২৮ অক্টোবর ২০২০

যোগাযোগই করছে না শ্রীলঙ্কা

-

শ্রীলঙ্কার কঠিন প্রস্তুাবে রাজি নয় বিসিবি। বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান পাপনও আল্টিমেটাম দিয়ে রেখেছেন। আর তা নিয়েই চলছে দেন দরবার। লঙ্কানরাও অনঢ়, বিসিবিও ছাড় দিতে নারাজ। দু’পক্ষ নিজ নিজ অবস্থানে অনঢ় বলেই কোনো সমাধান আসছে না। এখন যদি শ্রীলঙ্কা রাজিও হয় তাহলেও নির্ধারিত ২৭ সেপ্টেম্বর যাওয়া হবে না সফরে। এখানে হোটেল চেক আউট, ভিসা ইত্যাদিতে লেগে যেতে পারে আরো তিন-চারদিন।
আর তারচেয়ে বড় কথা, লঙ্কানরাও কোনো যোগাযোগ করছে না। যা বিসিবি সিইও নিজাম উদ্দিন চৌধুরী স্বয়ং মুখ ফুটে জানিয়ে দিয়েছেন। ‘এখন যা অবস্থা তাতে করে লঙ্কানরা যদি আজ-কালের মধ্যে ইতিবাচক প্রস্তাবও দেয়, অনিশ্চয়তার সব কালো মেঘ কেটে গেলেও পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী টাইগারদের সফরে যাওয়া খুব কঠিন। বড় বিষয় হলো তারা কোনো যোগাযোগ করছে না।’
অবশ্য এরপরও এখানে সবকিছুই ঠিকভাবে চালাচ্ছে বিসিবি। কোনো প্রকার কমতি রাখছে না অনুশীলনে। কিন্তু যেখানে গিয়ে খেলবে সেই লঙ্কানরা তাদের সিদ্ধান্তে অনঢ়। নিজ দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কড়াকড়ি মেনে শ্রীলঙ্কান বোর্ড জানিয়ে দিয়েছে, আইসিসি টেস্ট চ্যাস্পিয়নশিপ খেলতে শ্রীলঙ্কা গিয়ে ১৪ দিন হোটেল থেকে বের হওয়া চলবে না। অনুশীলন তো দূরের কথা। থাকতে হবে আইসোলেশনে। ওই প্রস্তাব মেনে সফরে যাওয়ার অর্থ, দেশে যত রকমের প্রস্তুতিই নেয়া হোক না কেন, ওখানে গিয়ে দুই সপ্তাহ হোটেলে থেকে টেস্টের আগে ফের নতুন করে প্রস্তুতি নিতে হবে।
মিরপুরের টাইগারদের দলীয় অনুশীলনের পঞ্চম দিন পার হলো। তবে প্রতিদিনের চেয়ে গতকাল একটু ভিন্নভাবে অর্থাৎ ম্যাচের আবহে দুই ভাগে ভাগ হয়ে অনুশীলন করেন ক্রিকেটাররা।
ব্যাট বলের পর রানও নিয়েছেন। শেরেবাংলার সেন্টার মাঠের দু’টি উইকেটে চার জন ব্যাটসম্যান ব্যাটিং করতে নামেন। একপাশে সাদমান ইসলাম ও তামিম ইকবাল নতুন বলে অনুশীলন করেন ম্যাচের আদলে। তাদের বোলিং করেন তাসকিন আহমেদ ও হাসান মাহমুদ। আর ফিল্ডিংয়ে ছিলেন নুরুল হাসান সোহান, নাজমুল হোসেন শান্ত, নাইম হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম ও মোস্তাফিজুর রহমান।

 


আরো সংবাদ