১১ আগস্ট ২০২২
`

১৪ ভাষায় হজের অডিও নির্দেশিকা, বাংলায় কণ্ঠ দিলেন এই সৌভাগ্যবান তরুণ

১৪ ভাষায় হজের অডিও নির্দেশিকা, বাংলায় কণ্ঠ দিলেন এই সৌভাগ্যবান তরুণ। - ছবি : সংগৃহীত

বিদেশী হাজিদের হজ পালন সহজ করতে এ বছর বাংলাসহ বিশ্বের বহুল প্রচলিত সর্বমোট ১৪টি ভাষায় হজ নির্দেশিকার অডিও ভার্সন চালু করেছে সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়। বাংলা ভাষার ১৩টি অডিও ফাইলে কণ্ঠ দিয়েছেন তরুণ আলেম মাওলানা ওয়াসিম হাফিজ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়া দিগন্তকে ওয়াসিম হাফিজ নিজেই এ কথা নিশ্চিত করেন। তিনি বললেন, আলহামদুলিল্লাহ! আল্লাহর রহমতে আমি কাজটি করার সুযোগ পেয়েছি। এজন্য সবচেয়ে বেশি কৃতজ্ঞতা জানাই মাওলানা মিযান হারুনের প্রতি, যিনি এটির সুযোগ করে দিয়েছেন আমাকে। তিনিই মূল আরবি থেকে নির্দেশিকার বাংলা অনুবাদের কাজটি করেছেন খুব সুন্দরকরে।

মাওলানা ওয়াসিম হাফিজ দেশের প্রখ্যাত ইসলামী বিদ্যাপীঠ আল জামিয়া আল ইসলামিয়ার (পাটিয়া মাদরাসা) উলুমুল হাদিস বিভাগের শিক্ষার্থী। তার বাড়ি চট্টগ্রামের বাঁশখালী থানার সরল গ্রামে। বর্তমানে ঢাকার আশুলিয়ায় থাকেন। বাবার নাম মাওলানা আব্দুল আলীম নিজামী। যিনি আল্লামা শাহ আহমদ শফি রহ:-এর খলিফা।

কিভাবে তিনি এই সৌভাগ্য অর্জন করলেন- এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে ওয়াসিম হাফিজ জানান, এর অনুবাদক প্রখ্যাত আরবি ভাষাবিদ মাওলানা মিযান হারুন জুনের শুরুর দিকে তাকে এই কাজের প্রস্তাব দেন। পরে তাতে রাজি হয়ে নমুনা ভয়েস পাঠান তিনি। অতপর মন্ত্রণালয় কর্তৃপক্ষ বাংলা অডিও নির্দেশিকার জন্য তার কণ্ঠ নির্বাচন করেন।

তিনি বলেন, ‘তারপর খুবই অল্প সময়ের মধ্যে ১৩টি ফাইলের ভয়েস ওভার তৈরি করে সেগুলো সম্পাদনা করে পাঠাতে হয়। যা ছিল আমার জন্য খুব চ্যলেঞ্জিং; এর জন্য কয়েক রাত নির্ঘুম কেটেছে। এর ক’দিন পর দেখি- তারা আমার অডিওগুলো তাদের ওয়েবসাইটে পাবলিশ করেছে। আমার ভয়েস যখন তাদের ওয়েবসাইটে দেখতে পেলাম, তখন এত খুশি হয়েছি যে, ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। সত্যি বলতে এ দিনটি ছিল আমার জীবনের অন্যতম সেরা দিন।’

এই তরুণ আলেমকে আল্লাহ যেন সারাটা জীবন এরকম ভালো কাজে নিজেকে জড়িয়ে রাখেন- সেজন্য সবার দোয়া চেয়েছেন তিনি।

ওয়াসিম হাফিজ বাংলাদেশের অন্যতম সেরা বিদ্যাপীঠ জামিয়া ইসলামিয়া পটিয়া থেকে ২০২১ সালে দাওরা ফারেগ হন, এবং কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড আল হাইয়াতুল উলয়ায় ৬ষ্ঠ স্থান অর্জন করেন। এর আগে তিনি মাদানি নেসাবের অন্যতম দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান উত্তরার জামিয়া আরাবিয়া বাইতুস সালামে (বাইতুস সালাম মাদরাসা) অতঃপর জামিয়াতুল উলুমিল ইসলামিয়ায় কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখেন।

এরকম কাজ এটিই তার প্রথম নয়; এর আগেও আরবি ভাষায় বাংলাদেশী আলেমদের নিয়ে ডকুমেন্টারি তৈরি করে ব্যাপক সাড়া জাগান মাওলানা ওয়াসিম হাফিজ। এরই সুবাদে তার হাতে এই বরকতময় কাজটি আসে। তবে তার এই কৃতিত্বের পেছনে তার শৈশবের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বাইতুস সালাম মাদরাসার সবচেয়ে বেশি অবদান দেখেন তিনি। মাওলানা বলেন, আমি এ অর্জন উৎসর্গ করছি আমার প্রিয় বাইতুস সালাম মাদরাসার প্রতি।

বাংলায় অডিও নির্দেশিকা শুনতে এখানে ক্লিক করুন


আরো সংবাদ


premium cement