২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩
`

সাড়ে তিন বছর পর কারামুক্ত সেই তুফান

সাড়ে তিন বছর পর কারামুক্ত সেই তুফান - ছবি : সংগৃহীত

বগুড়ায় সাড়ে তিন বছর আগে কলেজছাত্রী ধর্ষণ ও তার মায়ের মাথা ন্যাড়া করে দেয়ার মামলার প্রধান আসামি বহিষ্কৃত বহুল আলোচিত শ্রমিকলীগ নেতা তুফান সরকার কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন। রোববার বগুড়া কারাগারের জেলার মহিউদ্দিন হায়দার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জামিনে মুক্তির বিষয়টি গোপন রাখার কারণে গত ১০ জানুয়ারি বগুড়া জেলা কারাগার থেকে তুফান মুক্তি পেলেও তা নিকটজন ছাড়া কেউ জানতে পারেনি। মুক্তির পর তিনি লোক চক্ষুর আড়ালে রয়েছেন।

বগুড়া সদর থানা সূত্রে জানা গেছে, জাতীয় শ্রমিকলীগের তৎকালীন বগুড়া শহর কমিটির আহ্বায়ক তুফান সরকারের বিরুদ্ধে মোট আটটি মামলা চলমান রয়েছে। সর্বশেষ মানি লন্ডারিং আইনে করা এক মামলার শুনানি শেষে হাইকোর্ট গত ৫ জানুয়ারি তুফান সরকারের জামিন দেন। এরপর বগুড়া চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের মাধ্যমে এ সংক্রান্ত নথিপত্র গত ১০ জানুয়ারি বগুড়া কারাগারে পৌঁছায়। ওই দিনই কারাগার থেকে বের হন তুফান সরকার।

এর আগে ২০১৭ সালের ২৯ জুলাই সদর থানায় করা মামলার আসামি হিসেবে কারাগারে যান তিনি।

কারাগার সূত্র জানায়, তুফান সরকারের বিরুদ্ধে চলমান মামলাগুলো হলো- জিআর ৮৭৫-২০২২ (মানি লন্ডারিং), জিআর ২৪৭-২৪৮-২০১৮ (নারী ও শিশু নির্যাতন), জিআর ১৫৬৫-২০১৮ (দুদক আইন), জিআর ৭-২০১৮ (দুদক), জিআর ১০০৫-১৩, জিআর ৯৮-১৬, জিআর ৮২৭-১৫ এবং জিআর ১৯৬-১২।

বগুড়া কারাগারের জেলার মহিউদ্দিন হায়দার বলেন, গত ১০ জানুয়ারি তুফান সরকারের জামিনের কাগজপত্র কারাগারে পৌঁছে। এরপর সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে সেদিন বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পান।

উল্লেখ্য, বগুড়া শহরে বাদুরতলায় কিশোরীকে ধর্ষণ এবং মা-মেয়েকে নির্যাতনের পর মায়ের মাথা ন্যাড়া করার অভিযোগে বগুড়া সদর থানায় দায়েরকৃত মামলায় ২০১৭ সালের ২৯ জুলাই তিনি কারাবন্দী হন। এ দুই মামলার অভিযোগপত্র দেয়ার পর আদালতে বিচার কার্যক্রম চলছে। তবে মামলার অপর আসামিরা আগেই জামিনে মুক্তি পান।


আরো সংবাদ


premium cement