২৯ অক্টোবর ২০২০

হঠাৎই চলে গেলেন ডিন জোন্স

-

১৯৯৪ সালে প্যাড-গ্ল্যাভস তুলে রাখলেও ২২ গজকে বিদায় জানাননি ডিন জোন্স। ধারাভাষ্যকে পেশা হিসেবে নিয়ে জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত ছিলেন ক্রিকেটের সাথে। মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে ধারাভাষ্য কিংবা ম্যাচ নিয়ে আর বিশ্লেষণ করতে দেখা যাবে না সাবেক অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার ডিন জোন্সকে। গতকাল হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ (হার্ট অ্যাটাক) হয়ে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে ৫৯ বছর বয়সে মারা গেছেন তিনি।
আইপিএলের মূল ব্রডকাস্টার স্টার স্পোর্টসের সাথে যুক্ত ছিলেন জোন্স। গত পরশুও তিনি ব্রডকাস্টের সেটআপে ছিলেন, শারীরিক কোনো অসুবিধা ছিল না। কিন্তু বিকেলের দিকে হঠাৎই হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে পৃথিবী ছেড়ে গেছেন সাবেক অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান। তার থমৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে স্টার স্পোর্টসের মালিকানা প্রতিষ্ঠান স্টার ইন্ডিয়া, খুবই দুঃখের সাথে জানাচ্ছি, ডিন জোন্স পৃথিবী ছেড়ে চলে গেছেন। হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন তিনি। তার পরিবারের প্রতি আমরা গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি এবং কঠিন এই সময়ে তাদের পাশে আছি।
স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় নাশতা শেষে আইপিএলের ম্যাচের ব্রিফিং সেশনে অংশ নিয়েছিলেন জোন্স। এরপর দক্ষিণ মুম্বাইয়ের যে হোটেলে তিনি উঠেছিলেন, সেখানে কয়েকজন সহকর্মীর সাথে করিডোরে ব্যাট-বল নিয়ে মেতে উঠেছিলেন খেলোয়াড়ী জীবন শেষে ধারাভাষ্যকার হিসেবে নাম কুড়ানো এই অস্ট্রেলিয়ান। খেলতে খেলতে আচমকা মেঝেতে পড়ে যান জোন্স। এরপর দ্রুত হাসপাতালে নেয়া হলেও হাসপাতালে আনার আগেই মারা গেছেন জোন্স।
জোন্স আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কাটিয়েছেন ১০ বছর। শুরুটা ১৯৮৪ সালের জানুয়ারিতে, পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে। ওই বছরই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট আঙিনায় তার পা রাখা। ৫২ টেস্টে ৪৬.৫৫ গড়ে করেছেন ৩ হাজার ৬৩১ রান। ১১ সেঞ্চুরির পাশাপাশি হাফসেঞ্চুরি ১৪টি। আর ওয়ানডেতে খেলেছেন ১৬৪ ম্যাচ। ৪৪.৬১ গড়ে ৭ সেঞ্চুরি ও ৪৬ হাফসেঞ্চুরিতে নামের পাশে যোগ করেছেন ৬ হাজার ৬৮ রান।


আরো সংবাদ