০৯ এপ্রিল ২০২০

ফাইনালে পূর্বাঞ্চল ইয়াসিরের জোড়া সেঞ্চুরি, নাঈমের ১৩ উইকেট

-

বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) তৃতীয় রাউন্ডে উত্তরাঞ্চলকে ৮ উইকেটে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চল। বিসিবি উত্তরাঞ্চলের দেয়া ২১১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ইয়াসির আলীর সেঞ্চুরি ও আশরাফুলের হাফ সেঞ্চুরিতে সহজেই ৮ উইকেটের জয় তুলে নেয় পূর্বাঞ্চল। ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ চারবারের চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণাঞ্চল।
প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ টেস্ট দলে ডাক পাওয়ার উপলক্ষটা দারুণভাবে রাঙালেন ইয়াসির আলী। প্রথম ইনিংসে ডাবল সেঞ্চুরি হাতছাড়া করার আক্ষেপ মেটালেন ম্যাচে জোড়া সেঞ্চুরি করে। তার ব্যাটেই উত্তরাঞ্চলকে হারিয়ে বিসিএলের ফাইনালে উঠেছে পূর্বাঞ্চল। এর আগে তিনবার ফাইনালে খেললেও কখনো শিরোপার স্বাদ পায়নি পূর্বাঞ্চল। গতবার তাদের হারিয়ে নিজেদের চতুর্থ শিরোপা ঘরে তুলেছিল দক্ষিণাঞ্চল।
কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শেষ দিনে খেলতে নেমে নাঈম হাসানের স্পিন ঘূর্ণিতে বেশিক্ষণ টিকে থাকতে পারেনি উত্তরাঞ্চল। ২৬৯ রানে তারা সব উইকেট হারিয়ে পূর্বাঞ্চলের সামনে লক্ষ্য দাঁড় করায় ২১১ রান। ব্যাট করতে নেমে ইয়াসির আলীর ১১০ ও মোহাম্মদ আশরাফুলের অপরাজিত ৭০ রানে ভর করে উত্তরাঞ্চলকে সহজেই হারায় পূর্বাঞ্চল। উত্তরাঞ্চলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন। ৩৮ রান করেন মুশফিকুর রহীম। দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে ৫ উইকেট শিকার করেন নাঈম হাসান।
৫ উইকেটে ১৪৫ রানে গতকাল দিন শুরু করা উত্তরাঞ্চল গুটিয়ে যায় ২৫৯ রানে। প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেট নেয়া নাঈম হাসান এবার নেন ১০১ রানে পাঁচটি। উত্তরাঞ্চলের ইনিংস শেষ হওয়ায় একটু আগেভাগেই দেয়া হয় চা পানের বিরতি। শেষ সেশনে ২১১ রানের লক্ষ্য পায় পূর্বাঞ্চল।
ড্র করলেই ফাইনাল নিশ্চিত। তারপরও ওয়ানডে মেজাজের ব্যাটিং করে দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়ে টেবিলের শীর্ষে থেকে ফাইনাল নিশ্চিত করে ইমরুল কায়েসের দল। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে পথ দেখান ইয়াসির। প্রথম ইনিংসে ২৩ বছর বয়সী এই ডানহাতি ক্যারিয়ার সেরা ১৬৫ রান করেছিলেন চার নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে। এবার তিনে নেমে খেললেন ৮৮ বলে ৮ চার ও ৫ ছক্কায় ১১০ রানের ইনিংস। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে তার অষ্টম সেঞ্চুরি। তবে জোড়া সেঞ্চুরি প্রথম।
লক্ষ্য তাড়ায় শুরুটা অবশ্য ভালো হয়নি পূর্বাঞ্চলের, ১৮ রানে ফিরেন পিনাক ঘোষ। এরপর মোহাম্মাদ আশরাফুলকে নিয়ে ২৬ ওভারে ১৬০ রানের জুটি গড়েন ইয়াসির। তিনি ফেরার পর ইমরুলকে নিয়ে বাকি কাজ সারেন আশরাফুল। আশরাফুল অপরাজিত থাকেন ৮৬ বলে ৪টি চারে ৭০ রান করে। ১৬ বলে ১ ছক্কায় ১৭ রান করেন ইমরুল। নিয়মিত বোলাররা মার খাওয়ার পর তিন ওভার বোলিং করেন মুশফিকুর রহীম। লম্বা সময় পর মাঠে ফেরা সাইফ উদ্দিন দ্বিতীয় ইনিংসেও কোনো উইকেট পাননি।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
উত্তরাঞ্চল ইনিংস : ৮২.৪ ওভারে ২৭২ ও ১২০.৩ ওভারে ২৬৯ (জুনায়েদ ৩৬, নাঈম ইসলাম ৩৫, মুশফিক ৩৮, মাহিদুল ৪৪, সঞ্জিত ৩৬*, নাঈম হাসান ৫/১০১, সাকলাইন ২/৫৮)
পূর্বাঞ্চল ইনিংস : ১১৬.৩ ওভারে ৩৩১ ও ৩৪.৫ ওভারে ২১১/২ (ইয়াসির ১১০, আশরাফুল ৭০*, ইমরুল ১৭*; সানজামুল ১/৬১)
ফল : পূর্বাঞ্চল ৮ উইকেটে জয়ী
ম্যাচ সেরা : ইয়াসির আলী


আরো সংবাদ

সেই প্রিয়া সাহা করোনায় আক্রান্ত! (৫০৮৩৩)নিজ এলাকায় ত্রাণ দিয়ে ঢাকায় ফিরে করোনায় মৃত্যু, আতঙ্কে স্থানীয়রা (৪৪৬১১)বেওয়ারিশের মতো সারা রাত সঙ্গীতশিল্পীর লাশ পড়েছিল রাস্তায় (২৬৭২১)দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর (২০২৫৬)করোনা ছড়ানোয় চীনকে যে ভয়ঙ্কর শাস্তি দেয়ার দাবি উঠল জাতিসংঘে (১৬৩৮৯)কাশ্মিরে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে নিহত ভারতীয় দুর্ধর্ষ কমান্ডো দলের সব সদস্য (১৫৫২৩)রোজার ঈদের ছুটি পর্যন্ত বন্ধ হচ্ছে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (১৩০৭৯)করোনার লক্ষণ নিয়ে নিজের বাড়িতে মরে পড়ে আছে ব্যবসায়ী, এগিয়ে আসছে না কেউ (১২৮০৫)ঢাকায় নতুন করে ৯টি এলাকা লকডাউন (১০৬৪৩)সবচেয়ে ভয়াবহ দিন আজ : মৃত্যু ৫, আক্রান্ত ৪১ (১০০৬১)