২৮ জুলাই ২০২১
`

পর্দা উঠছে কোপা আমেরিকার

-

নানান কাঠখড় পুড়িয়ে নির্দিষ্ট সময়ে পর্দা উঠতে যাচ্ছে লাতিন আমেরিকার সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্ট ‘কোপা আমেরিকার’। ১০৫ বছরের ইতিহাসে প্রথম যৌথ আয়োজনে আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়ায় হওয়ার কথা ছিল এবারের টুর্নামেন্ট; কিন্তু কলম্বিয়ায় রাজনৈতিক অস্থিরতা, আর্জেন্টিনায় করোনা মহামারীর কারণে আয়োজক স্বত্ব বাতিল করেছিল কনমেবল। এরপর গতবারের আয়োজক ব্রাজিলকে এবারো হোস্ট হিসেবে র্নিধারণ করে দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল নিয়ন্তা সংস্থাটি। এখানেই শেষ নয়। করোনার মাঝে ব্রাজিলে টুর্নামেন্ট আয়োজন নিয়ে মামলা-মোকাদ্দমা, আদালত পর্যন্তও গড়িয়েছে।
এমন পরিস্থিতির মধ্যেই আজ রাতে ব্রাজিল-ভেনিজুয়েলার ম্যাচ দিয়ে গড়াতে যাচ্ছে কোপা আমেরিকার মাঠের লড়াই। এস্তাদিও ন্যাসিয়োনাল ডি ব্রাসিলিয়াতে গ্রুপ ‘এ’-এর ম্যাচটি রাত ৩টায় শুরু হবে। সোমবার ভোর ৬টায় অ্যারেনা প্যান্টানালে গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে কলম্বিয়া ও ইকুয়েডর।
বিশ্বের প্রাচীনতম আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টটি এবার ব্রাজিলের চারটি শহরের পাঁচটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। এ ও বি দু’টি গ্রুপে পাঁচটি করে থাকছে ১০ দলের অংশগ্রহণ। তবে কোনো দর্শক প্রবেশ করতে পারবে না স্টেডিয়ামে। আগের সিদ্ধান্ত মোতাবেক এশিয়ার দুই অতিথি দল অস্ট্রেলিয়া ও কাতারসহ উপমহাদেশের ১২টি দল নিয়েই টুর্নামেন্টটি আয়োজনের কথা ছিল; কিন্তু ফেব্রুয়ারিতে নতুন সূচি নির্ধারণের কারণে নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেয় অতিথি দল দু’টি।
প্রতিটি গ্রুপের শীর্ষ চারটি দল কোয়ার্টার ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। নকআউট পদ্ধতির ম্যাচগুলো থেকেই পর্যায়ক্রমে সেমিফাইনাল ও ফাইনালে উন্নীত হবে দলগুলো।
প্রতিভার কমতি নেই লাতিন আমেরিকার ফুটবলে। এ আসরে পুরনোদের কেউ ছড়াবেন দ্যুতি, উঠে আসবেন নতুন তারকাও। অনেকের দিকেই থাকবে চোখ। লিওনেল মেসির সাথে আছেন ব্রাজিলের দুই ফরোয়ার্ড নেইমার জুনিয়র ও গ্যাব্রিয়েল বারবোসা। চিলির স্ট্রাইকার এদুয়ার্দো ভারগাসের সাথে আছেন কখনো কোপা না জেতা দুই দেশ ইকুয়েডরের মোইসেস কেইসেদো ও ভেনিজুয়েলার ইয়েফেরসন স্তলেদো। স্তলেদোর অবশ্য খেলা এখনো নিশ্চিত নয়। এই অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ভুগছেন চোটে। আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো। সম্প্রতি গোল এবং ট্যাকেল দেয়া সব কিছুতেই দারুণ করছেন সিরি-আ বর্ষসেরা ডিফেন্ডার।
একটি করে টুর্নামেন্ট আসে আর আশায় বুক বাঁধে আর্জেন্টাইনরা। এই বুঝি ফুরাবে অপেক্ষা। কিন্তু একটা শিরোপার আক্ষেপ আর ঘোচে না। এবার কাটবে তাদের ২৮ বছরের শিরোপা খরা? আর্জেন্টিনা সবশেষ কোপা আমেরিকা জিতেছিল ১৯৯৩ সালে। ম্যারাডোনার মৃত্যুর পর প্রথম কোপা খেলতে নামছে অ্যালবিসেলেস্তেরা। এরপর প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে আরো চারবার উঠেছিল আর্জেন্টিনা, একবার বিশ্বকাপ ফাইনালে। কিন্তু প্রতিবারই তাদের ফিরতে হয়েছে খালি হাতে।
ওই পাঁচ ফাইনালের চারটিতেই দলে ছিলেন মেসি। আগামী ২৪ জুন ৩৪ বছর পূর্ণ করতে যাওয়া ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলারের শেষ যে সম্ভাবনাগুলো আছে, এর একটি এবারের কোপা আমেরিকা। যেকোনো মূল্যে এই সুযোগ কাজে লাগাতে অধীর হয়ে থাকবেন তিনি। সর্বশেষ ২০১৫ ও ২০১৬ সালের ফাইনালে চিলির কাছে হেরে রানার্স আপ তারা।
‘এ’ গ্রুপ : আর্জেন্টিনা, বলিভিয়া, উরুগুয়ে, চিলি ,প্যারাগুয়ে
‘বি’ গ্রুপ : ব্রাজিল, কলম্বিয়া, ভেনেজুয়েলা, ইকুয়েডর, পেরু
বর্তমান চ্যাম্পিয়ন : ব্রাজিল
বেশি শিরোপা : ১৫ বার (উরুগুয়ে)
সর্বোচ্চ গোলদাতা : ১৭টি; নবের্তো মেন্দেজ (আর্জেন্টিনা),
জিজিনহো (ব্রাজিল)

 



আরো সংবাদ