২৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৯ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`

আব্বাসকে গ্রেফতার করায় র‌্যাবকে পুরস্কার দেবেন মাসুদ

আব্বাসকে গ্রেফতার করায় র‌্যাবকে পুরস্কার দেবেন মাসুদ - ছবি : সংগৃহীত

রাজধানীর রাজমণি ইশা খাঁ হোটেল থেকে কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাসকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এ বিষয়টি জানার পর র‌্যাবকে এক লাখ টাকা পুরস্কার হিসেবে দিতে চান কাটাখালী পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর মো: খোকনুজ্জামান মাসুদ।

তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটুক্তির অভিযোগে মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মোমিন বাদী হয়ে মেয়র আব্বাসের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে বোয়ালিয়া মডেল থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় মেয়র আব্বাস আলীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। বিষয়টি জানার পর আমি অত্যন্ত আনন্দিত হয়েছি। আমি বৃহস্পতিবারই র‌্যাব-৫ কার্যালয়ে গিয়ে র‌্যাব অধিনায়কের সাথে দেখা করব। আমার পূর্ব ঘোষণাকৃত আর্থিক সম্মাননার বিষয়টি নিয়ে তার সাথে আলোচনা করব। তারপর তিনি যেভাবে বলবেন আমি ঠিক সেভাবেই আনুষ্ঠানিকভাবে তাকে অর্থ প্রদান করব।

সাবেক কাউন্সিলর মাসুদ আরো জানান, আমি এক কথার মানুষ। যা কথা দিয়েছি তাই করব। কথার কোনো নড়চড় হবে না।

রোববার রাতে সাবেক কাউন্সিলর খোকনুজ্জামান মাসুদ পুরস্কার ঘোষণার বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। এ সময় তিনি বলেছিলেন, মেয়র আব্বাস এবারের মতো যদি পার পেয়ে যান তাহলে অনেকের ক্ষতি করতে পারেন। তাই আমি চাই, কারো ক্ষতি হওয়ার আগেই তিনি যেন শাস্তির আওতায় আসেন। ওই কারণেই তাকে ধরার জন্য আমি নিজ তহবিল থেকে এক লাখ টাকা পুরষ্কার ঘোষণা করেছি।

সাবেক কাউন্সিলর খোকনুজ্জামান মাসুদ একজন ব্যবসায়ী। ২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত কাটাখালী পৌর নির্বাচনে কাউন্সিলর হওয়ায় স্থানীয় যুবলীগের সভাপতির পদ ছেড়ে দেন মাসুদ। পরে ২০২০ সালে তিনি কাটাখালী নির্বাচনে আব্বাসের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে মেয়র পদে নির্বাচন করেন। কিন্তু, ওই নির্বাচনে তিনি মাত্র ৩৬ ভোট পেয়েছিলেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটুক্তির অডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ফাঁসের পর মেয়র আব্বাস আলীকে দল থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কারের দাবি জানিয়ে আসছিল আওয়ামী লীগ। একইসাথে তাকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিও জানানো হয়। সম্প্রতি রাজশাহী মহানগরীর উপকণ্ঠে কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী একটি ঘরোয়া বৈঠকে রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়কের কাটাখালী পৌরসভার অংশের উন্নয়নকাজ নিয়ে কথা বলার সময় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটুক্তি করেন বলে অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনার অডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে তিনি ফেঁসে যান। ২২ নভেম্বর রাত থেকে মেয়র আব্বাসের এমন দু’অডিও রেকর্ড ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুক ও ম্যাসেঞ্জারে।


আরো সংবাদ


premium cement
ইউক্রেন-রাশিয়া নিয়ে মন্তব্যের জেরে জার্মান নৌবাহিনী প্রধানের পদত্যাগ রাশিয়ার সাথে সীমান্ত উত্তেজনার মধ্যেই ইউক্রেনে পৌঁছল মার্কিন সামরিক সাহায্য বিনা নোটিশেই দখলদারদের উচ্ছেদ করা হবে : মেয়র আতিক রিয়েলিটি শো ‘সাওতুল কোরআনে’ ইয়েস কার্ড পেলো ঢাকার ১৫ কিশোর সরকার বিরোধী দল ও মত শূন্য বাংলাদেশ চায় : রিজভী ২শ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দিলো জিয়াউল হক মাইজভান্ডারী ট্রাস্ট ট্রান্সজেন্ডার নারীকে যৌন নির্যাতন শৈলকুপায় ট্রাকের ধাক্কায় সেনা সদস্যের মৃত্যু শীতে কাঁপছে দেশ, এরই মধ্যে বৃষ্টির আভাস ময়লার গাড়ির ধাক্কায় এবার পরিচ্ছন্নতাকর্মী নিহত জীবননগরে বাওড়ে নৌকা ডুবে পাহারাদারের মৃত্যু

সকল