৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ন ১৪২৯, ৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

বুধবার ছাত্রদলের বিক্ষোভ, বৃহস্পতিবার সমাবেশ

বুধবার ছাত্রদলের বিক্ষোভ, বৃহস্পতিবার সমাবেশ - প্রতীকী ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ছাত্রদলের ওপর ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে দু’দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে ছাত্রদল।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রদলের সভাপতি কাজী রওনাকুল ইসলাম শ্রাবণ এ কর্মসূচির ঘোষণা দেন।

শ্রাবণ বলেন, আগামীকাল বুধবার সারা বাংলাদেশে বিশ্ববিদ্যালয়, জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল। বৃহস্পতিবার বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের 'প্রতিবাদী ছাত্র সমাবেশ' অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া হামলায় জড়িতদের যথাযথ শাস্তি নিশ্চিত না করা হলে অবিলম্বে ধারাবাহিক কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

ছাত্রদল সভাপতি কাজী রওনাকুল ইসলাম শ্রাবণ বলেন, ‘প্রক্টর স্যার আমাদের জানিয়েছেন যদি ঢাবির নবগঠিত কমিটি দেখা করতে আসে, আমি আশ্বাস দিচ্ছি ছাত্রলীগ ছাত্রদলকে কিছুই করবে না। আমরা সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে জানিয়েছি ছাত্রদলের নবগঠিত কমিটি আসবে আমাদের সাথে দেখা করতে। তবে আমরা দুপুর থেকে খবর পাচ্ছিলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির ইন্ধনে হামলা হতে পারে। আর আমরা বিশ্ববিদ্যালয়কেও জানিয়েছি, দুপুর থেকে ছাত্রলীগ প্রকাশ্যে ক্যম্পাসে অস্ত্রের মহড়া দিচ্ছে। এর মধ্যে ভিসি স্যার আমাদের অনুমতি দিলে আমরা ক্যাম্পাসে প্রবেশ করি ফুল ও মিষ্টি নিয়ে। আমরা পূর্ব নির্ধারিত সময় নিয়েই সাক্ষাৎ করতে যাই। কিন্তু মিডিয়ার সামনেই ছাত্রলীগ আমাদের নেতা-কর্মীদের রড, দা, চাপাতি দিয়ে প্রকাশ্যে নির্যাতন চালায়। আমরা ১৫ জনের তালিকা পেয়েছি, তারা চিকিৎসা নিচ্ছেন। এই সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। আজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের অস্ত্র প্রশিক্ষণের জোন হয়ে গেছে বলেও দাবি করেন এই নেতা।’

তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দলবাজ প্রশাসন তাদেরকে সক্রিয় সহযোগিতা করছে। আজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতাকর্মীদের ওপর যে হামলা, সেই হামলার দায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কোনোভাবেই এড়াতে পারে না।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রতিটি শিক্ষার্থীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দায়িত্ব। কিন্তু সন্ত্রাসীদের হুমকি থাকা সত্ত্বেও তারা আজ ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের নিরাপত্তা দিতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছেন। আমরা এই ব্যর্থতার দায় নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, প্রক্টরসহ প্রশাসনের পদত্যাগ দাবি করছি।

ছাত্রদলের সভাপতি হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘আমরা স্পষ্টভাবে বলতে চাই, বিশ্ববিদ্যালয় কারো পৈত্রিক সম্পত্তি নয়। এখানে নির্বিঘ্নে, নিরাপদভাবে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করা আমাদের অধিকার। এই অধিকার আমরা কারো কাছে সমর্পণ করিনি, করব না। অচিরেই ছাত্রদল আবারো ক্যাম্পাসে যাবে, ইনশাআল্লাহ। আমাদের ক্যাম্পাস, আমরাই থাকবো। একইসাথে এটাও বলে রাখতে চাই, আমাদের সহযোদ্ধাদের প্রতি ফোঁটা রক্তবিন্দুর জবাব অবশ্যই দিতে হবে। প্রতিজন সন্ত্রাসীকে চিহ্নিত করে ভবিষ্যতে আইনের আওতায় আনা হবে।


আরো সংবাদ


premium cement
বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে দিল তিউনিসিয়া ফেসবুকে প্রেমের পর গণধর্ষণ, আটক ৫ বিএনপির আমলের চেয়ে ছয় গুণ বেশি রিজার্ভ আমাদের রয়েছে : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী মরা-বাঁচা লড়াইয়ে প্রথমার্ধ শেষে গোলশূন্য ডেনমার্ক-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ সোহরাওয়ার্দী উদ্যান কেনো বিএনপির অপছন্দ : ওবায়দুল কাদের ফ্রান্স-তিউনিসিয়া ম্যাচ গোলশূন্য ড্তে শেষ প্রথমার্ধ গণসমাবেশের লিফলেট বিতরণকালে গাজীপুরে বিএনপির নেতাকর্মী গ্রেফতার ১০ দফা দাবিতে জয়দেবপুর রেল স্টেশনে বিক্ষোভ দুর্নীতির অভিযোগ, বেনাপোল সোনালী ব্যাংকের ৩ কর্মকর্তা বরখাস্ত মির্জাপুরে ইটভাটা মালিককে কোটি টাকা জরিমানান ফের ৩ দিন বিমানবন্দর সড়ক এড়িয়ে চলার পরামর্শ

সকল