৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

আলমারির গোছগাছ

-

দৈনন্দিন জীবনে পর্যাপ্ত পোশাক আশাক ও এক্সেসরিজ প্রয়োজন হয় সবার। আবার সবার সমস্যাও একটিই। পোশাক আশাক ও এক্সেসরিজ রাখার জন্য যথেষ্ট জায়গা নেই আলমারিতে। আপনার হয়তো ধারণাই নেই যে, আপনার ঘরে যে আলমারিটি আছে, তাতেই আপনার প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র গুছিয়ে রাখতে পারবেন সুন্দর করে, দরকার শুধু একটু মাথা খাটানোর।
প্রথমেই আসি ড্রয়ার প্রসঙ্গে। ড্রয়ারে আমরা কাপড় ভাঁজ করে একটির ওপর আরেকটি রাখি, যা সম্পূর্ণ ভুল পদ্ধতি। এতে পছন্দের কাপড় বের করতে গেলে খোঁজাখুঁজি করতে হয়, ওপরের কাপড় বের করে তার পর নিচ থেকে পছন্দের কাপড় বের করতে হয়। ফলে ড্রয়ারভর্তি সব কাপড় এলোমেলো হয়ে যায়। কাপড়গুলো ওপর নিচে না রেখে পাশাপাশি রেখে দেখুন। এতে আপনি ড্রয়ারে কী কী কাপড় রাখা আছে দেখার জন্য ওপরের কাপড় বের করতে হবে না।
ছোট ছোট কাপড় যেমন টিশার্ট, হিজাব, ইনারওয়ার ইত্যাদি রাখার জন্য ড্রয়ারের ভেতর শক্ত কাগজ দিয়ে চারকোণা খোপ খোপ বানিয়ে নিন। এবার প্রতিটি কাপড় লম্বালম্বি ভাঁজ করে রোল করে নিন। একেকটি খোপে একেকটি কাপড় রাখুন। সব কাপড় সহজেই জায়গা হবে এবং খোঁজাখুঁজির ঝামেলা থেকে আপনি বেঁচে যাবেন।
হ্যাঙ্গার দিয়ে কাপড় ঝুলিয়ে আলমারিতে রাখলে কাপড়গুলোর নিচে কিছু জায়গা বেঁচে যায়। এই জায়গা অনায়াসে ব্যবহার করা যায় জুতো বা ব্যাগ রাখার জন্য।
আলমারিতে বড় বড় তাক থাকলে অনেক কাপড় ভাঁজ করে রাখা যায় বটে, কিন্তু সেগুলো খুব সহজে এলোমেলো হয়ে যায়। এক সারির কাপড়ের সাথে অন্য সারির কাপড় গায়ে গায়ে লেগে থাকার ফলে টান লেগে ভাঁজ নষ্ট হয়ে যায়। এ সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায় হলো ঝুড়ি ব্যবহার করা। তাকের মাপ অনুযায়ী অনেক বেতের বা প্লাস্টিকের ঝুড়ি কিনে নিন। এবার প্রতিটি ঝুড়িতে কাপড় বা এক্সেসরিজ যা খুশি রাখুন। বেশি জিনিস জায়গা হবে, সহজে এলোমেলোও হবে না।


আরো সংবাদ

আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ আইসিইউতে ‘হাতিরঝিল থেকে উত্তরা পর্যন্ত ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট চালুর প্রকল্প নেয়া হয়েছে’ প্রবাসী শ্রমিকদের স্বার্থ সহানুভূতির সাথে বিবেচনার আহ্বান তাহলে আদভানি-জোশীরা সেদিন মঞ্চে মিষ্টি বিলি করছিলেন কেন, প্রশ্ন আসাদউদ্দিন ওয়াইসির জালিয়াতি করে জামিন, ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করার নির্দেশ হাইকোর্টের আইসিডিডিআর,বির প্রথম বাংলাদেশী নির্বাহী পরিচালক ড. তাহমিদ স্বাস্থ্যের দুর্নীতি বন্ধে দুদকের সুপারিশ বাস্তবায়নের অগ্রগতি জানতে চায় হাইকোর্ট দশ দিনে ভারতে গেল ৮০৫ মেট্রিক টন ইলিশ ফেনীতে ৩ বছরের শিশু ধর্ষিত বোয়ালখালীতে এইচএসসি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা সিলেটে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টামামলায় গ্রেফতার ৩

সকল

সুবিধাজনক অবস্থায় আজারবাইজান, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির শিকার আর্মেনিয়রা (১৯২৯১)আর্মেনিয়ান রেজিমেন্ট ধ্বংস করলো আজারবাইজান, শীর্ষ কমান্ডারের মৃত্যু (১৪১০৪)আর্মেনিয়া-আজারবাইজান তুমুল যুদ্ধ, নিহত বেড়ে ৯৫ (১৩০২৮)আজারবাইজানের সাথে যুদ্ধ : ইরান দিয়ে আর্মেনিয়ার অস্ত্র বহনের অভিযোগ সম্পর্কে যা বলছে তেহরান (৭৪২৯)স্বামীকে খুঁজতে এসে সন্তানের সামনে ধর্ষণের শিকার মা (৭২৯২)আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার যুদ্ধের মর্টার এসে পড়লো ইরানে (৭২১৭)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : স্বামীর কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে ধর্ষকরা (৬৪১৯)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : সাইফুরের যত অপকর্ম (৫৯৮৯)‘তুরস্ককে আবার আর্মেনীয়দের ওপর গণহত্যা চালাতে দেয়া হবে না’ (৫৬২১)আর্মেনিয়া এবং আজারবাইজান দ্বন্দ্ব: কোন দেশের সামরিক শক্তি কেমন? (৫৪৩৫)