২০ এপ্রিল ২০২১
`

বসুন্ধরার প্রাণভোমরা

-

লিগের ফিরতি পর্বে অতি অস্বাভাবিক কিছু না ঘটলে এখনই বলে ফেলা যায় এবারো লিগ শিরোপা ধরে রাখছে বসুন্ধরা কিংস। ১২ ম্যাচে ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী শেখ জামাল এবং ঢাকা আবাহনীর চেয়ে গতকাল পর্যন্ত ১১ ও ১২ পয়েন্টে এগিয়ে তারা। যদিও একটি করে খেলা বাকি জামাল ও আবাহনীর। অপরাজিত থেকে প্রথম পর্ব শেষ করা বসুন্ধরা কিংসের ফুটবলাররা এখন ২১ মার্চ পর্যন্ত ছুটিতে। তাদের এই স্বস্তি নিয়ে প্রথম পর্ব শেষ করার নেপথ্য টিম ওয়ার্ক। ১২ ম্যাচে ২৯ গোল দিয়ে হজম করেছে মাত্র চারটি গোল। এতে দলীয় সমন্বয়ের কথা বলা হলেও এর পেছনের কারিগর একজনই। তিনি দলটির ব্রাজিলিয়ান রিক্রুট রবসন রবিনহো। ১২ গোল দিয়ে এখন পর্যন্ত যৌথভাবে গোলদাতার তালিকায় শীর্ষে। তার সাথে লড়াইটা শেখ জামালের গাম্বিয়ান ওমর জোবের ( ১২ গোল)।
গোল করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সেরা ক্লাবটিতে চলছে ব্রাজিল আর্জেন্টিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতা। রবিনহোর ১২ গোলের বিপরীতে ১১ গোল আর্জেন্টাইন রাউল অস্কার বেচেরার। তার এই ১১ গোলেও রয়েছে রবিনহোর সহযোগিতা। বাংলাদেশ দলের একঝাঁক ফুটবলারের উপস্থিতি আর মানসম্পন্ন বিদেশী নিয়ে দলটি গড়া গলেও প্রতি ম্যাচেই নিজেকে আলাদা করে চেনাচ্ছেন রবিনহো। নিজে গোল করছেন, করাচ্ছেন বেচেরা-সবুজদের দিয়ে। লিগের সর্বশেষ ম্যাচে ঢাকা আবাহনীর বিপক্ষে নিজে কোনো গোল করতে পারেননি রবিনহো। তবে দু’টি গোলের জোগানদাতা।
এই মিডফিল্ডারের প্রশংসা সেদিন ছিল আবাহনীর কোচ মারিও লেমসের মুখেও। বললেন, ‘রবিনহো এবারের লিগে খেলতে আসা সবচেয়ে ভালো বিদেশী। সে ইউরোপিয়ান মানের ফুটবলার। ম্যাচে একাই গড়ে দেয় পার্থক্য।’ বসুন্ধরার কোচ অস্কার ব্রুজন অবশ্য আলাদা করে কিছু বলতে চাইলেন না রবিনহোকে নিয়ে। তবে দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর বি এ যোবায়ের নিপু জানালেন, ‘রবিনহো মানের বিদেশী এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে আসেনি। অনেকেই বলেছিল, রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলা কলিনড্রেসের মতো ফুটবলারকে ছেড়ে দেয়া ঠিক হয়নি। কিন্তু আমি বলব, রবিনহো তার চেয়েও ভালো। কলিনড্রেসের ডিফেন্ডিং ছিল না। কিন্তু রবিনহোর মধ্যে তা বিদ্যমান।’ তিনি যোগ করেন, ব্রাজিলের সর্বোচ্চ লিগে খেলা এই ফুটবলার যদি বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে মাঠটা ভালো পেত তাহলে তাকে কেউই আটকাতে পারত না। অনুশীলনে সে এমন এমন গোল করে যা আমাদের বিস্মিত করে।’



আরো সংবাদ