৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

সমঝোতার বৈঠকে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধর,  থানায় অভিযোগ

-

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে জব্দ করা বালুর নিলাম ডাকের সমঝোতার বৈঠকে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। এসময় উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রেখে বালুর নিলাম ডাক স্থগিত করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরের দিকে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার বাঙ্গালী নদী থেকে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। এক সপ্তাহ ধরে এসব অবৈধ বালু মহলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালিয়ে কমপক্ষে দশ লাখ টাকার বালু জব্দ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)।

বুধবার দুপুরের দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে এই বালু নিলাম ডাকের মাধ্যমে বিক্রয়ের ব্যবস্থা করা হয়। এ অবস্থায় বালুর নিলাম ডাকে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীসহ স্থানীয় ব্যবসায়ীরা অংশ নেন। এক পর্যায়ে কমমূল্যে বালু ক্রয়ের উদ্যেশে যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা সমঝোতার বৈঠকে বসেন। ওই বৈঠকে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে মতবিরোধের সৃষ্টি হয়।

এ বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উপজেলা যুবলীগের সদস্য খায়রুল ইসলাম জুয়েল তার প্রতিপক্ষ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু ছালেহ স্বপনকে মারধর করেন। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় উপজেলা পরিষদ এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা আবু সালেহ স্বপন ধুনট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। লিখিত অভিযোগে উপজেলা যুবলীগের সদস্য খায়রুল ইসলাম জুয়েল, রাজিবুজ্জামান রাজিব, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাইদুল ইসলাম রনি ও পৌর ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক সুজন সাহাকে ওই ঘটনার অভিযুক্ত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে যুবলীগ নেতা খায়রুল ইসলামের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে ফোন নম্বরটি বন্ধ থাকায় তার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু ছালেহ স্বপন বলেন, বালুর নিলাম ডাকে অংশ নেয়ায় জুয়েল ও তার লোকজন আমাকে মারধর করেছে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, ঘটনার পর উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। মারধরের ঘটনায় অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সঞ্জয় কুমার মহন্ত বলেন, বাঙালী নদী থেকে জব্দকৃত বালু দশ লাখ টাকা মূল্য নির্ধারণ করে নিলাম ডাকের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। কিন্ত অনিবার্য কারণ বসত আপাতত বালুর নিলাম ডাক স্থগিত করা হয়েছে।


আরো সংবাদ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ের (১২৯৪২)ড. কামাল ও আসিফ নজরুল ঢাবি এলাকায় অবা‌ঞ্ছিত : সন‌জিত (১১৭২৬)‘সনজিতকে ক্যাম্পাসে দেখতে চায় না ঢাবি শিক্ষার্থীরা’ (১০৩২০)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : সাইফুরের যত অপকর্ম (৯০২০)আজারবাইজান ৬টি গ্রাম আর্মেনিয়ার দখল মুক্ত করেছে (৮৩৪১)নতুন বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র সামনে আনলো ইরান (৫৭১১)যে কারণে এই শীতেই ভারত-চীন মারাত্মক যুদ্ধের আশঙ্কা রয়েছে (৫৬৫০)অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের জানাজা অনুষ্ঠিত (৫২২৯)আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার মধ্যে সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৯ (৫১৬৭)ছাত্রলীগের ঢাবি সভাপতি বক্তব্য স্পষ্টত সন্ত্রাসবাদের বহিঃপ্রকাশ (৫১৫০)