০১ ডিসেম্বর ২০২০

চ্যাম্পিয়ন মাহমুদুল্লাহ একাদশ

-

সময়মতো ঠিকই জ্বলে উঠলেন মাহমুদুল্লাহ একাদশের ব্যাটসম্যানরা। বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে শান্ত বাহিনীর কাছে দু’ দুবার হারলেও ফাইনালে ঠিকই তাদেরকে হারিয়ে শিরোপা জিতে নিলো মাহমুদুল্লাহ বাহিনী। অভিজ্ঞ লিটন-ইমরুল-রিয়াদই হলেন জয়ের নায়ক। শান্ত বাহিনীর ১৭৩ রানের জবাবে ২৯.৪ ওভারে তিন উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রান করেন। ফলে ৭ উইকেটের জয় নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় তারা।
শান্ত বাহিনীর বিপক্ষে আগের দুই ম্যাচে ইমরুল কায়েসের সংগ্রহ ৪০ এবং ৪। গতকাল করলেন ৫৫ বলে এক চার ও ৬ ছক্কায় অপরাজিত ৫৩। লিটন দাসও কম দেখাননি। আগের দুই ম্যাচে ২৭ ও ১১ রান। ফাইনালে করলেন ৬৯ বলে ১০ বাউন্ডারিতে ৬৮। আর মাহমুদুল্লাহ অধিনায়ক হিসেবে রাখলেন অভিজ্ঞতার স্বাক্ষর। ১১ বলে ৩ চার ও এক ছক্কায় অপরাজিত থাকলেন ২৩ রানে। এর আগে আউট হলেন মুমিনুল হক (৪) ও মাহমুদুল হাসান (১৮)। নাসুম আহমেদ দু’টি ও আল আমিন এক উইকেট নেন।
টস হেরে নাজমুল হোসেন শান্ত একাদশ ৬৪ রানে ৫ উইকেট হারানোয় ফাইনালের উত্তাপ টের পাওয়া যাচ্ছিল না। সেখান থেকে একাই লড়েন ইরফান শুক্কুর। শেষ পর্যন্ত আউট হন ৭৫ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলে। মাহমুদুল্লাহ একাদশ জয়ের লক্ষ্যটা নাগালে রাখতে পেরেছে সুমন খানের দুর্দান্ত বোলিংয়ে। তরুণ পেসার ৩৮ রানে শিকার করেন পাঁচ উইকেট। রুবেল হোসেন দুই উইকেট নিয়ে ছুঁয়েছেন সাইফউদ্দিনকে। উভয়ের শিকার ১২ উইকেট।
ব্যাটিংয়ে নেমে একে একে সাইফ হাসান (৪), মুশফিকুর রহীমের (১২), সৌম্য সরকার (৫), আফিফ হোসেনের (০) উইকেট হারায় শান্ত একাদশ। ৪৫ রানে ৪ উইকেট হারানোর পর তৌহিদকে নিয়ে হাল ধরেন অধিনায়ক শান্ত। ৩২ রানে আউহ হন শান্ত। পুরো টুর্নামেন্টে দারুণ ব্যাটিং করা ইরফান মারমুখী ভূমিকায় অবতীর্ণ হন। হৃদয়ের সাথে ষষ্ঠ উইকেটে ৭০ রানের জুটিতে দলীয় রান ২০০ কাছাকাছি চলে যান। ১৭ বল আগেই রুবেলের বলে স্কুপ করতে গিয়ে বোল্ড হন। ইরফান ৭৫ রানের ইনিংসটি খেলেন ৭৭ বলে। মারেন আটটি চার ও দু’টি ছয়।


আরো সংবাদ