০৫ এপ্রিল ২০২০

কমলালেবুর ভিন্নরূপ

-

কমলালেবুর ককটেইল

উপকরণ : ২ কাপ কমলালেবুর রস, আধা কাপ ক্যানবেরি জুস, ১ কাপ সেভেন আপ বা স্প্রাইট।
প্রণালী : সব উপকরণ একসাথে মিশিয়ে গ্লাসে ঢেলে ওপরে বরফ দিয়ে পরিবেশন করুন। ক্যানবেরি জুসের বদলে অন্য যেকোনো জুস ব্যবহার করতে পারেন।
কমলালেবু বাটার কেক

উপকরণ : ২৫০ গ্রাম মাখন, দেড় কাপ চিনি, ৫ টি বড় ডিম, ২ কাপ ময়দা, ২ চা চামচ বেকিং পাউডার, সিকি কাপ কমলালেবুর রস, ১ চা চামচ ভ্যানিলা এসেন্স, ১ চা চামচ কমলালেবুর এসেন্স, ৩ টেবিল চামচ কমলালেবুর খোসা কুচি,
প্রণালী : ওভেন ৩৫০ ডিগ্রি ফারেনহাইটে প্রিহিট করে নিন। ৯ ইঞ্চি বাই ১১ ইঞ্চির পাতলা কেক প্যানে মাখন ব্রাশ করুন। মাখন আর চিনি একসাথে ভালোভাবে বিট করুন। বিট করা হয়ে গেলে এতে একটি করে ডিম দিন আর বিট করুন। এভাবে ৫ বার ৫টি ডিম দিন। ভুলেও একসাথে সব ডিম দেয়া যাবে না। অন্য একটি পাত্রে ময়দা ও বেকিং পাউডার একসাথে বিট করুন। এবার এই ময়দা সেই মাখন, চিনি ও ডিমের মিশ্রণে অল্প অল্প করে দিয়ে বিট করতে থাকুন। এভাবে পুরো ময়দা মেশানো হয়ে গেলে এতে কমলালেবুর খোসা কুচি, কমলালেবুর রস, ভ্যানিলা এসেন্স ও কমলালেবুর এসেন্স দিয়ে দিন। ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটি কেক প্যানে বিছিয়ে দিন। এবার ৩৫০ ডিগ্রি ফারেনহাইটে বেক করুন ২৫ মিনিট। মাঝে মাঝে একটি টুথপিক মাঝ বরাবর ঢুকিয়ে দেখবেন, যদি একদম পরিষ্কার টুথপিক বের হয় তাহলে বুঝতে হবে কেক হয়ে গেছে। বের করে ঠাণ্ডা করে ওপরে আইসিং সুগার ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

কমলালেবুর চিজ পাই

উপকরণ : ক্রাস্টÑ আড়াই কাপ ময়দা, ১ কাপ মাখন (ফ্রিজে ঠাণ্ডা করে আধা ইঞ্চি সমান কিউব করে কাটা), সামান্য লবণ, ১ চা চামচ চিনি, ৬-৮ টেবিল চামচ বরফঠাণ্ডা পানি।
ফিলিংÑ দেড় কাপ চিনি, ১ টেবিল চামচ ময়দা, ১ টেবিল চামচ সুজি, সামান্য লবণ, সিকি কাপ গলানো মাখন, ২ চা চামচ কমলালেবুর খোসা মিহি কুচি, ১/৩ কাপ কমলালেবুর রস, ১ টেবিল চামচ লেবুর রস, ৪ টা ডিম ফেটে নেয়া।
প্রণালী : ওভেন ৪৫০ ডিগ্রি ফারেনহাইটে হিট করুন। ময়দা, চিনি ও লবণ ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। মাখন অর্ধেক পরিমাণ নিন। ময়দার মিশ্রণে ভালোভাবে মেশান। বিটার দিয়ে বিট করুন। এবার বাকি অর্ধেক মাখন দিয়ে আবারো খুব ভালোভাবে মেশান। এরপর এতে অল্প অল্প করে পানি মেশান। যখন দেখবেন এক চিমটি খামির নিলে তা একসাথে লেগে থাকছে, তখন বুঝবেন খামির তৈরি। এবার এগুলো দিয়ে হালকা হাতে ১২ ইঞ্চি মাপের একটি গোল রুটি বানান। এবার ৯ ইঞ্চি মাপের পাই প্লেটে এই রুটিটি বিছিয়ে নিন। চার দিকের অংশগুলো ভাঁজ হয়ে উপরের দিকে থাকবে। এবার কাঁটা চামচ দিয়ে পুরো ক্রাস্টটি কেচে দিন। ওভেনের তাপমাত্রা ৩৫০ ডিগ্রিতে কমিয়ে এতে ৮ মিনিট বেক করুন। বের করে ঠাণ্ডা করুন। এবার একটি পাত্রে ফিলিংয়ের সব উপকরণ একসাথে খুব ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এবার বেক করা ক্রাস্টের ভেতর এই ফিলিংটি বিছিয়ে দিন। ২০ মিনিট বেক করে হলে পাই ক্রাস্টের পাশের অংশ এলুমিনিয়াম ফয়েল দিয়ে ঢেকে দিলে তা বেশি পোড়া পোড়া হয়ে যাবে না। মোট ৪০-৪৫ মিনিট বেক করুন। তারপর বের করে ঠাণ্ডা করে পরিবেশন করুন।

কমলালেবু ও আদার জেলি

উপকরণ : ১৬টি কমলালেবু (খোসা ও বীজ ছাড়ানো), ৬ কাপ কমলালেবুর রস, ৬ কাপ আখের চিনি, ২ টুকরা ১ ইঞ্চি পরিমাণ আদার রস, ২ চা চামচ ভ্যানিলা এসেন্স, চায়না গ্রাস বা আগার আগার গুঁড়ো (১ লিটার জুসের জন্য ৪ টেবিল চামচ অনুপাতে)।
প্রণালী : আগার আগার গুঁড়ো ১ কাপ পানিতে ভিজিয়ে রাখুন, ভালোভাবে নেড়ে দিন। কমলালেবুর খোসা ছাড়িয়ে নিন, মিহি কুচি করে নিন। একটি সসপ্যানে কমলালেবু কুচি, কমলালেবুর রস, আদার রস, ও ভেজানো আগার আগার থেকে ২ টেবিল চামচ পরিমাণ নিয়ে একসাথে ভালোভাবে মেশান। মৃদু আঁচে জ্বাল দিন। অন্য একটি পাত্রে ৬ কাপ চিনির সাথে বাকি ভেজানো আগার আগার মিশিয়ে নিন। কমলালেবুর রস বলক এলে তা চুলা থেকে নামিয়ে নিন। এতে চিনি ও আগার আগারের মিশ্রণ দিয়ে ভালোভাবে নাড়তে থাকুন। ভালোভাবে মিশে গেলে এবার পাত্রটি আবার চুলায় দিন। বলক এলে নামিয়ে নিন। এতে ভ্যানিলা এসেন্স মেশান। এবার এটি ছেঁকে কাচের পাত্রে সংরক্ষণ করুন। পাত্রের মুখ ভালোভাবে বন্ধ করতে হবে। চাইলে না ছেঁকেও সংরক্ষণ করা যায়।

কমলালেবু ক্রিমসিকল মিমোসা

উপকরণ : ২ কাপ ঠাণ্ডা কমলালেবুর রস, ২ টেবিল চামচ ঠাণ্ডা হেভি ক্রিম, ২ চা চামচ চিনি, ২ কাপ ঠাণ্ডা সেভেন আপ বা স্প্রাইট।
প্রণালী : আধা কাপ স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানিতে চিনি গুলে তা কমলালেবুর রসের সাথে মেশান। একটি বড় জগে কমলালেবুর রস, হেভি ক্রিম মেশান। এবার গ্লাসের তিন ভাগের দুই ভাগ পর্যন্ত কমলালেবুর এই পানীয়টি ঢালুন। বাকি ১ ভাগে স্প্রাইট বা সেভেন আপ ঢালুন। সাথে সাথে পরিবেশন করুন। স্প্রাইট বা সেভেন আপ সরাসরি জগে কমলালেবুর রসের সাথেও মেশানো যায় কিন্তু সবচেয়ে ভালো হয় পরিবেশনের সময় গ্লাসে আগে কমলালেবুর রস ও তারপর স্প্রাইট বা সেভেন আপ মেশালে। এতে পানীয়টিতে সুন্দর বুদবুদ দেখা যায়।

অরেঞ্জ চিকেন

উপকরণ : মুরগির জন্যÑ ১ কেজি হাড়ছাড়া মুরগির গোশত (১ ইঞ্চি মাপের কিউব করে কাটা), ডিম ১টি, লবণ পরিমাণ মতো, সিকি চামচ গোলমরিচ গুঁড়া, ২ টেবিল চামচ তেল, আধা কাপ কর্নফ্লাওয়ার, সিকি কাপ ময়দা, ১ কাপ তেল (ভাজার জন্য)।
সসের জন্যÑ ১ টেবিল চামচ কর্নফ্লাওয়ার, সিকি কাপ পানি, ১ চা চামচ তিলের তেল, ৩ টেবিল চামচ সয়া সস,
১০ চা চামচ চিনি, ১০ টেবিল চামচ সাদা ভিনেগার, একটি কমলালেবুর খোসা মিহি কুচি।
ফিনিশিং এর জন্যÑ দেড় টেবিল চামচ আদা মিহি কুচি, ২ চা চামচ রসুন কুচি, আধা চা চামচ লাল মরিচ কুচি।
প্রণালী : সসের জন্য ১ টেবিল চামচ কর্নফ্লাওয়ার, তিলের তেল, সয়া সস, চিনি, ভিনেগার ও কমলালেবুর খোসা কুচি, কমলালেবুর রস আধা কাপ, ও পরিমাণ মতো পানি একসাথে মেশান। একপাশে রেখে দিন। অন্য একটি পাত্রে ডিম, লবণ, মরিচ একসাথে মেশান। অন্য আরেকটি পাত্রে কর্নফ্লাওয়ার ও ময়দা একসাথে মেশান। গোশতের টুকরো প্রথমে ডিমের মিশ্রণে চুবিয়ে তুলে পরে ময়দার মিশ্রণে গড়িয়ে নিন। বড় একটি ফ্রাইং প্যানে তেল গরম করুন। মুরগির টুকরোগুলো মচমচে ও সোনালি করে ভেজে নিন। এবার অন্য একটি ফ্রাইং প্যানে ১ টেবিল চামচ তেল দিয়ে এতে আদা কুচি, রসুন কুচি, ও লাল মরিচ কুচি দিয়ে ১০ সেকেন্ড ভাজুন। এবার এতে অরেঞ্জ সস বানানোর জন্য প্রথমেই যে উপকরণগুলো রাখা হয়েছিল তা এখানে দিয়ে দিন। মাঝারি আঁচে জ্বাল দিন। নাড়তে থাকুন। ঘন হয়ে সসের মোট হয়ে গেলে চুলা বন্ধ করে এতে ভাজা মুরগির টুকরাগুলো দিয়ে মিশিয়ে নিন। সাথে সাথে পরিবেশন করুন। দেরিতে পরিবেশন করলে মুরগি মচমচে থাকবে না। তাই যখন পরিবেশন করবেন তার ঠিক আগমুহূর্তে সসের মধ্যে ভাজা মুরগির টুকরাগুলো মেশাতে হবে।

 


আরো সংবাদ

পটুয়াখালীতে পৃথক স্থানে বজ্রপাতে তিন জনের মৃত্যু রাজবাড়ীতে সড়ক দুর্ঘটনায় এক নারী নিহত, আহত ৬ করোনাভেইরাস: ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে আইনজীবী গ্রেফতার যার যতটুকু সামর্থ্য আছে, তা নিয়েই অসহায়দের পাশে দাঁড়ান : সোহেল কর্মহীনদের বাড়ি বাড়ি ত্রাণ পৌঁছে দিবে পুলিশ ধামরাইয়ে ৪ জনের নমুনা সংগ্রহ, ১০১ জন হোম কোয়ারেন্টিনে গার্মেন্টস খুলে দিয়ে নতুন বিপর্যয় সৃষ্টি করা হলো : ইসলামী আন্দোলন রাজধানীর মিরপুর ও বাসাবোতে করোনা রোগী বেশি : আইইডিসিআর করোনা ঠেকাতে ৩০০ বাড়িতে নিম পাতার প্রতিরোধ পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ঢাকা ত্যাগ বা প্রবেশ নয় : পুলিশ আড়াইহাজারে ট্রাক উল্টে রিকশাচালক নিহত

সকল