০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯, ১৫ রজব ১৪৪৪
ads
`

তাড়াশে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৯ মেম্বারের লিখিত অভিযোগ

তাড়াশে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৯ মেম্বারের লিখিত অভিযোগ - ছবি : নয়া দিগন্ত

সিরাজগঞ্জের তাড়াশের মাধাইনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান হাবিলুর রহমান হাবিবের বিরুদ্ধে এলজিএসপি, ৪০ দিনের কর্মসূচি, দরিদ্রদের মাঝে ভিজিডির কার্ড দেয়ার নামে অর্থ আদায়সহ ইউপি সদস্য এবং সেবা প্রত্যাশীদের সাথে অসদাচারণের অভিযোগ উঠেছে।

এসব ঘটনার প্রতিকার চেয়ে ওই ইউনিয়নের নয়জন নির্বাচিত ইউপি সদস্য গতকাল সোমবার তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো: মেজবাউল করিম বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৭ নম্বর মাধাইনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: হাবিলুর রহমান হাবিব নির্বাচিত হওয়ার পর শপথ নিয়েই আর্থিকসহ নানা অপকর্মে জড়িয়ে পড়েছেন। বিশেষ করে ইউনিয়নের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে অর্থ লোপাট ও টাকার বিনিময়ে সরকারি সহযোগিতার কার্ড বিক্রির অভিযোগও তার বিরুদ্ধে রয়েছে। লিখিত অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, ইউনিয়ন পরিষদের বরাদ্দকৃত টিআর, কাবিখার অধিকাংশ টাকা কাজ না করেই তিনি আত্মসাৎ করেছেন।

এ ছাড়া এলজিএসপির বরাদ্দকৃত টাকা ইউপি সদস্যদের সাথে পরামর্শ না করে নিজের ইচ্ছামতো নাম মাত্র কাজ করে বেশির ভাগ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। পাশাপাশি চলমান অতিদরিদ্রদের কর্মসংস্থান কর্মসূচি (ইজিপিপি) প্রকল্পের কাজ দেয়ার নাম করে শ্রমিকদের কাছ থেকে চার হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকা অগ্রিম ঘুষ আদায় করেছেন। এমন অভিযোগও তার বিরুদ্ধে রয়েছে।

আবার তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, ভিজিডি কার্ড দেবার নামে দরিদ্রদের কাছে তার ঘনিষ্ট লোকদের মাধ্যমে কার্ড প্রতি পাঁচ হাজার টাকা করে আদায় করে নিয়েছেন। আর ভিজিডির কার্ড বিতরণে সকল ইউপি সদস্যদের বাদ দিয়ে তিনি নিজেই টাকার বিনিময়ে কার্ডধারীদের নির্বাচিত করছেন।

এতে নয়জন সদস্য প্রতিবাদ জানিয়ে ওয়ার্ড প্রতি ভিজিডির কার্ড ইউপি সদস্যদের মাধ্যমে দরিদ্রদের চিহ্নিত করে তা বিতরণের দাবি জানান। আর এতে ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যান একজন ইউপি সদস্যকে পরিষদে তার অফিস কক্ষে লাঞ্ছিত করেন।

এছাড়া তিনি পরিষদে অফিস কক্ষে বসে সদস্যদের অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ ও হুমকি-ধামকি প্রদান করেন বলে ইউপি সদস্যরা অভিযোগ করেছেন। মাধাইনগর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত ইউপি সদস্য মো: মোক্তার হোসেন, শ্রী মিলন চন্দ্র সরকার, মো: শফিকুল ইসলাম, মো: রফিকুল ইসলাম, মো: আল আমিন, মোছা: শাহিনা খাতুন, আব্দুল মান্নান, মো: আব্দুল কাশেম ও মোছা: চায়না খাতুন এ সকল বিষয়ের প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে মাধাইনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: হাবিলুর রহমান হাবিব তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, ইউপি সদস্যদের ভাগ বাটোয়ারা মেনে না নেয়ায় তারা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।

তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মেজবাউল করিম লিখিত অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ইউপি সদস্যদের লিখিত সকল অভিযোগগুলো তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরো সংবাদ


premium cement