০৭ এপ্রিল ২০২০

অনুদান দিয়ে সমালোচিত জেফ বেজোস

-

টানা কয়েক মাস ধরে ভয়াবহ দাবানলে অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলের প্রায় ৮০ লাখ হেক্টর বনভূমি পুড়েছে ও মারা গেছে শতকোটির বেশি পশুপাখি। দাবানলে পুড়ে ২৯ জনের মৃত্যুও হয়েছে। দেশটিতে দাবানলে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য সহায়তার হাত বাড়িয়েছে বিশ্বের বহু নামীদামি মানুষ। এবার সে তালিকায় নাম লেখালেন বৈশ্বিক ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা এবং বিশ্বের শীর্ষ ধনী জেফ বেজোস। অ্যামাজনের পক্ষ থেকে অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় ছয় লাখ ৯০ হাজার ডলার অনুদান দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। তবে নিট সম্পদের তুলনায় সামান্য অনুদান দিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন জেফ বেজোস। অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে ক্ষতিগ্রস্তদের অর্থ সহায়তার ঘোষণা দিয়ে জেফ বেজোস তার ইনস্টাগ্রামে লিখেন, অস্ট্রেলিয়ার মানুষ স্মরণকালের সঙ্কটপূর্ণ সময়ের সাথে লড়াই করছে, যা আমাদের হৃদয় ছুঁয়ে গেছে। ক্ষতিগ্রস্তদের খাদ্য ও অন্যান্য সেবা সহায়তা দিতে অ্যামাজন ১০ লাখ অস্ট্রেলিয়ান ডলার অনুদান দিচ্ছে।
ফোর্বসের তথ্যমতে, বেজোসের মোট সম্পদের পরিমাণ ১১ হাজার ৬৭০ কোটি ডলার। তার মালিকানাধীন অ্যামাজনের বাজার মূলধন ৯৩ হাজার কোটি ডলার ছাড়িয়েছে। সে হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য অ্যামাজনের পক্ষ থেকে যে আর্থিক অনুদান ঘোষণা করা হয়েছে, তা খুবই নগণ্য বলে সমালোচনা করছেন অনেকে।
জেফ বেজোসের চেয়ে কম সম্পদশালী হয়েও অনেকে নিজেদের পকেট থেকে তার চেয়ে বেশি আর্থিক অনুদান দিয়েছেন। বিশ্বের অনেক তারকা ও ব্যবসায়ী যারা অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে ক্ষতিগ্রস্তদের বড় অঙ্কের অর্থ সহায়তা দিয়েছেন, তাদের একজন মার্ভেল তারকা ক্রিস হেমসওয়ার্থের মোট সম্পদের পরিমাণ ৭ কোটি ৬০ লাখ ডলার। অথচ তিনিও অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে ক্ষতিগ্রস্তদের অ্যামাজনের সমান অর্থ সহায়তা দিয়েছেন। অন্য দিকে সঙ্গীতশিল্পী পিংক ফোর্বসকে জানান, তার নিট সম্পদের পরিমাণ ৫ কোটি ৭০ লাখ ডলার। তিনি ৫ লাখ ডলার অনুদান দিয়েছেন।

 


আরো সংবাদ