২৯ মার্চ ২০২০

শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনৈতিক কাজের অভিযোগ, অপসারণের দাবী অভিভাবকদের

তাড়াশে শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনৈতিক কাজের অভিযোগ - ছবি : সংগৃহীত

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ রঘুনিলী মঙ্গলবাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক (গণিত) আইযুব আলীর (৩৫) বিরুদ্ধে অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত শিক্ষকের  বিচার ও অপসারণের দাবীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন অভিভাবক ও এলাকাবাসী।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সহকারী শিক্ষক আইযুব আলী দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়ের বিভিন্ন ছাত্রীর সাথে নানাভাবে অসামাজিক কার্যকলাপ করে আসছে।

১৬ মার্চ সোমবার বেলা ২টায় অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক আইযুব আলী রঘুনিলী মঙ্গলবাড়িয়া বাজারে ভাড়া করা একটি কক্ষে প্রাইভেট পড়ানোর নামে ওই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীর সাথে অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত থাকা অবস্থায় এলাকাবাসী ধরে ফেলে। এমসয় শিক্ষক আইযুব আলী কৌশলে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে অভিভাবক ও এলাকাবাসী ক্ষীপ্ত হয়ে ওই শিক্ষিকের বিরুদ্ধে অসামাজিক কার্যকলাপের বিচার ও অপসারণ দাবীতে মানবন্ধন ও পোস্টারিং করে।

নুরুল ইসলাম, মোস্তফা মন্টু, আব্দুর রাজ্জাক, গোলজার হোসেনসহ একাধিক অভিভাবক অভিযোগ করে বলেন, ওই শিক্ষিকের বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের ছেলে মেয়েদের স্কুলে পাঠাব না।

ঘটনাটি অস্বীকার করে অভিযুক্ত শিক্ষক আইযুব আলী বলেন, এটা মিথ্যা ও সাজানো ঘটনা।

রঘুনিলী মঙ্গলবাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিক রবিউজ্জামান নান্নু বলেন, অভিযোগটি আমিও পেয়েছি। ইতোপূর্বে ওই শিক্ষিকের বিরুদ্ধে একাধিকবার এধরণের ঘটনার অভিযোগ উঠেছে। তাকে সর্তক করার জন্য বেশ কয়েকবার কারণ দর্শানো নোটিশও দেওয়া হয়েছিল।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইফ্ফাত জাহান বলেন, অভিযোগপত্রটি পেয়েছি, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরো সংবাদ