০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

টাকা দিয়ে আমি নেশা করবো বলেই মসজিদ সভাপতি- সম্পাদকের ওপর হামলা

টাকা দিয়ে আমি নেশা করবো বলেই মসজিদ সভাপতি- সম্পাদকের ওপর হামলা - ছবি : সংগৃহীত

‘আমরা টাকা দিয়ে আমি নেশা খাবো, ছিনতাই করবো এতে কেউ কিছু বলতে পারবে না। কেউ কিছু বলতে এলে ঘাড় থেকে গলা নামিয়ে দেবো। আমরা যাই করি আমাদের কেউ কিছু বলতে পারবে না। কিছু বললে লাশ বানিয়ে ব্রিজের নিচে পুতে দেবো-’ এই দম্ভোক্তি শহরের ইসলামবাগ লাইনপার এলাকার মো: মিন্টু, নুর হোসেন নুরা ও শরীফুল ইসলামসহ কতিপয় সন্ত্রাসীদের।

গত শুক্রবার সকালে ইসলামবাগ মসজিদ থেকে রেললাইনের ধার দিয়ে ফুলবাড়ি বাসস্ট্যান্ডে যাওয়ার পথে ইসলামবাগ জামে মসজিদ কমিটির কয়েকজনের উপর সন্ত্রাসী হামলার সময় চিৎকার করে কথাগুলো বলে সন্ত্রাসীরা। এ সময় সন্ত্রাসীদের উপর্যুপরি হামলায় ৪ জন গুরুতর আহত হয়।

আহতরা হলেন- ইসলামবাগ জামে মসজিদের সভাপতি কাজী বরকতুল্লাহ ডালিম, সাধারণ সম্পাদক কাজী সেলিম উল্লাহ, সহ-সাধারণ সম্পাদক আরিফুল হক ও রেজাউল করিম। আহতদের মধ্যে আরিফুল হকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। দিনাজপুর জিয়া হার্ট ফাউন্ডেশনে তিনি জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন। এ ঘটনায় মসজিদ কমিটির সভাপতি কাজী বরকতুল্লাহ ডালিম দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। এতে ১০ জনের নাম উল্লেখসহ আরো অজ্ঞাত ১০ থেকে ১৫ জনকে আসামি করা হয়েছে।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, ইসলামবাগ এলাকার সন্ত্রাসী মিন্টুসহ তার সহযোগীরা দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে। তারা মসজিদের আগত মুসল্লিসহ সাধারণ পথচারীদের টাকা-পয়সা, মোবাইল সেট ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপকর্ম ও মাদক দ্রব্যের ব্যবসার সাথে জড়িত। গত শুক্রবার ইসলামবাগ জামে মসজিদ কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ কমিটির কয়েকজন সদস্য রেললাইনের ধার দিয়ে ফুলবাড়ী বাসস্ট্যান্ড যাচ্ছিলেন। এ সময় সন্ত্রাসীরা রেললাইনের পাশে বসে ছিল এবং একপর্যায়ে মসজিদ কমিটির সদস্যদের পথ রোধ করে। এর মধ্যে কয়েকজন রেলের পাথর দিয়ে ঢিল ছুঁড়তে থাকে। কমিটির সদস্যরা তাদের এহেন কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ করে। কিন্তু তারা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে মুহূর্তেই হাক-ডাক দিয়ে আরো সন্ত্রাসী একত্রিত হয়। তারা ধারালো ছুরি, দা, হাঁসুয়া, চাইনিজ কুড়াল, চাপাতি এবং লোহার রডসহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মসজিদ কমিটির উপর উপর্যপুরী হামলা চালায়। সর্বমোট তাদের হামলায় গুরুতর আহত হয় ৪ জন। তাদেরকে এলাকাবাসী উদ্ধার করে দিনাজপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক দ্রুত তাদের দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেন। সেখানে নিয়ে যাওয়া হলে ৩ জনকে ভর্তি করা হয়। অপর গুরুতর আহত আরিফুল হককে আশঙ্কাজনক অবস্থায় দিনাজপুর জিয়া হার্ট ফাউন্ডেশনের আইসিইউতে নেয়া হয়। গলায় আঘাতের ফলে তার ৪টা ভেইন কেটে যায়। প্রচণ্ড রক্তপাত হয়। তিনি ডাক্তারদের সরাসরি পর্যবেক্ষণে আছেন। এ ঘটনার পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।


আরো সংবাদ


premium cement