২৩ অক্টোবর ২০২০

একটি পাখি একটি ফুল

-

জলপিপি

বাংলাদেশের যে অঞ্চলেই রয়েছে হাওর-বাঁওড়, সেখানেই আছে জলপিপি। শীতের চাইতে বর্ষাকালেই এই পাখিদের বেশি দেখা যায়। ওদের শরীরের গড়ন অনেকটা তিতিরের মতো কিন্তু চালচলনে ওর সঙ্গে জলমুরগির তুলনা চলে। ওদের মাথা, গলা আর বুক চকচকে কালো। সবুজাভ ব্রোঞ্জের মতো পিঠের রঙ। ডানাও একই রকম। আর পুচ্ছটি বাদামি লাল। এই পাখিকে নির্ভুলভাবে চেনার একমাত্র উপায় হচ্ছে ওদের চোখের পাশ থেকে ঘাড় পর্যন্ত বিস্তৃত সাদা রেখাটি। পাখিটির সমস্ত শরীর গাছপালার আড়ালে থাকলেও শুধু ওই শাদা দাগটি দেখেই শনাক্ত করা যায়। ওদের শরীরের তুলনায় পা অনেক লম্বা।
জলপিপি যখন পদ্ম-শাপলা-কচুরিপানার ওপর দিয়ে লম্বা পা চালিয়ে চালিয়ে হাঁটে, তখন দৃশ্যটা হয় দেখার মতো। আর বাচ্চা জলপিপির গায়ের রঙ হয় সাদা, লাল আর বাদামির মিশ্রণ। আমাদের দেশে সাধারণত যে জলপিপি দেখা যায়, তার ইংরেজি নাম ব্রোঞ্জ উইড জাসানা। বাংলায় এদের দলপিপিও বলা হয়। স্ত্রী-পুরুষ দেখতে প্রায় একই রকম হলেও স্ত্রী পাখি আকারে পুরুষের চেয়ে বড়।
পৃথিবীর প্রায় প্রতিটি দেশেই জলপিপি আছে। তবে আবহাওয়া ভেদে রঙ ও শরীরের মাপের একটু তারতম্য রয়েছে এই যা।
বাংলাদেশের সব এলাকাতেই আছে জলপিপি। তবে এদের সবচেয়ে বেশি দেখা যায় দক্ষিণ বাংলার হাওর অঞ্চলে। ঢাকার অদূরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রচুর জলপিপি দেখা যায়। হ

কামিনী

বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশে যেসব ফুল ফুটে থাকে তার মধ্যে কামিনী অন্যতম। কামিনী ফুল দেশের প্রায় সব জায়গাতে দেখা যায়। এটি মানুষের কাছে অতি পরিচিত একটি ফুল। এটি বন-জঙ্গল, রাস্তার ধার, বসতবাড়ি, বাগান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন স্থানে চোখে পড়ে।
কামিনী ফুলের গাছ ঝোপ আকৃতির হয়। এর পাতার আকৃতি ছোট এবং রঙ গাঢ় সবুজ। গাছের শাখা-প্রশাখা এবং কাণ্ড অনেক শক্ত হয়। কামিনী মূলত বর্ষাকালের ফুল।
কামিনী ফুলের রঙ সাদা হয়। ঘন সবুজ পাতার ফাঁকে থোকায় থোকায় অসংখ্য ফুল ফোটে, ফুলের আকৃতিতে ছোট হয়। এর ফুল সাধারণত দুই সেন্টিমিটার চওড়া হয়। এর সুনির্দিষ্ট পাঁচটি খোলা পাপড়ি থাকে। ফুল বাসি হলে ধীরে ধীরে ঝরে পড়ে।
বিকাল নেমে সন্ধ্যা হলেই ফুল ফুটতে থাকে। ফুলের সুমিষ্টি ঘ্রাণ চারদিক আন্দলিত করে তোলে। গাছ থেকে অনেক দূর পর্যন্ত এর সুঘ্রাণ পাওয়া যায়। শিশু থেকে বয়স্ক সব শ্রেণীর মানুষের পছন্দের ফুল এটি। কামিনীর বীজ থেকে তৈরি চারা ও গুটি কলমের মাধ্যমে এর বংশবিস্তার করা হয়। হ

 


আরো সংবাদ