০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ৪ জিলহজ ১৪৪৩
`

উল্টাপাল্টা না করে অন্তবর্তীকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন : ডা: জাফরুল্লাহ

অন্তবর্তীকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন দেয়ার আহ্বান জানালেন ডা: জাফরুল্লাহ - ছবি : নয়া দিগন্ত

ভাসানী অনুসারী পরিষদের চেয়ারম্যান ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, আমাদের করুণ অবস্থা। সুশাসন ও কল্যাণকর রাষ্ট্র দরকার। কল্যাণকর রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সংগ্রাম করতে হবে।
দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে তিনি বলেন, আর উল্টাপাল্টা করবেন না। জনগণের রাগ-ক্ষোভ কমাতে অন্তবর্তীকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন।

ঐতিহাসিক ফারাক্কা লংমার্চের ৪৬তম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে সোমবার সন্ধ্যায় রাজশাহী নগরীর পদ্মার পাড়ে লালন শাহ মুক্তমঞ্চে অনুষ্ঠিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রাজশাহীর সাতটি সংগঠনের সমন্বয়ে ফারাক্কা লংমার্চ উদযাপন কমিটি এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ভারত যেভাবে গণতন্ত্র নষ্ট করেছে, এর থেকে মুক্তি পেতে হবে। মানুষের ধৈর্যের সীমা আছে। সরকার প্রধানের প্রতি আহ্বান রেখে তিনি বলেন, জনগণের রাগ-ক্ষোভ কমাতে অন্তবর্তীকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন। দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না।

দেশের সার্বিক চিত্র তুলে ধরে ডা: জাফরুল্লাহ বলেন, অনেকে বলছেন আমাদের দেশে শ্রীলংকার মত অবস্থা হবে না। আপনারা তা কিভাবে জানলেন?

তিনি আরো বলেন, কল্যাণকর রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সংগ্রাম করতে হবে। আমি অসুস্থ হলেও আপনাদের এ সংগ্রামে শামিল থাকবো।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ভারত হলো এশিয়ার দ্বিতীয় ইসরাইল। ইসরাইল গুলি করে সাংবাদিককে হত্যা করেছে। এ ব্যাপারে তিনি সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান।

জনসভায় সভাপতিত্ব করেন ফারাক্কা লংমার্চ উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ও বিশিষ্ট গবেষক মাহবুব সিদ্দিকী।

এতে অন্যদের মধ্যে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকী, পানি সম্পদ পরিকল্পনা সংস্থার সাবেক মহাপরিচালক প্রকৌশলী ম. ইনামুল হক, রাজশাহী আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কাশেম, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট হাসনাত কাইউম, ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, আজাদ খান ভাসানী, নাগরিক ঐক্যের সেক্রেটারি শহীদুল্লাহ কায়সার, নদী ও পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন বাংলাদেশের সভাপতি অ্যাডভোকেট এনামুল হক, বিশিষ্ট চিকিৎসক ওয়াসিম হোসেন, রাজশাহী আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পারভেজ তৌফিক জাহেদী, সাবেক এমপি জাহান পান্না, প্রফেসর ড. ইফতিখারুল আলম মাউদ, হোসেন আলী পিয়ারা, অ্যাডভোকেট রজব আলী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

জনসভায় জোনায়েদ সাকী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের হাতে দেশ নিরাপদ নয়। শেখ হাসিনাকে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে। অন্তবর্তীকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচনের মাধ্যমে দেশপ্রেমিক সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। এ সময় তিনি বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ রাজনীতি নিয়ে হস্তক্ষেপ বন্ধ ও ভারতের আগ্রাসী নীতি পরিবর্তনের আহ্বান জানান।


আরো সংবাদ


premium cement