১৬ মে ২০২২
`

বিএনপিকে ভাঙার চেষ্টা করে লাভ হবে না : জয়নুল আবেদীন


বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেছেন, আওয়ামী লীগ আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপিকে ভাঙার চেষ্টা করছে বলে শুনতে পাচ্ছি, তবে আমি বিশ্বাস করি না। তারপরও বলব, যদি কেউ হালুয়া-রুটির লোভে দলের সঙ্গে বেইমানি করে, সেই বেইমানদের জায়গায় দলে এবং বাংলাদেশে হবে না।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঢাকা জেলা বিএনপি আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জয়নুল আবেদীন বলেন, “যত চেষ্টা করেন করেন, বিএনপিকে ভাঙা যাবে না, কোনো লাভ হবে না। বিএনপি মচকাবে তবু ভাঙবে না। ‘অনির্বাচিত সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে’- মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে সরকার পতনের আন্দোলন ঠেকানো যাবে না।”

তিনি বলেছেন, 'অনির্বাচিত সরকারের কলাকুশলীরা একটি নির্বাচনী রোড ম্যাপ তৈরি করছেন বলে শোনা যাচ্ছে। আমাদের বক্তব্য স্পষ্ট- এ রোডম্যাপ নির্বাচনী নয়, এটা হচ্ছে কিভাবে কোন পথে বাংলাদেশ থেকে অনির্বাচিত সরকার বিদায় নিবে এবং পালানোর চেষ্টা করবে সেই রোডম্যাপ।'

সরকারকে উদ্দেশ্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপিকে অংশ নেয়ার ক্ষেত্রে অহেতুক চেষ্টা করবেন না। আপনাদের মিথ্যা আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে বিএনপির আর কোনো নির্বাচনে অংশ নেবে না।’

বিএনপির আন্দোলন করতে জানে না, বিএনপির আন্দোলন তারা দেখে নেবেন বলে বক্তব্য দেয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদের তীব্র সমালোচনা করেন তিনি। বলেন, 'আন্দোলনের কি দেখেছেন? স্বৈরাচার এরশাদ নয় বছর রাষ্ট্রক্ষমতায় ছিলেন, সেই এরশাদ আন্দোলনে ভেসে গেছে। কোনো স্বৈরাচারী টিকতে পারে নাই। এই অনির্বাচিত সরকারও আন্দোলন থামাতে পারবে না, তাদের অল্প কয়েকদিন সময় আছে, তাদের বিদায় নিতে হবে।'

সরকার ইচ্ছাকৃতভাবে বাংলাদেশের মানুষের সমস্ত সম্পদ লুটপাট করে বিদেশে পাচার করতে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে দ্রব্যের মূল্য বৃদ্ধি করছে বলে অভিযোগ করেন জয়নুল আবেদীন।

অনির্বাচিত সরকার খালেদা জিয়াকে বিনা চিকিৎসায় তিলে তিলে মেরে ফেলতে চায় মন্তব্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন, 'খালেদা জিয়া এই সরকারের পতন না দেখে মৃত্যুবরণ করবেন না, তিনি আবারো রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব নিবেন। অন্যায়ভাবে মানুষকে বেশিদিন দাবিয়ে রাখা যায় না। যে যত কথাই বলুক এই সরকার আর টিকতে পারবে না। যদি বাঁচতে চান তাহলে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে মানে মানে বিদায় হোন।'

ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি ডাক্তার দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবু সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশ সঞ্চালনা করেছেন ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাক। বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঢাকা জেলা সিনিয়র নেতা ও ধামরাই উপজেলা সাবেক চেয়ারম্যান তমিজউদদীন, কেরানীগঞ্জ দক্ষিণ জেলা বিএনপি'র সভাপতি নিপুন রায় চৌধুরী, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য কপিল উদ্দিন প্রমুখ।


আরো সংবাদ


premium cement