২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩
`

মহাদেবপুরে মসজিদের জায়গা দখল করে থাকা নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ৮

মহাদেবপুরে মসজিদের জায়গা দখল করে থাকা নিয়ে সংঘর্ষ হয়েছে। - ছবি : নয়া দিগন্ত

নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার সফাপুর ইউনিয়নের মসজিদের জায়গায় বালু রাখাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ অন্তত আটজন আহত হয়েছে। শুক্রবার দুপুরের এ ঘটনায় রাত ৮টার দিকে থানায় পৃথক দুটি অভিযোগ করা হয়েছে।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মসজিদের জমি দখল করে বাড়ি বানিয়ে বসবাস করছেন একই এলাকার ছবির উদ্দিনের ছেলে আবুল কালাম। গত ৯ এপ্রিল এ নিয়ে বৈঠক হয়। তখন আবুল কালাম অন্যত্র বাড়ি তৈরি করে জমি ছেড়ে দেয়ার জন্য সময় নেন স্থানীয়দের কাছে থেকে। তারপর বাড়ি তৈরি করেও জায়গা ছেড়ে দিচ্ছেন না তিনি।

শুক্রবার জুমার আজানের পূর্বমুহূর্তে নতুনভাবে আবারো সামনের জায়গা দখল করতে দেখে প্রতিবাদ করতে এগিয়ে আসেন মসজিদের কোষাধ্যক্ষ অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্য আব্দুল কুদ্দুস। এতে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এতে আহত হন মসজিদ কমিটির সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মো: মোনাজ উদ্দিন, ক্যাশিয়ার অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্য আ: কুদ্দুস ও অপর পক্ষের আবুল কালাম ও তার স্ত্রী।

এ ঘটনায় মসজিদের সাধারণ সম্পাদক আফসার আলী বাদি হয়ে আবুল কালাম, তার স্ত্রী ইতি খাতুন, আব্দুস সালাম, আইজুল, আরিফুল, রায়হান, আব্দুর রশীদ ও তার স্ত্রী ময়না খাতুনসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে থাকায় অভিযোগ দায়ের করেন। অপরদিকে বিপরীতপক্ষও মসজিদ কমিটির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন।

এ সংঘর্ষে আবুল কালাম ও তার স্ত্রী মহাদেবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছেন। আর অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পাঠিয়ে দিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

ঘটনার পর মসজিদ কমিটির কোষাধ্যক্ষ আব্দুল কুদ্দুস নয়া দিগন্তকে বলেন, ‘তারা মসজিদের জমি দখল করে আছেন। এটা নিয়ে কথা বলায় তারা আমাদের মারপিট করে। আমার কান দিয়ে রক্ত পরছে। হাসপাতালে নাক কানের ডাক্তার না থাকায় আমাকে নওগাঁ বা রাজশাহী হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছে।’

জমি দখলের বিষয়ে আবুল কালাম বলেন, ‘আমার বাড়ি মসজিদের জমিতে পড়েছে, আমি ছেড়ে দিবো। তারা আমাকে, আমার স্ত্রীকেসহ অন্যদের মারপিট করে। আমরা এখন চিকিৎসাধীন আছি।’

সত্যতা নিশ্চিত করে মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আজম উদ্দিন মাহমুদ নয়া দিগন্তকে বলেন, মসজিদের জমি নিয়ে দুই পক্ষের মাঝে সংঘর্ষের অভিযোগ পেয়েছি। এবিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো সংবাদ


premium cement

সকল