২৭ অক্টোবর ২০২০

সম্মিলিত পরিষদের ইশতেহার ঘোষণা

-

কাজী সালাউদ্দিনের আগের ঘোষণা ছিল ২০২২ কাতার বিশ্বকাপে খেলার লক্ষ্য স্থাপন। গতকাল ৩ অক্টোবরের বাফুফের নির্বাচন উপলক্ষে সাড়ে চার পৃষ্ঠার নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছে সালাউদ্দিনের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত পরিষদ। এতে নতুনত্ব : ২০২৪ সালের মধ্যে ফিফা র্যাংকিংয়ে পুরুষ জাতীয় দলকে ১৫০ এর কাছাকাছি নিয়ে আসা। আর মহিলা দলকে ৯০ এর পাশে নিয়ে আসা। প্রতি বছর শেখ কামালের নামে অনূর্ধ্ব-১৮/১৯ এবং শেখ রাসেলের নামে অনূর্ধ্ব-১০ জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ আয়োজন। সারা দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ফুটবল অ্যাকাডেমিগুলোকে নিয়ে প্রতি বছর অ্যাকাডেমি কাপ করার কথাও উল্লেখ করা হয়েছে এই নির্বাচনী ইশতেহারে। ফুটবলারদের দলবদল ডিজিটালাইজড করা এবং দেশের চারটি স্টেডিয়ামকে আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজনের উপযুক্ত করার কথাও বলা হয়েছে। এ ছাড়া গত ১২ বছরের সাফল্যও তুলে ধরা হয় আলাদাভাবে।
এই নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়নে আশাবাদী বাফুফে সভাপতি। তবে উল্লেখ করেন, ২০১৬ সালের নির্বাচনী ইশতেহারের ৭৫ শতাংশ বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়েছে। বাকিটা না হওয়ার জন্য সালাউদ্দিন তীর ছোঁড়েন তরফদার রুহুল আমিনের দিকে। তার অভিযোগ, আমার পরিকল্পনার বাইরে আরো কিছু কথা গত ইশতেহারে অন্তর্ভুক্ত করেছিলেন তরফদার। তখন তরফদার ছিলেন সালাউদ্দিনের প্যানেলের প্রধান সমন্বয়কারী। তবে এবারের ইশতেহার বাস্তবায়নে তিনি সবার সহযোগিতা চান।
ইশতিহারে আরো উল্লেখ করা হয়, বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রতি বছর আয়োজন, সাফ ফুটবল এবং এস এ গেমস ফুটবলে শ্রেষ্ঠত্ব পুনরুদ্ধার, মহিলা সাফ এবং এস এ গেমস মহিলা ফুটবলে শিরোপা জয়, সুনির্দিষ্ট পঞ্জিকা অনুসরণে পুরুষ ও মহিলা ফুটবলের ঘরোয়া আসর আয়োজন, নির্দিষ্ট তারিখে দলবদলের তারিখ দেয়া ও খেলা সম্পন্ন করা। যথাযথ ফরমেটে প্রতি বছর নির্দিষ্ট সময়ে জেলা লিগ আয়োজন এবং জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনকে বার্ষিক অর্থ সহায়তা করা। ঢাকা মহানগরীর লিগ কমিটির ক্লাবগুলোকে লাইসেন্সিং সিস্টেমের আওতায় আনা, পাইওনিয়ার লিগ থেকে প্রিমিয়ার লিগ পর্যন্ত সব প্রতিযোগিতার মধ্যে সমন্বয় করে ফুটবলীয় পিরামিড স্থাপন, প্রতি বছর বঙ্গবন্ধু জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ আয়োজনের কথাও বলা হয়েছে ইশতেহারে।
এ ছাড়া প্রতি মাসে অন্তত একটি জেলায় দুই দিনব্যাপী পুরুষ ও মহিলা ফুটবল ফেস্টিভ্যাল আয়োজন, ২০২১ সালের মধ্যে বাফুফে ভবনে জিম স্থাপন এবং বিভিন্ন বয়সভিত্তিক আসর থেকে খেলোয়াড় বাছাই করে তাদের বাফুফে ফর্টিস অ্যাকাডেমিতে ভর্তি এবং বাফুফের টেকনিক্যাল সেন্টারের অধীনে আনা। কাল এই অনুষ্ঠানে সহসভাপতি প্রার্থীরা ইশতেহার পড়ে শোনান। পরিচয় করিয়ে দেয়া হয় সব প্রার্থীর। তবে অনুপস্থিত ছিলেন সিলেটের সদস্য প্রার্থী মাহি উদ্দিন সেলিম।

ইশতেহারে নতুনত্ব
২০২৪ সালের মধ্যে ফিফা র্যাংকিংয়ে পুরুষ দলকে ১৫০ ও মহিলা দলকে ৯০ এর কাছাকাছি আনা

খেলোয়াড়দের ডিজিটালাইজড দলবদল

প্রতি বছর শেখ কামাল অনূর্ধ্ব-১৮/১৯ এবং শেখ রাসেল অনূর্ধ্ব-১০ জাতীয় ফুটবল আয়োজন

সারা দেশের অ্যাকাডেমিদের নিয়ে প্রতি বছর অ্যাকাডেমি কাপ আয়োজন

দেশের চারটি স্টেডিয়ামকে আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজনের উপযুক্ত করা

 


আরো সংবাদ