০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ন ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি
`
রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন

পৌর মেয়র আব্বাসকে দল থেকে বহিষ্কার ও শাস্তি দাবি

আওয়ামী লীগ-পৌর মেয়র আব্বাস
রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন - ছবি : নয়া দিগন্ত

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তির অডিও ফাঁসের পর রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীকে দল থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছে আওয়ামী লীগ। একইসাথে তাকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিও জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। এতে তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে মেয়র আব্বাস আলীর কটূক্তি ও অবমাননাকর মন্তব্যে সারা দেশের মানুষের মতো আমরাও চরমভাবে মর্মাহত। তার ধৃষ্টতাপূর্ণ অশালীন মন্তব্যের প্রেক্ষিতে তাকে সংগঠনের পদ ও প্রাথমিক সদস্য পদ থেকে আজীবন বহিষ্কারের পাশাপাশি গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতায় সিটি মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন রাজশাহীকে আধুনিক তিলোত্তমা নগরী হিসেবে গড়ে তোলার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে নগরীর মূল প্রবেশদ্বারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপনের পাশাপাশি সৌন্দর্য বর্ধনের পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। এরই প্রেক্ষিতে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালকে নিয়ে আব্বাস আলীর ঔদ্ধত্যপূর্ণ অবমাননাকর মন্তব্য জাতি সমর্থন করে না।

যখন বঙ্গবন্ধুর দর্শন নিয়ে সারা বিশ্বের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গবেষণা পরিচালনা করছে, ঠিক সেই মুহূর্তে আওয়ামী লীগের ভিতরে ঘাপটি মেরে থাকা খুনি মোশতাকের প্রেতাত্মা আব্বাস আলীর এমন ঘৃণ্য মন্তব্য দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করবে। এটি রাজনৈতিক পরিবেশকে অস্থিতিশীল করাসহ দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, কৃষ্টি, সংস্কৃতি ও আওয়ামী লীগের ঐক্য বিনষ্ট করার অপচেষ্টার অংশ। এসব কুচক্রী ব্যক্তি ও গোষ্ঠীর অশুভ তৎপরতা থেকে সতর্ক থাকার জন্য আহ্বান জানানো হয়।

সম্প্রতি রাজশাহী মহানগরীর উপকণ্ঠে কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী একটি ঘরোয়া বৈঠকে রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়কের কাটাখালী পৌরসভার অংশের উন্নয়নকাজ নিয়ে কথা বলার সময় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তি করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার অডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে তিনিও ফেঁসে যান।

গত সোমবার (২২ নভেম্বর) রাত থেকে মেয়র আব্বাসের দুটি অডিও রেকর্ড ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুক ও ম্যাসেঞ্জারে। এরই মধ্যে দাবি উঠেছে, গাজীপুরের মেয়রের মতো কাটাখালী পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে দলীয় ব্যবস্থাসহ আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার।

আব্বাস আলী কাটাখালী পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক। ২০১৫ সালে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে তিনি প্রথমবার মেয়র নির্বাচিত হন। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তিনি নৌকা প্রতীক নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হন।

সংবাদ সম্মেলনে মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, সৈয়দ শাহাদাত হোসেন বাদশা, যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগে কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীকে আওয়ামী লীগ থেকে অব্যাহতির সুপারিশ করা হয়েছে। একইসাথে কেন তাকে দলীয় সদস্য পদ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না, তা জানতে চেয়ে তিন দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়ারও সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বুধবার বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের জরুরি বৈঠকে আব্বাসকে কাটাখালী পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়কের পদ থেকে অব্যাহতির সিদ্ধান্ত হয়। বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে তাকে নিয়ে বিতর্ক শুরু হওয়ায় এই সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আ’লীগ নেতা আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাতে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় এ মামলার এজাহার দেয়া হয়। পরে পুলিশ সদর দফতরের অনুমোদন সাপক্ষে পরদিন বুধবার মামলাটি গ্রহণ করা হয়। নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মণ গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, একই অভিযোগে বোয়ালিয়া মডেল থানা ছাড়াও নগরীর রাজপাড়া ও চন্দ্রিমা থানায়ও মামলার এজাহার দেয়া হয়েছিল। তবে বোয়ালিয়া মডেল থানায় মামলাটি আপাতত রেকর্ড করা হয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্তের জন্য বাকি দুটি মামলা বিবেচনাধীন।



আরো সংবাদ


ঢাকা টেস্ট : ২য় দিনের খেলা শুরু শৈলকুপায় আমগাছে ঝুলন্ত স্কুলছাত্রীর লাশ, পরিবারের দাবি হত্যা ভোলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২ পাইকগাছায় জাওয়াদের প্রভাবে দু'দিনের অব্যাহত গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্ত ইন্দোনেশিয়ার সেমেরু আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাত, মৃত ১৩ বাংলাদেশ-মালদ্বীপ সম্পর্ক যে কোনো সময়ের চেয়ে ভালো : রাষ্ট্রদূত লাভজনক কবুতর পালনে আগ্রহী শায়েস্তাগঞ্জের যুবকরা! সুদানে নির্বাচনের পর রাজনীতি ছাড়বে সেনাবাহিনী : বুরহান পদ্মায় নাব্যতা সঙ্কট, শিমুলিয়া-মাঝিরকান্দি নৌরুটে চালু হচ্ছে না ফেরি চলাচল চট্টগ্রামে হাফ ভাড়া ১১ ডিসেম্বর থেকে কার্যকর নোয়াখালীতে ট্যাংকারের চাপায় গৃহবধূ নিহত

সকল

ইসরাইলকে ইরানে গোয়েন্দা অভিযান চালাতে নিষেধ করল যুক্তরাষ্ট্র (১৪২৯২)‘ওমিক্রন’ থেকে বাঁচাতে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে হত্যা করলেন চিকিৎসক (১১০২৯)ইরান ইস্যুতে আমেরিকা একঘরে হয়ে পড়েছে : ব্লিঙ্কেনের স্বীকারোক্তি (১০২১৩)এরদোগানকে হত্যার চেষ্টা! (৮০৯০)রুশ অস্ত্র কিনলে নিষেধাজ্ঞা, ভারতকে বার্তা যুক্তরাষ্ট্রের (৭৯১৫)বাংলাদেশ ভারতের পক্ষে যাবে না (৭৮৩৪)পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হেরেও খুশি পাপন (৭২৬৯)যুক্তরাষ্ট্রকে রাশিয়ার হুঁশিয়ারি : প্রতিবেশীর ঘরে অস্ত্র ঢোকালে যুদ্ধ বাধবে (৬৫০৭)‘বুথে নয়, নৌকার ভোট হবে টেবিলের উপরে, পুলিশ প্রশাসনকে সেভাবেই দেখবো’ (৬০০১)জ্বর নেই, স্বাদ-গন্ধও ঠিক আছে! ওমিক্রন চেনার সহজ উপায় (৫৮২৬)