১৯ এপ্রিল ২০২১
`

যুবক আটকের পর মায়ের ইন্তেকাল, জানাজার সময় নবজাতকের মৃত্যু

যুবক আটকের পর মায়ের ইন্তেকাল, জানাজার সময় নবজাতকের মৃত্যু -

তাস খেলতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হন ৩৫ বছরের যুবক আব্দুল কুদ্দুস। ছেলে আটকের খবর পেয়ে দীর্ঘ দিন দুরারোগ্য রোগে সজ্জাশায়ী মা মারা যান। বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশ ওই যুবককে শুক্রবার রাতেই ছেড়ে দেয় থানা থেকে। বাড়িতে ফিরে শনিবার সকালে মায়ের দাফন কাফনের কাজ করার মধ্যেই মারা যায় আব্দুল কুদ্দুসের তিন দিনের নবজাতক ছেলে জিসান।

এ ঘটনাটি কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার পশ্চিম ফুলমতি গ্রামের। কুদ্দুসের আটক ও পরিবারটিতে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে দু’জনের মৃত্যুতে শোকের মাতম চলছে। প্রতিবেশীরাও এমন ঘটনায় বাকরুদ্ধ।

স্থানীয় ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলাম জানান, শুক্রবার শেষ বিকেলে ফুলবাড়ী থানার পুলিশ পশ্চিম ফুলমতি এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাসের আড্ডা থেকে আব্দুল কুদ্দুসসহ সাতজনকে আটক করে। পুলিশের হাতে ছেলে আটক হওয়ার খবর শুনে কুদ্দুসের অসুস্থ মা কুলসুম বেওয়া (৬০) বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েন। একপর্যায়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি মারা যান। পরে মানবিক কারণে পুলিশ আটক কুদ্দুসকে ছেড়ে দেয়। রাতে বাড়ি ফিরে তিনি শনিবার সকালে মৃত মায়ের লাশ দাফনের প্রস্তুতির নিচ্ছিলেন। এমন সময় মারা যায় তার তিন দিনের সন্তান জিসান।

কয়েক ঘণ্টার মধ্যে দাদি ও নাতির মৃত্যুতে পরিবারটিতে শোকের ছায়া নেমে আসে। হৃদয়বিদারক এ ঘটনায় উপস্থিত প্রতিবেশীরাও বাকরুদ্ধ। পরে শনিবার দুপুর ১২টার দিকে পারিবারিক কবরস্থানে মৃতদের লাশ দাফন করা হয়।

ফুলবাড়ী থানার ওসি রাজিব কুমার রায় জানান, আটক ওই ব্যক্তির মা মারা যাওয়ায় মানবিক কারণে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। আটক অন্যদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।



আরো সংবাদ