১৮ অক্টোবর ২০২১
`

স্মরণ : আবু হেনা মোস্তফা কামাল

-

শিক্ষাবিদ, কবি, লেখক আবু হেনা মোস্তফা কামালের জন্ম সিরাজগঞ্জের গোবিন্দ গ্রামে ১৯৩৬ সালে ৩ ডিসেম্বর। ১৯৫২ সালে পাবনা জেলা স্কুল থেকে ম্যাট্রিক এবং ১৯৫৪ সালে ঢাকা কলেজ থেকে আইএ পাস করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৫৬ সালে বাংলায় বিএ অনার্স ও ১৯৫৯ সালে এমএ ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৬৬ থেকে ১৯৬৯ পর্যন্ত লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা করেন। এ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘বেঙ্গলি প্রেস অ্যান্ড লিটারারি রাইটিং-১৮১৮-১৮৩১’ শীর্ষক অভিসন্দর্ভ রচনা করে পিএইচডি অর্জন করেন। কলেজে কিছুকাল অধ্যাপনা করেন।
১৯৬২ সালে সহকারী পরিচালক পদে সরকারের জনসংযোগ পরিদফতরে যোগদান করেন। ১৯৬৩ সালের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে প্রভাষক নিযুক্ত হন। ১৯৬৫ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে সহকারী অধ্যাপক পদে যোগ দেন। ১৯৭০ সালে সহযোগী অধ্যাপক পদে উন্নীত হয়েছিলেন। ১৯৭৩ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে সহযোগী অধ্যাপক পদে যোগ দেন। ১৯৭৬ সালের ২৬ জুন প্রফেসর পদে উন্নীত হন। ১৯৭৮ সালের ১ নভেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে প্রফেসর পদে যোগ দেন।
১৯৮৪ সালের ২ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক নিযুক্ত হয়ে এ পদে দেড় বছর দায়িত্ব পালনের পর ১৯৮৬ সালের ১১ মার্চ বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক নিযুক্ত হন। মৃত্যু অবধি এ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। কবিতা, প্রবন্ধ ও গান লিখে সুনাম অর্জন করেছেন। সুবক্তা, টেলিভিশনের বাককুশল রসিক উপস্থাপক ও আলোচক, সর্বোপরি শিক্ষক হিসেবে খ্যাত। আলাওল পুরস্কার, সুহৃদ সাহিত্য স্বর্ণপদক, একুশের পদক, আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ স্বর্ণপদক, সাদত আলী আকন্দ স্মৃতি পুরস্কার লাভ করেন। ২৩ সেপ্টেম্বর ১৯৮৯ ঢাকায় ইন্তেকাল করেন। হ



আরো সংবাদ


মেয়ের চিকিৎসায় ১০ দিন ধরে ঢাকার হাসপাতালে থেকেও মন্দির ভাঙার আসামি (১২৯০৫)‘বাতিল হলো ঢাকা-চট্টগ্রাম এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্প’ (১২২০৬)প্রধানমন্ত্রী মোদি কি আগামী নির্বাচনে হেরে যাচ্ছেন বলে এখনই টের পেয়েছেন (৯৫৬৯)কাশ্মিরে নতুন করে উত্তেজনা ভারতের তালেবানভীতি থেকে? কেন সেই ভীতি? (৯৪১৪)কাশ্মিরে এক অভিযানে সর্বোচ্চ সংখ্যক ভারতীয় সেনা নিহত (৮০৩৮)৭২-এর সংবিধানে ফিরে যেতেই হবে : তথ্য প্রতিমন্ত্রী (৬৬০০)সঙ্কটের পথে রাজনীতি (৫৯৭৭)গ্রাহকদের উদ্দেশে কারাগার থেকে যা বললেন ইভ্যালির রাসেল (৪৮৯৫)পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর সরকারি ছুটি পুনর্নির্ধারণ (৪৮৬২)কিছু ‘বিভ্রান্তিকর খবরের’ পর বাংলাদেশের পদক্ষেপের প্রশংসা করেছে ভারত (৪৮২৯)