২৮ জুলাই ২০২১
`

ভেঙ্গে পড়তে চলেছে চীনা রকেটের ১০০ ফুট লম্বা ভিতরের অংশ

গত ২৯ এপ্রিল লং মার্চ ৫বি রকেটের উৎক্ষেপণ করেছিল চীনা মহাকাশ গবেষণা সংস্থা। - ছবি : সংগৃহীত

একেবারেই অনিয়ন্ত্রিত গতিতে পৃথিবীর দিক ছুটে আসছে চীনের বৃহত্তম রকেটের ১০০ ফুট লম্বা মূল অভ্যন্তরীণ অংশটি (‘কোর’)। তা কয়েকদিনের মধ্যে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে ভেঙ্গে পড়তে পারে, আবারো বায়ুমণ্ডলে ঢুকে (‘রি-এন্ট্রি’) পড়ার পর। মহাকাশ গবেষণা সংক্রান্ত নিউজপোর্টাল ‘স্পেসনি‌উজ’ এই খবর দিয়েছে।

চীনের বানানো এই বৃহত্তম রকেটটির নাম- ‘লং মার্চ ৫বি রকেট’। মহাকাশে খুব গুরুত্বপূর্ণ অভিযানের জন্যই এই শক্তিশালী রকেট বানিয়েছে চীনা মহাকাশ গবেষণা সংস্থা। পৃথিবীর কক্ষপথে নিজের দেশের একটি মহাকাশ স্টেশন বানাতে চলেছে চীন। প্রকল্পের নাম- ‘তিয়ানহে মহাকাশ স্টেশন’। তা উৎক্ষেপণের জন্য কিছু দিন ধরেই প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন। ওই মহাকাশ স্টেশনের একটি ‘মডিউল’ (অংশ) পরীক্ষামূলক ভাবে পৃথিবীর কক্ষপথে পাঠাতে গত ২৯ এপ্রিল লং মার্চ ৫বি রকেটের উৎক্ষেপণ করেছিল চীনা মহাকাশ গবেষণা সংস্থা।

মহাকাশ গবেষণা সংক্রান্ত নিউজপোর্টাল ‘স্পেসনি‌উজ’ জানাচ্ছে, চীনা রকেটটি সফল ভাবে মহাকাশ স্টেশনের ‘মডিউল’টিকে কক্ষপথে স্থাপন করতে পারলেও নিজেকে আর গ্রাউন্ড স্টেশনের নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেনি। ঘুরে চলেছে পৃথিবীর কক্ষপথে। তবে তার ভিতরের ১০০ ফুট লম্বা (৩০ মিটার) অংশটি রকেট থেকে আলাদা হয়ে পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে কয়েকদিনের মধ্যেই ঢুকে পড়তে চলেছে। রাডারে তা ধরাও পড়েছে।

অংশটি এখন ভূপৃষ্ঠের ১০৬ মাইল থেকে ২৩১ মাইল উচ্চতার মধ্যে ওঠা-নামা করছে। যেকোনো মুহূর্তে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে তা ভেঙ্গে পড়তে পারে, বায়ুমণ্ডলে ঢোকার পর।

যেহেতু তার উপর আর কোনো নিয়ন্ত্রণই নেই চীনা মহাকাশ গবেষণা সংস্থার গ্রাউন্ড স্টেশনের। তাই আতঙ্ক এখন পৃথিবীর সর্বত্র।



আরো সংবাদ