০৯ আগস্ট ২০২০

এসিডপানে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু

এসিডপানে মারা যাওয়া শিশু সাবা - ছবি : নয়া দিগন্ত
24tkt

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে স্বর্ণের দোকানে গয়না তৈরির এসিড পান করে পাঁচ বছরের এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। শিশুটির নাম মোছা. মোনতাহুল জান্নাত সাবা। বুধবার বেলা ১২টার দিকে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলা শহরের ‘সোমা জুয়েলার্স’ নামের স্বর্ণের দোকানে এ ঘটনা ঘটে।

শিশু মোনতাহুল জান্নাত সাবা উপজেলার বিনোদনগর নন্দনপুর গ্রামের শাহাজুল ইসলামের মেয়ে।

এ ঘটনায় স্বর্ণের দোকানের মালিক সাইফুল ইসলামকে (৪০) আটক করেছে থানা পুলিশ।

বিরামপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মিথুন সরকার মুঠোফোনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার দুপুরে নবাবগঞ্জ থানার এস আই নুরুজ্জামান মুঠোফোনে বলেন, উপজেলা শহরের ‘সোমাজুয়েলার্স’ নামের স্বর্ণের দোকানে মা মোর্শেদা বেগমের সাথে যায় শিশু সাবা। সেখানে গিয়ে সে পানি খেতে চায়। এই সময় ওই দোকানের মালিক সাইফুল ইসলাম গ্লাসে করে পানির বদলে স্বর্ণ পরিস্কার করা এসিড খেতে দেয়। গ্লাসের এসিড খেয়ে শিশুটি অজ্ঞান হয়ে পড়লে দ্রুত তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার মৃত্যু হয়।

এ ব্যাপারে নবাবগঞ্জ উপজেলাস্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার(ভারপ্রাপ্ত) শাহাজাহান আলী বলেন, ‘অসুস্থ শিশুটিকে নিয়ে তার মা মোর্শেদা বেগম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসেছিলেন। প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার আগেই শিশুটি মারা গেছে। তবে শিশুটি মায়ের বর্ণনা অনুযায়ী পানির পরিবর্তে স্বর্ণের দোকানের এসিডপানে শিশুটির মৃত্যু হয়েছে।’

নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অশোক কুমার চৌহান বলেন, স্বর্ণের দোকানের এসিডপান করে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় দোকানের মালিক সাইফুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। শিশুটির লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে।

বিরামপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মিথুন সরকার বলেন, ‘শিশু মৃত্যুর ঘটনায় দ্রুত ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে সোমা জুয়েলার্সের মালিক সাইফুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। শিশুটির পরিবার মামলা এবং ঘটনার তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’


আরো সংবাদ