২৬ অক্টোবর ২০২০

ফুলবাড়ীতে হারিয়ে যাচ্ছে বাঁশ শিল্প

ফুলবাড়ীতে হারিয়ে যাচ্ছে বাঁশ শিল্প - নয়া দিগন্ত

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহি বাঁশ শিল্প। এক সময় গ্রামের গৃহস্থালী কাজে বাঁশ ও বেতের তৈরী আসবাবপত্রের ব্যাপক ব্যবহার থাকলেও বর্তমানে আধুনিক সমাজে এর ব্যবহার একেবারেই কমে গেছে। এজন্য বাজারে বাঁশ ও বেতের তৈরী আসবাবপত্রের চাহিদা না থাকায় হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহি বাঁশ ও বেত শিল্প।

বাঁশ ও বেত শিল্পিরা জীবিকা নির্বাহের জন্য তারা বাব-দাদার আদিপেশা ছেড়ে দিয়ে এখন নতুন পেশায় ধাপিত হচ্ছে। এখনও যারা পূর্ব পুরুষের রেখে যাওয়া আদিপেশা ধরে রয়েছেন তাদের জীবিকা চলে কোনো রকমে।

গতকাল রোববার উপজেলার দণিবাসুদেবপুর মহালিপাড়ায় গিয়ে দেখা যায় এই গ্রামে এক সময় শতাধিক পরিবার এই পেশার সঙ্গে জড়িত থাকলেও এখন হাতে গোনা কয়েকজন মাত্র এই পেশাটি ধরে রেখেছেন। মহলিপাড়ার বাসিন্দা বাঁশ শিল্পি ৫০ উর্দ্ধে বয়সী কেদার দত্ত জানায় আগে এই শিল্পের বেশ কদর ছিল। এখন কেউ আর গৃহস্থালী কাজে বাঁশের তৈরী জিনিসপত্র ব্যবহার করে না। এজন্য এই গ্রামে আনেক বাঁশ শিল্পিরা পূর্বপুরুষের পেশা ছেড়ে বিভিন্ন কাজে চলে গেলেও এখনো তিনি আকড়ে ধরে আছেন বাব-দাদার এই আদি পেশাটি।

তিনি বলেন, এখন বাঁশের মূল্য অনেক বেশি হলেও বাঁশের তৈরি জিনিসপত্রের মূল্য নাই। তাই এই পেশায় থেকে জীবিকা নির্বাহ করা দুঃসাধ্য হয়ে পরেছে। একই কথা বলেন, বাঁশ শিল্পি গৌতম তার বয়স হালকা হলেও আদিপুরুষের এই শিল্পকাজটি বেশ আয়ত্ব করেছেন কিন্তু সমাজে এই শিল্পের কদর নাই। একই কথা বলেন, কিরন সরকার, মালতী রানীসহ কয়েকজন বাঁশ শিল্পিরা।


আরো সংবাদ