১৩ আগস্ট ২০২০

ঠিকাদারের অবহেলায় ভেসে গেলো ৩০ লাখ টাকার মাছ!

কালভার্ট ও নতুন পিচ ঢালা রাস্তা ভেঙ্গে পুকুরের প্রায় ৩০ লাখ টাকার মাছ ভেসে গেছে - ছবি : নয়া দিগন্ত
24tkt

বগুড়ার শেরপুরে ঠিকাদারের অবহেলার কারণে পুকুরের ৩০ লাখ টাকার মাছ ভেসে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে ওই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে শেরপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন মাছ চাষী মোঃ শাহ আলম।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শেরপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের শালফা বাজার থেকে ভিটারচর গ্রামে চলাচলের রাস্তার পার্শ্বে প্রায় নয় বিঘা জমির সরকারী পুকুর লিজ নিয়ে মাছ চাষ করে আসছেন ব্যবসায়ী শাহ আলম। এই পুকুরে প্রায় ৪০ লাখ টাকার পাবদা ও শিং মাছ চাষ করেন তিনি।

শাহ আলম ও তার ভাই শেরপুর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ রফিক জানান, পুকুরের পাশ দিয়ে ভিটারচর গ্রামে যাওয়া আসার রাস্তা সংলগ্ন একটি কালভার্ট রয়েছে। এ রাস্তাটি উন্নয়নের জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগের কাজ চলমান রয়েছে। এর তদারকির দায়িত্বে রয়েছেন ঠিকাদার নাজমুল আলম খোকন। এ রাস্তার কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে। পুকুরের পাশের কালভার্টটি সঠিকভাবে মেরামতের জন্য আমরা ঠিকাদার নাজমুল আলম খোকনের সাথে কয়েক দফা যোগাযোগ করেছি। কিন্তু তিনি কোনো কথাই আমলে নেননি। বরং উল্টো পাল্টা আশ্বাস দিয়ে কোনো কাজ করেনি। বরং কালভার্টটি বালু মাটি দিয়ে ভরাট করেন তিনি। এতে কালভার্টটি মাটির নিচে চাপা পড়ে ধারণ ক্ষমতা নস্ট হয়ে যায়। ফলে গত ১০ জুলাই রাতে ব্যপক বৃষ্টিপাতে মাটির নিজে চাপা পড়া কালভার্ট ও নতুন পিচ ঢালা রাস্তা ভেঙ্গে গিয়ে আমাদের পুকুরের প্রায় ৩০ লাখ টাকার মাছ ভেসে গেছে। ঠিকাদারের অবহেলার কারণেই এ ক্ষতি হয়েছে। এ বিষয়ে নাজমুল আলম খোকনের সাথে যোগাযোগ করে অনুরোধ করা হলেও তা না মেনে উল্টো আমাকে দেখে নেয়ার হুমকি দিয়েছে।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শালফা গ্রমের একাধিক বাসিন্দা বলেন, এখানে প্রায় ২০ ফুট সাইজের একটি কালভার্ট ছিলো, যা গত বছরেই কিছু অংশ ভেঙ্গে গেছে। এ বছরে রাস্তা নির্মাণ কাজের সময় নতুন করে কালভার্ট নির্মাণের কথা থাকলেও তা আর ঠিক করা হয়নি। বরং কালভার্টের উপর দিয়ে বালু ও মাটি দিয়ে ভরাট করেছে ঠিকাদার। যে কারণে কালভার্ট মাটির নিজে চাপা পড়ে। অথচ এটা মেরামতের জন্য সরকারীভাবে নির্দেশনা থাকলেও তা মানা হয়নি। রাস্তার কাজেও নিম্নমানের মালামাল ব্যবহার করা হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত মাছ ব্যবসায়ী শাহ আলম বলেন, আমি শেরপুর থানায় গত ১১ জুলাই অভিযোগ দায়ের করেছি। থানা পুলিশ বিষয়টি সাধারন ডায়েরি করেছে।

ঠিকাদার নাজমুল আলম খোকন বলেন, এই রাস্তার কাজ সরকারীভাবে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। অনিয়মের অভিযোগ ঠিক নয়। তারপরেও যদি কালভার্ট মেরামতপ্রয়োজন হয় করে দিব।

শেরপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, তদন্ত করে আইন গত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে অভিযুক্ত ঠিকাদারের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে এলাকাবাসী। অবিলম্বে তাকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানান তারা।


আরো সংবাদ

অর্থবছরের প্রথম মাসে রাজস্ব আদায়ে ধস চার পুলিশ ও তিন সাক্ষীর সাত দিনের রিমান্ড আদেশ ব্যাঙ্গালুরুতে মহানবী সা:কে অবমাননার প্রতিবাদে বিক্ষোভ পুলিশের গুলিতে নিহত ৩ সাত মেগা প্রকল্পে ২৭ হাজার কোটি টাকা দিচ্ছে জাপান সাড়ে চার মাস পর হাইকোর্টে নিয়মিত বিচার কার্যক্রম শুরু দেশে মৃতের সংখ্যা সাড়ে তিন হাজার ছাড়াল রাশিয়ার ভ্যাকসিনের কার্যকারিতায় সংশয় কাতার থেকে ফিরেছেন ৪১৩ বাংলাদেশী বৈরুত বিস্ফোরণের পর রাসায়নিক পণ্য নিয়ে নড়েচড়ে বসেছে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ বুলেটিন বন্ধ হলে স্বাস্থ্যবিধি মানতে অনীহা দেখা দিতে পারে : কাদের করোনা ভ্যাকসিন কেনার সিদ্ধান্ত আগামী সপ্তাহে

সকল