৩০ মে ২০২০

বাধা কাটল স্মিথের

-

২০১৮ সালের মার্চে কেপটাউন টেস্টে বল বিকৃতির দায়ে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার তৎকালীন অধিনায়ক স্টিভ স্মিথসহ তিন ক্রিকেটার। খেলোয়াড় হিসেবে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা পেলেও স্মিথের অধিনায়কত্বের ওপর দেয়া হয়েছিল দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা। গতকাল শেষ হয়েছে সেই দুই বছর। অর্থাৎ আজ থেকে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড চাইলে আবার তাকে অধিনায়ক করতে পারবে। ওই সময়ের সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে অবশ্য আজীবনের জন্য নেতৃত্ব থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
বর্তমানে অস্ট্রেলিয়াকে টেস্টে নেতৃত্ব দিচ্ছেন টিম পেইন আর সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অ্যারন ফিঞ্চ। এর মধ্যে পেইনের বয়স ৩৫ হয়ে গেছে। তাই ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে স্মিথের কাধে আবারো নেতৃত্ব এলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।
অজি কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার অবশ্য এখনো পেইনেই মুগ্ধ এবং তার ধারণা স্মিথ এখনই দলকে টানার চাপ নিতে আগ্রহী হবেন না হয়তো। তবে স্মিথ দায়িত্ব পেলেও সেটা হয়তো আপাতত শুধু টেস্টের জন্য। কারণ ওয়ানডে ও টি-২০তে অধিনায়কত্বের দায়িত্বটা উপভোগ করছেন অ্যারন ফিঞ্চ। তার নেতৃত্বে দল ভালোই করছে। সূচি অনুযায়ী অস্ট্রেলিয়া পরের টেস্ট সিরিজটি খেলবে বাংলাদেশের বিপক্ষে।
তবে আপাতত এ নিয়ে ভাবতে নারাজ স্মিথ। করোনার সময়টা নিজেকে ফিট রাখাতেই মন দিচ্ছেন তিনি। অস্ট্রেলীয় চ্যানেল নাইনকে বলেছেন, আমার ধারণা সব দেশের সীমানাই ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। তাই এখন পর্যন্ত মনে হচ্ছে না এবারের আইপিএল হওয়া সম্ভব। তাই আপাতত শুধু মানসিক ও শারীরিকভাবে সুস্থ থাকার চেষ্টা করছি। যদি হয় তো ভালো, না হলেও বিশ্ব এখন অন্য অনেক কিছু হচ্ছে। এখন একটা একটা করে দিন কাটাচ্ছি।’


আরো সংবাদ