০৯ এপ্রিল ২০২০

পাকিস্তান সফর নিয়ে অনড় মুশফিক

পাকিস্তান সফরের তৃতীয় দফা এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে। করাচিতে হবে একমাত্র ওয়ানডে শেষ টেস্ট
সিলেট স্টেডিয়ামে গতকাল তাইজুলকে টিপস দিচ্ছেন স্পিন কোচ ডেনিয়েল ভেট্টোরি। পাশে মুশফিকুর রহীম হ নয়া দিগন্ত -

পাকিস্তান সফরের বিষয়ে নিজের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন না করার আভাস দিলেন জাতীয় দলের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহীম। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের কঠোর অবস্থানেও সম্ভবত তার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হচ্ছে না। গতকাল একটি টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন মুশফিক।
বেসরকারি টিভি চ্যানেল এনটিভিকে মুশফিকুর রহীম বলেন, ‘পাকিস্তান সফরের বিষয়ে আমি আমার অবস্থান স্পষ্ট করেছি এবং তারা (বিসিবি) সেটি গ্রহণও করেছে। পিএসএলে নাম দেয়ার একটি বিষয় ছিলো সেটিও আমি করিনি। তাদের আমাকে সম্মান দেখানো উচিত ছিলো যে, বর্তমান পরিস্থিতি জেনেও আমি পিএসএল নাম দেইনি। তো আমার মনে হয় যে, এটি খুবই স্পষ্ট এবং ভবিষ্যতেও এটি পরিবর্তন হবে না। যারা এই টিমে যাবে তাদের আমি শুভকামনা জানাই।
পাকিস্তান সফর নিয়ে মুশফিকুর রহীম শুরু থেকেই তার অবস্থানের বিষয়ে স্পষ্ট করেছেন। তিন দফায় বিভক্ত বাংলাদেশর প্রথম দুই দফা পাকিস্তান সফরের বাইরে ছিলেন তিনি। একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে তিনি পাকিস্তান সফর থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেন। বিসিবিও সে সময় তার সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছিল। পরিবারের উদ্বেগের কারণেই মুশফিকের এই সিদ্ধান্ত ছিল কিন্তু মিরপুরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টের পর ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেছিলেন, চুক্তিভুক্ত ক্রিকেটার হিসেবে মুশফিকের দলের সাথে থাকার দায়বদ্ধতা রয়েছে।
বোর্ড সভাপতি ওই দিন বলেন, ‘আমরা আশা করছি ও যাবে। শুধু সে না প্রতিটি চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়ের যাওয়া উচিত। এটা আমরা মনে প্রাণে বিশ্বাস করি। দেশের কথাও চিন্তা করতে হবে। সব সময় নিজের কথা চিন্তা করলে হবে না, যেটি আমি ব্যক্তিগভাবে মনে করি। প্রত্যেকের কাছেই নিজের কথা, পরিবারের কথা গুরুত্বপূর্ণ; কিন্তু দেশটা তার চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’
পাকিস্তানে নিরাপত্তা নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই উল্লেখ করে পাপন বলেছিন, ‘সে ইচ্ছে করলে সতীর্থদের কাছ থেকে শুনতে পারে, আমাদের কাছ থেকে শুনতে পারে। তারপরই সে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করুক। পাকিস্তান একটা ভিন্ন ইস্যু। আগে নিজে থেকেই মুশফিক না যাওয়ার ব্যাপারে বলেছে। কাউকে আমরা জোর করিনি। আমি মনে করি, সবার সাথে কথাবার্তা বললে বিষয়টি সহজ হবে। মনে হচ্ছে ওর যাওয়া উচিত।’
পাকিস্তানে বাংলাদেশ তৃতীয় ও শেষ দফা সফরে যাবে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে। সেখানে একটি ওয়ানডে ও সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টটি খেলবে দুই দল। করাচিতে তিন এপ্রিল হবে একমাত্র ওয়ানডে ম্যাচটি। এরপর একদিন বিরতি দিয়ে একই মাঠে ৫ এপ্রিল শুরু হবে দ্বিতীয় টেস্ট।
এর আগে বাংলাদেশ লাহোরে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ও রাওয়ালপিন্ডিতে খেলেছে সিরিজের প্রথম টেস্ট। পাকিস্তান সফর থেকে দেশে ফিরে জিম্বাবুয়ের সাথে সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ। যেখানে একমাত্র টেস্টে মিরপুরে মুশফিক খেলেছেন অপরাজিত ২০৩ রানের ইনিংস। পরাজয়ের বৃত্তে ঘুরপাক খাওয়া বাংলাদেশ দল টেস্ট জিতেছে ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে।


আরো সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রে টানা দ্বিতীয় দিনের মতো প্রায় ২০০০ মৃত্যু ভালোবাসা ও সম্প্রীতির ৪ বছর নৌপথে নারায়ণগঞ্জ থেকে বরগুনায় এসে আটক ১০৯ ভারতে করোনা আতঙ্কে হিন্দুরা এগিয়ে এলেন না, সৎকার সারলেন মুসলমান তরুণরা থুতু ছেটানো : তাবলিগ জামাতের সদস্যের বিরুদ্ধে অপবাদ খারিজ হাসপাতালের প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারির পরও ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম-দুর্নীতি : কী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে? কেরানীগঞ্জে মা-ছেলেসহ ৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত করোনাভাইরাস : এপ্রিল কেন বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে ‘ক্রিটিক্যাল’ প্রার্থী বাছাই পর্ব থেকে সরে গেলেন স্যান্ডার্স করোনাভাইরাস : চীনা দাবি কি সত্য? এখনই সময় জাকাত ও দান-সদকার

সকল