তি প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি। সেই সাথে দায়ী আম্পায়ারের শাস্তি দাবি করছি।’ তার যুক্তিÑ আমরা টিভি রিপ্লেতে দেখেছি সাকিবের বলে পরিষ্কার এলবিডব্লিউ ছিলেন মুশফিক। তিনি যোগ করেন, আমাদের দাবি আম্পায়াররা যে ম্যাচ ফিক্সিং করে এই সঠিক তদন্ত হোক।
আরেক সমর্থক রফিকের দেয়া তথ্য, আবাহনীর গত সাত ম্যাচে ২৫ উইকেটের পতন হয়েছে কিন্তু তাদের একটি উইকেটও এলবিডব্লিউ দেয়া হয়নি।



আরো সংবাদ