০৯ এপ্রিল ২০২০

সেঞ্চুরির পরও আক্ষেপ আরভিনের

-

শন উইলিয়ামসের অনুপস্থিতিতে ঢাকা টেস্টে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পান কেইগ আরভিন। আর নেতৃত্বের প্রথম দিনই পেয়েছেন সেঞ্চুরির স্বাদ। তার ১০৭ রানের ইনিংসে প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেটে ২২৮ রান তুলেছে জিম্বাবুয়ে। তবে আর একটু বেশি থাকতে পারলে বাংলাদেশকে চাপে রাখা যেত বলে মনে করছেন তিনি।
তার কথায়, ‘আমরা সেভাবেই এগোচ্ছিলাম। হঠাৎ করেই ছন্দপতন হয়েছে। তবে সেটিকে ছন্দপতন না বলে মনোযোগের অভাব বলাই ভালো। আমি নিজেও যদি থাকতে পারতাম তাহলে আরো একটু চাপে রাখা যেত বাংলাদেশকে।’
এবাদতের ফুল লেন্থ বল ফাইন লেগে পাঠিয়ে দুই রান নিলেন ক্রেইগ আরভিন। ৯৯ থেকে বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের রান হলো ১০১। ছোট্ট লাফ দিয়ে শূন্যে ঘুষি ছুড়লেন। চিরাচরিত সেঞ্চুরি উদযাপন। ড্রেসিংরুম থেকে বেরিয়ে সতীর্থরা অভিনন্দন জানালেন। ক্যারিয়ারের তৃতীয় শতক হাঁকিয়ে নিলেন জিম্বাবুয়ের এই ব্যাটসম্যান। দিনের শেষ বেলায় নাঈম হাসানের চতুর্থ শিকার হয়ে ফেরেন আরভিন। ২১৩ বলে ১৩ চারে তিন অঙ্ক ছোঁয়ার পর পথ হারান জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক।
নাঈমের সোজা বল মিস করে বোল্ড হন ১০৭ রানে। সারাদিন ৩২৯ মিনিট ব্যাটিং করে নজরকাড়া ইনিংস উপহার দিয়েছেন বাঁহাতি এ ব্যাটসম্যান কিন্তু শেষটা মনমতো হয়নি বলেই আক্ষেপ তার, ‘আমি চেষ্টা করেছি। সেঞ্চুরি সবসময়ই আনন্দের। নিজের ভালো লাাগার পাশাপাশি দলের জন্যও অবদান রাখা যায়। দলের সবাই সে হিসেবেই মাঠে নেমেছিল। দ্বিতীয় দিনে চাই, আরো কিছু রান আসুক। আমাদের ব্যাটসম্যানরা সে পরিকল্পনাতেই আছে। মনে হেেচ্ছ কেউ সহজে আউট হতে চাইবে না। একটা সন্তোষজনক রান ইনিংসে থাকুক।’

 


আরো সংবাদ