২৬ অক্টোবর ২০২০

বালিয়াডাঙ্গী সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশী ব্যবসায়ী নিহত

বালিয়াডাঙ্গী সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশী ব্যবসায়ী নিহত - সংগৃহীত

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার কোটপাড়া সীমান্তের ওপারের ভারতীয় উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুর থানার সোনামতি ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যর গুলিতে আব্দুল ওরফে আদু (৩২) নামের এক বাংলাদেশী ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে।

বিজিবি ও এলাকাবাসীদের সূত্রে জানা গেছে, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৭ নং আমজানখোর ইউনিয়নের জুগিরহাড় গ্রামের এজাবুল হকের ছেলে আব্দুল ওরফে আদুসহ কয়েকজন ব্যবসায়ী মিলে শুক্রবার ভোররাতে কোটপাড়া সীমান্তের ৩৮২/২ সাব পিলারের অদুরে নাগর নদীর ধারে গরু কিনতে যান। ওই সময় ভারতীয় উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুর থানার সোনামতি ক্যাম্পের বিএসএফ জওয়ানরা বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের লক্ষ্য করে এলোপাথারীভাবে কয়েক রাউন্ট গুলি ছুড়তে থাকে এতে ব্যবসায়ী আব্দুল ওরফে আদু গুলিবৃদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে বিএসএফ সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে তার লাশ টেঁনে হিচড়ে ওপারে তাদের ক্যাম্পে নিয়ে যায়।

স্থানীয় আমজানখোর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আকালু মোহাম্মদ জানান, এলাকাবাসীদের তথ্যমতে ও পারিবারিকভাবে নিহতের ঘটনাটি নিশ্চিত হওয়া যায়। এঘটনায় সীমান্ত এলাকায় উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হলেও বিজিবি পক্ষে থেকে পত্র প্রদানের মাধ্যমে কোন প্রতিবাদ জানানো হয়নি।

এ ব্যাপারে ঠাকুরগাঁও ৫০ বিজিবি ব্যাটেলিয়ানের অধিনস্ত পাড়িয়া কোম্পানীর সদর দপ্তর ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার নায়েক সুবেদার জিন্নাতুল শেখের নিকট মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি ঘটনাটি অস্বীকার করলেও এলাকাবাসী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

উল্লেখ্য যে, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বেউরঝাড়ী সীমান্তের ওপারের ভারতীয় গোয়ালপুকুর থানার নটুয়াটলী ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যর গুলিতে সরিফুল ইসলাম অরফে খাটো (৩৫) নামের এক বাংলাদেশী জেলে নিহত হয়েছে।

বিজিবি ও এলাকাবাসীদের সূত্রে জানা গেছে, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৭ নং আমজানখোর ইউনিয়নের চড়ুইগতি উত্তর গ্রামের মরহুম আব্দুল হকের ছেলে খুটা মোহাম্মদসহ কয়েকজন জেলে মিলে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় বেউরঝাড়ী সীমান্তের ৩৮০/৮ সাব পিলারের অদুরে নাগর নদীতে মাছ ধরতে থাকলে এসময় ভারতীয় উত্তর দিনাজপুরের গোয়ালপুকুর থানার নটুয়াটলী ক্যাম্পের বিএসএফ জওয়ানরা বাংলাদেশী জেলেদের লক্ষ করে এলোপাথারীভাবে কয়েক রাউন্ট গুলি ছুড়তে থাকে এতে জেলে খুটা মোহাম্মদ গুলিবৃদ্ধ হয়ে মারা যায়। সংবাদ পেয়ে স্থানীয় থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

স্থানীয় আমজানখোর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আকালু মোহাম্মদ জানান, এলাকাবাসীদের তথ্য মতে পারিবারীকভাবে নিহতের ঘটনাটি নিশ্চিত হওয়ার পর কাঠু মোহাম্মদের লাশের সন্ধান পাওয়ার পর বেউরঝাড়ী ক্যাম্পের বিজিবি পত্র প্রদানের মাধ্যমে নটুয়াটোলী ক্যাম্পের বিএসএফকে তীব্র প্রতিবাদ জানায়।

পরে উভয় দেশের কোম্পানী কমান্ডার পর্যায়ে সীমান্তের জিরো লাইনে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বিএসএফ এর পক্ষ থেকে কোন সিদ্ধান্ত ছাড়া পতাকা বৈঠক শেষ হয়।

এব্যাপারে বালিয়াডাঙ্গী থানার অফিসার ইনচার্জ হাবিবুর রহমান প্রধান জানান, নিহতের লাশ ঘটনাস্থল হইতে উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঠাকুরগাঁও মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।


আরো সংবাদ