০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯, ১১ রজব ১৪৪৪
ads
`

রাজশাহীতে বিএনপির গণসমাবেশ : বিশ্রামের প্যান্ডেল ভেঙে দিয়েছে পুলিশ

-

আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে রাজশাহীতে বিএনপির গণসমাবেশের জন্য নগরীর ঐতিহাসিক মাদরাসা মাঠ (হাজী মুহম্মদ মহসীন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ) ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে জেলা প্রশাসন। তবে তার আগেই বিভিন্ন জেলা থেকে আসা নেতাকর্মীদের বিশ্রাম ও রাতযাপনের জন্য মাঠের একপাশে তৈরি করা প্যান্ডেল ভেঙে দিয়েছে পুলিশ। নির্মাণাধীন এই প্যান্ডেলে অন্তত ৫০ হাজার নেতাকর্মীর থাকার ব্যবস্থা করা হচ্ছিল। ৩ ডিসেম্বর বিএনপির বিভাগীয় এই গণসমাবেশ হওয়ার কথা রয়েছে।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) বিকেলে তৈরি করা এ প্যান্ডেল ভেঙে দেয় পুলিশ।

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের ব্যক্তিগত সহকারী ও গণসমাবেশের মঞ্চ উপ-কমিটির সদস্য সচিব আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ সালাম বিপ্লব নয়া দিগন্তকে বলেন, গণসমাবেশে ব্যাপক লোকসমাগম ঠেকাতে ১ ডিসেম্বর থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট ডাকা হয়েছে। সে কারণে তার আগেই বিভিন্ন জেলা থেকে নেতাকর্মীরা রাজশাহী আসবেন। তাদের বিশ্রাম ও রাতযাপনের জন্য মাদরাসা মাঠের একপাশে প্যান্ডেল তৈরি করা হচ্ছিল। বিকেলে তা ভেঙে দিয়েছে পুলিশ।

তিনি জানান, ধর্মঘটের আগেই একাধিক জেলা থেকে বিএনপির অন্তত ৫০ হাজার নেতাকর্মী রাজশাহীতে ঢুকবেন। তাদের এ মাঠেই থাকার ব্যবস্থা করা হচ্ছিল।

আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ সালাম বিপ্লব জানান, মাদরাসা মাঠে সমাবেশের জন্য আবেদন করা হয়েছিল। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত সোমবার বিকেলে রাজশাহী জেলা প্রশাসক ১ ডিসেম্বর থেকে মাঠ ব্যবহারের অনুমতি দেন। তবে সমাবেশ ও মাইক ব্যবহারের জন্য রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনারের অনুমতি এখনো মেলেনি। তবে আশ্বাস পেয়েছেন তারা।

পুলিশ জানিয়েছে, বিএনপিকে নির্ধারিত মাঠেই সব কিছু করতে হবে। অনুমোদিত জায়গায় কিছু করতে পারবে না। তবে নিয়মের বাইরে কিছু করা হলে পুলিশ তা বন্ধ করে দেবে।

রাজশাহী জেলা প্রশাসনের একটি সূত্র জানায়, হাজী মুহম্মদ মহসীন সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ে পরীক্ষা চলমান। তাই পরীক্ষা চলাকালে ওই মাঠ ব্যবহারের অনুমতি দেয়ার সুযোগ নেই। পরীক্ষা শেষ হলে ১ ডিসেম্বর থেকে মাঠে ব্যবহারের অনুমতি দেয়া হয়েছে। আর বিএনপি ৩ ডিসেম্বরই শুধু মাঠ ব্যবহারের অনুমতি চেয়েছে বলে সূত্রটি জানিয়েছে।


আরো সংবাদ


premium cement