১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ডুয়েল ডিসেপ্লের নতুন আসুস ল্যাপটপ

-

ল্যাপটপ অব টুমরো ট্যাগলাইন নিয়ে আসুস দেশের বাজারে এনেছে নতুন জেনবুক প্রো ডুয়ো এবং জেনবুক ডুয়ো নামক দু’টি ল্যাপটপ। এই ল্যাপটপটি কন্টেন্ট ক্রিয়েটর, ডিজিটাল আর্টিস্ট ও মাল্টিটাস্কিং নিয়ে যারা কাজ করছেন তাদের নতুন অভিজ্ঞতা দিবে। এতে টাচ ডিসপ্লে ও স্টাইলাস পেন থাকায় মাল্টিটাস্কিং, ছবি আঁকাসহ ডিজিটাল আর্টের কাজ খুব সহজেই করা যায়। নতুন ল্যাপটপের খুঁটিনাটি নিয়ে লিখেছেন নাজমুল হোসেন
বাংলাদেশের বাজারে আসুস উন্মোচন করেছে আসুস জেনবুক ডুয়ো সিরিজ লাইনআপ। প্রিমিয়াম পর্যায়ের ফিনিশিং এবং অসাধারণ বিল্ড কোয়ালিটির এই ল্যাপটপটির সবচেয়ে আকর্ষণীয় ব্যাপার হলো একটি সেকেন্ডারি টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে, যা আসুসের ভাষ্যমতে আসুস স্ক্রিনপ্যাড প্লাস। টাচ-ডিসপ্লে সমর্থিত ডুয়াল ডিসপ্লে আকারের ল্যাপটপের দ্বিতীয় ডিসপ্লেটি কি-বোর্ডের ঠিক ওপরে।
আসুসের জেনবুক বাজারের আধুনিক ফিচারসম্পন্ন ল্যাপটপগুলোর মধ্যে অন্যতম। এরই ধারাবাহিকতায় আরো আধুনিক ও উদ্ভাবনী রূপ নিয়ে এসেছে আসুস জেনবুক প্রো ডুয়ো। একটি নয়, ল্যাপটপ খুলে বসলেই চোখ চলে যাবে দু’টি পর্দায়, আর দুটোই অত্যাধুনিক ফোরকে প্রযুক্তিসম্পন্ন। দুই পর্দা দিয়ে একসাথে করা যাবে নানা ধরনের কাজ। বিশেষ করে ‘মাল্টি টাস্ক’ যারা করতে চান, তাদের জন্য জেনবুকের নতুন এই সংস্করণ হবে নতুন চমক।
ল্যাপটপটির ১৫.৬ ইঞ্চির মূল পর্দা ফোরকে ও এলইডি প্যানেল সম্পন্ন। কি-বোর্ডের ওপরে থাকা স্ক্রিনপ্যাড প্লাসও মূল পর্দার মতো ফোরকে রেজ্যুলেশনের। ফলে ল্যাপটপটি দিয়ে ছবি ও ভিডিও সম্পাদনা করা যাবে খুব নিখুঁতভাবে। ‘মাল্টি টাস্ক’ বা একসাথে একাধিক কাজ করার সুবিধা পাবেন ব্যবহারকারীরা। মূল পর্দায় কোনো ছবি বা ভিডিও সম্পাদনা করার সময় একই সময় স্ক্রিনপ্যাড প্লাসে পছন্দের গান শুনতে পারবেন। আবার মূল পর্দায় স্কাইপে কল এলে কথা বলতে বলতেই স্ক্রিনপ্যাড প্লাসে হিসাব-নিকাশ, ছবি আঁকা চালিয়ে যাওয়া যাবে অনায়াসে। কি-বোর্ডের ওপরে থাকা পর্দাটিতে একসাথে চালানো যাবে একাধিক অ্যাপ, যা বাড়িয়ে দিবে আপনার কাজের গতি।
স্ক্রিনপ্যাড প্লাস আর মূল পর্দার পাশাপাশি এই ল্যাপটপে আছে টাচপ্যাড ও নাম্বারপ্যাড। টাচস্ক্রিন সেন্সরটিও বেশ বাস্তবসম্মত। অর্থাৎ অনাকাক্সিক্ষতভাবে পরিচালিত হবে এমন অতি উচ্চমাত্রার সেন্সর নয়, আবার সহজে পরিচালনা করা যাবে না এমন স্থিরও নয়। যথোপযুক্ত সেন্সর ক্ষমতা রয়েছে ল্যাপটপটির প্রতিটি পর্দায়।
কোর আই নাইন প্রসেসর সমৃদ্ধ জেনবুক প্রো ডুয়োর ভেতরের আটটি হাইপার-থ্রেডেড কোরের (২.৬ গিগাহার্টজ বেজ স্পিড) গতিকে আরো বাড়িয়ে দেয়। এই গতি সর্বোচ্চ ৪.৫ গিগাহার্টজ পর্যন্ত যেতে পারে। এর সাথে তো ৩২ জিবি মেমোরি তো আছেই, যা এই ল্যাপটপে উচ্চ রেজ্যুলেশনের ছবি, ফোরকে ভিডিও, বিশাল ডেটাবেজ ব্যবস্থাপনা আর ক্যাড অ্যাপ্লিকেশনে কাজ করা সহজ করে দেয়।
জেনবুক প্রো ডুয়োতে যেকোনো সফটওয়্যার সহজে কাজ করবে, কারণ এর এক টেরাবাইট এসএসডি যেকোনো অ্যাপ্লিকেশনকে দ্রুত পরিচালনা করাতে পারদর্শী। এই ল্যাপটপের ওয়েবক্যাম, হেডফোন জ্যাক আর অ্যারে মাইক্রোফোন সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ডিভাইস ও অ্যাপ্লিকেশনকে ধারণ করতে পারে। অ্যালেক্সা ভয়েজ-রিকগনিশন করতে পারবে এই নতুন জেনবুকটি। জেনবুকের নতুন এই সংস্করণ উত্তাপ আর শব্দ নিয়ন্ত্রণে সবার চেয়ে এগিয়ে আছে। সর্বোচ্চ গতিতেও এর অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা থাকবে সহনীয়।
কনফিগার ও দাম
আসুস জেনবুক প্রো ডুয়ো এবং জেনবুক ডুয়ো দু’টি ল্যাপটপের চার ধরনের সংস্করণ আছে এবং সর্বোচ্চ মানের জেনবুক প্রো ডুয়ো সংস্করণটিতে আছে ইন্টেল কোর আই নাইন প্রসেসর। এ ছাড়া আসুস জেনবুক ডুয়োতে আছে দশম প্রজন্মের ইন্টেল কোর আই সেভেন এবং কোর আই ফাইভ প্রসেসর। সর্বোচ্চ ৩২ জিবি র্যাম ধারণক্ষমতা সমর্থিত এই ল্যাপটপে অতিরিক্ত জিপিইউ হিসেবে আছে এনভিডিয়া আরটিএক্স ২০৬০ এবং সর্বনিম্ন মডেলে আছে এমএক্স২৫০ গ্রাফিক্স প্রসেসিং ইউনিট। এ ছাড়া স্টোরেজ হিসেবে আছে ১ টেরাবাইট হাই স্পিড পিসিআইই এসএসডি সুবিধা।
১৫.৬ ইঞ্চ ফোর-কে ওএলইডি টাচস্ক্রিন ডিসেপ্লর আসুস জেনবুক প্রো ডুয়োতে দেয়া হয়েছে সর্বোচ্চ পর্যায়ের কুলিং সুবিধা যাতে ভেতরকার যন্ত্রাংশগুলো ঠাণ্ডা রাখতে সহায়তা করবে। অন্য দিকে ১৪ ইঞ্চি এলইডি ফুলএইচডি টাচস্ক্রিন সমর্থিত জেনবুক ডুয়োতে দেয়া হয়েছে অপেক্ষাকৃত পাতলা একটি গড়ন এবং উন্নতমানের কুলিং সিস্টেম। আসুস জেনবুক ডুয়ো এবং জেনবুক প্রো ডুয়ো দু’টি সংস্করণের ল্যাপটপে কানেকটিভিটির জন্য ইউএসবি টাইপ-সি থান্ডারবোল্ট থ্রিসহ প্রায় সব ইনপুট এবং আউটপুট পোর্ট।
সর্বোচ্চ কনফিগারেশনসহ আসুস জেনবুক প্রো ডুয়ো ল্যাপটপটির মূল্য ২ লাখ ৮০ হাজার টাকা। এবং জেনবুক ডুয়ো সিরিজ এর দাম ১ লাখ ৫ হাজার টাকা থেকে শুরু।
সফলতার ৩০ বছরে আসুস
তাইওয়ানিজ টেক জায়ান্ট আসুসের ৩০ বছর উদযাপন উপলক্ষে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান জনি আসুসের প্রাইম ইউটোপিয়া কনসেপ্ট মাদার বোর্ড, জেনবুক প্রো ডুয়ো এবং ডুয়ো ল্যাপটপ, আসুস জেনটাচ পোর্টেবল মনিটর, জেনফোন ৬ এডিশন৩০ স্মার্টফোন, জেনবুক এডিশন ৩০ ল্যাপটপ এবং প্রাইম এক্স২৯৯ এডিশন ৩০ মাদারবোর্ডের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন। আসুসের তিন দশক উপলক্ষে তাইওয়ানের কম্পিউটেক্স মেলায় চলতি বছর এসব পণ্য উন্মোচন করা হয়। এবছরই আসুস প্রো-আর্ট সিরিজ ঘোষণা করেছে। এই সিরিজে প্রো-আর্ট স্টুডিওবুক ওয়ান, প্রো-আর্ট স্টুডিওবুক প্রো-এক্স, প্রো-আর্ট স্টেশন ডি৯৪০এমএক্স এবং প্রো-আর্ট ডিসপ্লে পিএ৩২ইউসিজি। পণ্যগুলো মিডিয়া কনটেন্ট ক্রিয়েটরদের জন্য সর্বোত্তম সহায়ক হতে সক্ষম।
আসুস টানা সপ্তমবারের মতো ‘২০১৯ বেস্ট তাইওয়ান গ্লোবাল ব্র্যান্ডস অ্যাওয়ার্ডস’ খেতাব জয় করেছে। তাইওয়ানের অর্থনীতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় আয়োজিত ‘বেস্ট তাইওয়ান গ্লোবাল ব্র্যান্ডস অ্যাওয়ার্ডস’ জিতেছে আসুস। এ বছরের বেস্ট তাইওয়ান গ্লোবাল ব্র্যান্ড জরিপ করা হয় আন্তর্জাতিকভাবে তাইওয়ানের ব্র্যান্ডগুলো কতটুকু ভালো সেবা এবং গুণগত মান বজায় রাখতে পেরেছে।
আসুসের প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা নিক উ বলেন, ‘আসুস সর্বদা প্রযুক্তি এবং প্রযুক্তির উদ্ভাবন নিয়ে আগ্রহী এবং সব ধরনের ভোক্তাদের এ উদ্ভাবন প্রেরণ করাও আমাদের মূল উদ্দেশ্য, যেটি আসুস ব্র্যান্ডের স্লোগান ইন সার্চ অব ইনক্রেডিবল আমরা হৃদয়ে লালন করে থাকি।

 


আরো সংবাদ