০১ ডিসেম্বর ২০২০

বগুড়ায় শত কোটি টাকা আত্মসাৎ মামলায় আওয়ামীলীগ নেতা কারাগারে

বগুড়ায় শত কোটি টাকা আত্মসাৎ মামলায় আওয়ামীলীগ নেতা কারাগারে - নয়া দিগন্ত

বগুড়ায় শ্বাশুড়ীর শত কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা ও জেলা পরিষদের সদস্য আনোয়ার হোসেন রানা এবং তার স্ত্রী আকিলা সরিফাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। রোববার তারা আদালতে হাজির হয়ে জামিন চাইলে বগুড়ার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মুহাম্মদ রবিউল আউয়াল তাদের জামিন নামঞ্জুর করে এ নির্দেশ দিয়েছেন।

এর আগে ১ অক্টোবর রাতে উক্ত রানার বিরুদ্ধে ১০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে সদর থানায় এজাহার দাখিল করেন তার দ্বিতীয় শ্বাশুড়ী দেলওয়ারা বেগম। মামলাটি প্রাথমিক তদন্ত শেষে সত্যতা পাওয়ার পর ৫ অক্টোবর রেকর্ড করে বগুড়া সদর থানা। এজাহারে রানার স্ত্রী আকিলা সরিফা সুলতানাসহ তিন প্রতিষ্ঠানের ৩ ব্যবস্থাপক-কে আসামি করা হয়। মামলা রেকর্ড হওয়ার পর ১১ অক্টোবর রানা ও তার স্ত্রী উচ্চ আদালতে জামিন প্রার্থনা করেন। সেখানে শুনানি শেষে আদালত তাদেরকে ৪ সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কোর্টে হাজির হওয়ার আদেশ দেন।

স্বস্ত্রীক কারাগারে প্রেরনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদী পরে আইনজীবী রেজাউল করিম মন্টু। জামাই আনোয়ার হোসেন রানা বগুড়া জেলা পরিষদ সদস্য ছাড়াও নন্দীগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক। মামলাটি তদন্ত করছেন বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবীর। এদিকে আদালতের হাজতখানা থেকে দুপুরে পুলিশ দ্রুত গতিতে কর্তব্যরত সাংবাদিকদের এড়িয়ে প্রিজন ভ্যানে তুলে বগুড়া জেলা কারাগারে নেয়।

উল্লেখ্য, মামলার এজাহারে দেলওয়ারা বেগম অভিযোগ করেন, তার বয়স এবং অসুস্থতার সুযোগ নিয়ে আনোয়ার হোসেন রানা এবং তার স্ত্রী আকিলা সরিফা তার মালিকানাধীন সব প্রতিষ্ঠানের দেখাশোনার দায়িত্ব মৌখিকভাবে গ্রহণ করেন। শহরের কাটনারপাড়া এলাকায় একই বাড়িতে থাকার কারণে রানা বিভিন্ন সময় নানা ধরনের কাগজপত্রে তার স্বারও গ্রহণ করেন। গত ২১ সেপ্টেম্বর বাড়ি ছেড়ে যাওয়ার পর তিনি জানতে পারেন যে, এর আগেই আনোয়ার হোসেন রানা অন্য আসামিদের সহযোগিতায় বিভিন্ন কাগজপত্র তৈরি করে ২০১৫ সালের ১ জুলাই থেকে ব্যাংকে রাখা ৫০ কোটি টাকার এফডিআর এবং অন্যান্য ব্যাংকে রাখা আরও ৫০ কোটি টাকাসহ মোট ১০০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেন।


আরো সংবাদ