২৮ মার্চ ২০২০

মোবাইলে ডেকে ছোট ভাইকে কুপিয়ে হত্যা, বড় ভাইয়ের কব্জি কর্তন

বগুড়ায় মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে ছোট ভাইকে কুপিয়ে হত্যা ও বড় ভাইকে কুপিয়ে হাতের কব্জি কেটে নেয়ার ঘটনা ঘটেছে। নিহত যুবকের নাম আপেল মাহমুদ (৩২) ও হামলায় আহত হয়েছেন তার বড় ভাই আল মামুন (৪০)। বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের মহাস্থানের দিঘলকান্দী মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক সাড়ে ৮টার দিকে দিঘলকান্দী মোড়ে লিচু বাগানের পাশ থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত যুবক আপেল মাহমুদ পেশায় কসাই (মাংস বিক্রেতা) ছিলেন। তিনি বগুড়ার গোকুল ইউনিয়নের পলাশবাড়ী গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নানের দ্বিতীয় ছেলে। এ ঘটনায় আহত মামুনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে এলাকাবাসী।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে নিহত আপেল ও তার বড়ভাই মামুনকে ছাগল বিক্রির কথা বলে মোবাইল ফোন করে ডেকে নেয় দুর্বৃত্তরা। এরপর তারা সেখানে পৌঁছলে ৭ থেকে ৮ জনের একটি দুর্বৃত্তের দল তাদের উপর হামলা চালায়। এ সময় দুর্বৃত্তরা আপেলকে কুপিয়ে হত্যা করে লাশ লিচু বাগানের নিচে ফেলে দেয় এবং মামুনের হাতের কব্জি ইটের ওপর রেখে কেটে দেয়। এ সময় তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এলে দুর্বৃত্তরা ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত পালিয়ে যায়। এরপর এলাকাবাসী পুলিশে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ সুরুতহাল রিপোর্ট শেষে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বগুড়া শজিমেক মর্গে পাঠায়। নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। হত্যাকাণ্ডের কারণ জানতে পারেনি পুলিশ।

বগুড়া সদর থানার ওসি রেজাউল করিম রেজা জানান, হত্যার কারণ জানা যায়নি। তবে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।


আরো সংবাদ

সকল