০৩ মার্চ ২০২১
`

দুই বছর পর ম্যাচসেরা মিরাজ

দুই বছর পর ম্যাচসেরা মিরাজ -

প্রথম ম্যাচে সফরকারীদের নাকানি চুবানি খাইয়েছেন সাকিব আল হাসান, দ্বিতীয় ম্যাচে সে জায়গা নিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ৪ উইকেট নিয়ে গুঁড়িয়ে দিয়েছেন ক্যারিবীয় ব্যাটিং লাইনআপ। ফলে ম্যাচসেরা হয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। দুই বছর পর তিনি ম্যাচসেরার পুরস্কার পেলেন।
এই নিয়ে দ্বিতীয়বার ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৪ উইকেটের স্বাদ পেলেন মিরাজ। দু’টিই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। আগেরবার ২০১৮ সালে সিলেটে ২৯ রানে নিয়েছিলেন ৪ উইকেট। সেবারো হয়েছিলেন ম্যাচসেরা। এবার ৪ উইকেট নিয়েছেন ২৫ রানের বিনিময়ে। এই অফ স্পিনারের শিকার হয়েছেন অভিষিক্ত ওপেনার কেয়র্ন ওটলি (২৪) জসুয়া ডি সিলভা (৫), রোভম্যান পাওয়েল (৪১) এবং রেমন রেইফার (২)। সময়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে তার পারফরম্যান্স ও সামর্থ্য প্রশ্নবিদ্ধ। দলে জায়গাও ছিল নড়বড়ে। ভালো কিছু করা তাই জরুরি ছিল। যদিও প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের ক্রিকেটাররা স্পিনে একটু বেশিই নড়বড়ে। বোলারদের পক্ষে ছিল উইকেট ও কন্ডিশন। নিজের পারফরম্যান্সের প্রতিই ঝোঁক ছিল এই স্পিনারের। প্রথম ম্যাচে নিজের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট ছিলেন না। দ্বিতীয় ম্যাচে ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের পর ম্যাচের মাঝ বিরতিতে বললেন, পারফরম্যান্সে আমি খুশি। প্রথম ম্যাচে যে জায়গায় বোলিং করেছি, তাতে খুশি হতে পারিনি। ম্যাচের পর অধিনায়ক, সাকিব ভাইসহ সিনিয়র ক্রিকেটারদের সাথে কথা বলেছি। তারা বলেছেন কোন জায়গায় বোলিং করতে হবে।
কোচের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানালেন মিরাজ, বিশেষ ধন্যবাদ জানাচ্ছি আমাদের স্পিন কোচ সোহেল ভাইকে। তার সাথেও কথা বলেছিলাম, তিনি আমাকে বলেছেন কোন জায়গায় বল করতে হবে এবং কী করতে হবে। আমি সেভাবেই চেষ্টা করেছি।
ওয়েস্ট ইন্ডিজের সর্বোচ্চ রান করা রভম্যান পাওয়েলকে স্টাম্পড করে মিরাজ পূর্ণ করেন চতুর্থ উইকেট। পাওয়েল এর আগে বেরিয়ে এসে ছক্কা মেরেছিলেন মিরাজকে। এই ব্যাটসম্যানকে বিভ্রান্ত করে আউট করার গল্পও শুনালের মিরাজ, তাকে বেরিয়ে আসতে দেখেই আমি লেংথে বদল আনি। আমাদের উইকেটকিপার, অধিনায়ক ও সাকিব ভাই আগেই বলেছিল, ব্যাটসম্যান বেরিয়ে আসতে পারে। আমার মাথায় সেটা ছিল। তাতেই স্ট্যাম্পড পাওয়েল।’



আরো সংবাদ