১৬ আগস্ট ২০২০

করোনায় বগুড়ায় জনতা ব্যাংকের আরেক সিনিয়র অফিসারের মৃত্যু

আনিছুল হক ওরফে নান্টু - ছবি : সংগৃহীত
24tkt

বগুড়ায় করোনাভাইরাসে জনতা ব্যাংকের আরো এক সিনিয়র কর্মকর্তার প্রাণ গেল। তিনি হলেন বগুড়া শহরের চকলোকমানের বাসিন্দা এবং জনতা ব্যাংক লিমিটেড সপ্তপদী শাখার সিনিয়র অফিসার আনিছুল হক ওরফে নান্টু (৫৭)।

বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বেসরকারি টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ^াস ত্যাগ করেন তিনি।

এ নিয়ে করোনায় বগুড়া শহরে জনতা ব্যাংকের দু’জন সিনিয়র অফিসারের মৃত্যু হলো।

মরহুমের ছোট ভাই শাকিল জানান, গত তিন সপ্তাহ আগে তিনি অসুস্থ হন। শরীরে জ্বর না থাকলেও পেটের সমস্যা হয়েছিল। তিনি ডায়াবেটিক, উচ্চ রক্তচাপে ভুগছিলেন। এর মধ্যে গত ২৫ জুন তিনি করোনা পজিটিভ হন। বাসায় তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মোহাম্মাদ আলী হাসপাতাল ও পহেলা জুলাই ঢাকার সমরিতা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে নানা সমস্যার কারণে তাকে আবারো ৭ জুলাই টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাপাতালে ভর্তি করা হয়।

টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মুখপাত্র আব্দুর রহিম রুবেল জানান, ব্যাংকার আনিছুল হকের বুধবার বিকেলে অবস্থার অবনতি হলে বিকেল ৪টায় আইসিইউতে নেয়া হয়। সেখানে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মারা যান তিনি। তার লাশ জীবাণুমুক্ত করে দাফনের জন্য পরিবারকে দেয়া হবে।

জনতা ব্যাংক লিমিটেড বগুড়া এরিয়া অফিসের আইটি অফিসার মিজানুর রহমান জানান, করোনার কারণে বগুড়ায় এ নিয়ে দুজন সিনিয়র অফিসারকে আমরা হারালাম। এতে ব্যাংকের অপূরণীয় ক্ষতি হলো।

তার মৃত্যুতে জনতা ব্যাংকের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের জিএম মো: সাখাওয়াত হোসেন ও বগুড়া এরিয়া অফিসের ডিজিএম মো: হারুনার রশিদ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তারা মরহুমের রূহের মাগফেরাত কামনাসহ শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

আনিছুল হকের স্ত্রী ও দুই ছেলে রয়েছে।


আরো সংবাদ