১৪ আগস্ট ২০২২
`

মেয়েদের লিপস্টিক সাজ

-

লিপস্টিক মেয়েদের সাজের অন্যতম অনুষঙ্গ। এটি ছাড়া যেন কোনো সাজই পরিপূর্ণ হয় না। হোক সেটি বিয়ের কনের সাজ বা ভার্সিটি পড়ুয়া তরুণীর সাজ অথবা চাকরিজীবী নারীর অফিসের সাজ, লিপস্টিক লাগবেই। আজ তাই হয়ে যাক লিপস্টিক নিয়ে কিছু কথা। কেমন লিপস্টিক আপনাকে মানাবে, কিভাবে লিপস্টিক লাগানো উচিত, লিপস্টিক লাগানোর আগে ঠোঁট কিভাবে প্রস্তুত করতে হয়Ñ এসব নিয়েই আমাদের আজকের আয়োজন।
লিখেছেন তানজিলা মেহনাজ

কিভাবে বাছবেন লিপস্টিকের রঙ
বেশির ভাগ নারীরই এমন অনেক লিপস্টিক আছে যা কোনো দিনও ব্যবহার করা হয় না। হয়তো দোকানে যখন হাতের উলটো পিঠে লাগিয়ে দেখছিলেন তখন ভালো লেগেছিল, অথবা অন্য একজনের ঠোঁটে দারুণ মানিয়েছিল দেখেই আপনি সেই লিপস্টিকটি কিনেছিলেন, কিন্তু নিজের ঠোঁটে আর মানায়নি। এর কারণ হলো আপনার গায়ের রঙের সাথে ওই লিপস্টিকটি মানায় না। জেনে নিন কিভাবে বেছে নেবেন আপনার জন্য সেরা লিপস্টিকটি। প্রথমেই নিজের আন্ডারটোন জানুন। মানুষের গায়ের রঙকে দুটি আন্ডারটোনে ভাগ করা হয়েছে। একটি ইয়েলো আন্ডারটোন, অপরটি পিঙ্ক আন্ডারটোন। এটি চেনার উপায় হলো হাতের কব্জির শিরার দিকে তাকান, যদি তা নীল হয় তাহলে আপনার পিঙ্ক আন্ডারটোন, শিরাগুলো যদি সবুজাভ হয় তাহলে আপনার ইয়েলো আন্ডারটোন। যদি আপনার শিরা কিছু সবুজ কিছু নীল হয় তাহলে আপনার নিউট্রাল আন্ডারটোন, আপনি ভাগ্যবান কারণ আপনি সব রঙের লিপস্টিক পরতে পারবেন। এবার লিপস্টিকের দোকানে গিয়ে দোকানদারকে বলবেন আপনার জন্য আপনার আন্ডারটোনের লিপস্টিক দেখাতে। সেখান থেকে আপনি পছন্দসই রঙ বেছে নিতে পারবেন যেটি সবসময় ঠোঁটে লাগাতেও পারবেন, ফেলে রাখতে হবে না।
লিপস্টিক লাগানোর নিয়ম কানুন
লিপস্টিক তো সবাই লাগাতে পারে, কিন্তু সুন্দর করে ক’জন লাগাতে পারে? সুন্দর করে লিপস্টিক লাগানোর জন্য দরকার কিছু প্রাথমিক প্রস্তুতির। জেনে নিন কিভাবে লিপস্টিক লাগালে সবচেয়ে ভালো ফল পাওয়া যাবে।
১. লিপস্টিক লাগানোর আগে প্রথমেই ঠোঁট এক্সফলিয়েট করে নিতে হবে। এতে করে ঠোঁটের মরা চামড়া ঝরে পড়বে। ঠোঁটে রক্তসঞ্চালন বৃদ্ধি পেয়ে ঠোঁট হয়ে উঠবে তরতাজা ও কোমল। ঠোঁট ভালোভাবে ভিজিয়ে নরম কাপড় দিয়ে হালকাভাবে ঘষে নিতে পারেন অথবা লিপস্ক্র্যাব দিয়ে ঠোঁট এক্সফলিয়েট করতে পারেন। নারকেল তেল ও চিনি মিশিয়ে খুব সহজেই একটি লিপস্ক্র্যাব ঘরে বানিয়ে নিতে পারেন।
২. স্ক্র্যাব করার পর ঠোঁট আলতো করে মুছে লিপবাম লাগান। এতে করেআপনার ঠোঁট শুধু নরম কোমলই হবে না, লিপস্টিকও সুন্দর করে ঠোঁটে বসবে। কিছুক্ষণের জন্য লিপবাম ঠোঁটে রাখুন, তারপর টিস্যু দিয়ে আলতো করে চেপে লিপবাম তুলে ফেলুন। লিপবাম ঠোঁটে থাকলে লিপস্টিক তেলতেলে হয়ে আপনার ঠোঁটের চার পাশে ছড়িয়ে পড়বে।
৩. লিপস্টিক লাগানোর আগে ঠোঁটে ফাউন্ডেশন লাগিয়ে ঠোঁটকে লিপস্টিকের জন্য প্রস্তুত করতে হবে। এতে করে এক দিকে যেমন আপনি পাচ্ছেন লিপস্টিকের পারফেক্ট রঙ, অন্য দিকে আপনার ঠোঁটের লিপস্টিকের স্থায়িত্বও বৃদ্ধি পাচ্ছে।
৪. এবার লিপ লাইনার লাগিয়ে নিন। যদি ঠোঁট বেশি ভারী হয়, তাহলে ঠোঁটের কিছুটা অংশ ছেড়ে লাইনার লাগান। কন্সিলার দিয়ে ঠোঁটের আসল লাইন ঢেকে দিন। পাতলা ঠোঁট মোটা দেখানোর জন্য ঠোঁটের মাঝের অংশে ন্যাচারাল লাইনের একটু বাইরে থেকে লিপ লাইনার দিয়ে লাইন টানুন। ঠোঁটের দুই কোনার দিকে অবশ্যই ঠোঁটের আসল লাইনের সাথে মিলিয়ে নিন; দুই কোনার দিকে আসল লাইনের বাইরে যাবেন না।
লিপস্টিক তুলতে হবে যেভাবে
লিপস্টিক তোলার প্রথম ধাপ হলো লিপস্টিকের ওপর লিপবাম বা নারকেল তেল/আমন্ড তেল বা অলিভ অয়েল লাগান। টিস্যু দিয়ে হালকাভাবে চেপে লিপস্টিক তুলে ফেলুন। এবার আরেক পরত লিপবাম বা নারকেল তেল/আমন্ড তেল/অলিভ অয়েল/লোশন লাগান। আবার টিস্যু দিয়ে আলতো করে চেপে ঠোঁট মুছে ফেলুন। চাইলে আই মেকআপ রিমুভারও ব্যবহার করতে পারেন লিপস্টিক তোলার জন্য। এরপর ঠোঁট পানিতে ভিজিয়ে নরম একটি ভেজা কাপড় দিয়ে ঘষতে হবে যাতে বাকি লিপস্টিকও উঠে যায়। এবার ঠোঁট মুছে লিপবাম লাগান। মনে রাখবেন ঠোঁট কখনো জোড়ে ঘষা উচিত নয় বা ঠোঁটের মরা চামড়া ধরে টানাটানি করা উচিত নয়।

 


আরো সংবাদ


premium cement