২২ মে ২০২২
`

মসজিদে মল রেখে নামাজে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির অভিযোগ


কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে রাতের আঁধারে একটি ওয়াক্তিয়া নামাজের মসজিদের মেঝে, বারান্দা ও দরজায় মানুষের মল রেখে মুসল্লিদের নামাজ আদায়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলার পাইকেরছড়া ইউনিয়নের বেলদহ মুন্সীপাড়া গ্রামের আবু বক্কর ছিদ্দিকের দানকৃত জমিতে ২০১৯ সালে বেলদহ মুন্সীপাড়ায় নির্মিত মসজিদে এ ঘটনা ঘটে।

মসজিদটিতে জুম্মার নামাজ ব্যতীত পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করেন ওই এলাকার মুসল্লিরা। মসজিদটিতে সকাল বেলা শিশুদের কোরআন শিক্ষা দেয়া হয়।

মসজিদে মল রাখার ঘটনাগুলো মুসল্লিদের পক্ষ থেকে ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশসহ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যকে অবহিত করা হয়েছে। মসজিদে বারবার মানুষের মল রাখার ঘটনা মুসল্লিদের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

মুসল্লিদের ধারণা, পূর্ব শত্রুতার জেরে কেউ এই নোংরা কাজ করে নামাজ আদায়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে।

মসজিদ কমিটির সদস্য আতাউর রহমান জানান, ‘প্রায় মাস খানেক আগে প্রথমবার রাতের আঁধারে কে বা কারা মসজিদে মানুষের মল রেখে যায়। এরপর আরো তিনবার মসজিদে মল রেখে নামাজ আদায়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হয়েছে। সবশেষ গতকাল শনিবার ভোররাতে কে বা কারা আবারো মসজিদের দরজায় মানুষের মল মাখিয়ে রেখে যায়।’

সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হারুন-অর-রশীদ জানান, ‘প্রত্যক্ষদর্শীর অভাবে মল রাখার বিচার করা সম্ভব হয়নি। আগামী শুক্রবার বিষয়টি নিয়ে মসজিদে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

ভূরুঙ্গামারী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজাহার আলী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ‘বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। জড়িতদের সনাক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’


আরো সংবাদ


premium cement