২২ জুন ২০২১
`

নারী চিকিৎসকের ম্যাসেঞ্জারে নগ্ন ছবি পাঠিয়ে যুবক গ্রেফতার

ডিজিটাল আইনে মামলা, যুবক গ্রেফতার - ছবি- সংগৃহীত

বগুড়ার শেরপুর পৌরশহরের হাসপাতাল রোড এলাকার এক নারী ডাক্তারের ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে ভুয়া আইডি থেকে কুরুচি ও নগ্ন ছবি পাঠিয়ে ফেঁসে গেছেন এক যুবক। তার বিরুদ্ধে শুক্রবার রাতে শেরপুর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়েরের পর পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়েছে।

শনিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ওই যুবকের নাম মো: রাশেদ আহম্মেদ। তিনি শেরপুর উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের আবু হানিফের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, শেরপুর পৌরশহরের হাসপাতল রোড এলাকার একটি ক্লিনিকের মালিকের ডাক্তার মেয়ে একটি ফেসবুক আইডি পরিচালনা করেন। ওই ফেসবুক আউডিতে Kaniz Fatema নামক একটি ভুয়া আইডি থেকে গত ৭ মার্চ ম্যাসেজ আসে। তারপর থেকেই বিভিন্ন সময়ে নারী ডাক্তারকে ওই আইডি থেকে বিভিন্ন খারাপ ও কুরুচিপূর্ণ ম্যাসেজ ও নগ্ন ছবি পাঠানো হতো। পরে ওই ডাক্তারের ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে একটি অপরিচিত নম্বর থেকে কল আসে। কলটি রিসিভ করলে রাশেদ তার পরিচয় দেন।

গত ৩১ মার্চ এ বিষয়ে শেরপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। তারপরও রাশেদ বিভিন্ন সময় মোবাইল ও ম্যাসেঞ্জারে বিরক্ত করতে থাকেন ওই নারী ডাক্তারকে। পরে Kaniz Fatema নামক আইডি পরিচালনাকারী মো: রাশেদ আহম্মেদের ঠিকানা শনাক্ত করা হয়।

এ দিকে বিরক্ত করতে নিষেধ করায় রাশেদ ক্ষিপ্ত হয়ে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেন ওই নারী ডাক্তারকে। এ ঘটনায় নারী ডাক্তার শেরপুর থানায় রাশেদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ বাড়ি থেকে রাশেদকে আটক করে।

এ বিষয়ে শেরপুর থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ জানান, আসামিকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে



আরো সংবাদ